Categories
Uncategorized

বাইডেনের প্রথম দিনেই মুসলিম নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়াসহ ১৫ আদেশ

শপথ নেয়ার কয়েক ঘণ্টার মাঝেই একগুচ্ছ নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এসব আদেশের মাঝে

প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফেরা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় ফিরে আসা, মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ বন্ধ করা এবং মুসলিমদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়াসহ মোট ১৫টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় রয়েছে। ২০১৭ সালে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে আমেরিকাকে প্রত্যাহার করে নেন

সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর ফলে প্রায় ২০০ দেশের এই প্লাটফর্ম থেকে ছিটকে পড়ে আমেরিকা। এরপর ২০২০ সালে করোনা মাহামারির সময় বেরিয়ে আসেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকেও। ফলে দুটি বৈশ্বিক স্থান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় দেশটি। বাইডেন শপথ নেয়ার কয়েক ঘণ্টার মাঝেই আবারও এই দুই জায়গায় যোগদান করার আদেশে স্বাক্ষর করেছেন। এর ফলে আগামী ৩০ দিনের মাঝেই আমেরিকা আবার

জলবায়ু চুক্তিতে ফিরে যাবে। বৃহস্পতিবারই দেশটির শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউশি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্বাহী পরিষদের বৈঠকে যোগ দেবেন।বাইডেন ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাও তুলে নিয়েছেন। ট্রাম্পের দেয়া এই নিষেধাজ্ঞা মূলত মুসলিম নিষেধাজ্ঞা নামেই পরিচিত ছিল। এর ফলে নিষিদ্ধ হয়ে পড়া মুসলিম দেশগুলোর নাগরিকরা এখন আমেরিকার ভিসার জন্য আবারও আবেদন করতে পারবেন।

বাইডেনের এসব পদক্ষেপ আমেরিকাকে আবারও ‘বিশ্ব মোড়লের’ স্থানে ফিরিয়ে নেবে বলে সংবাদ মাধ্যমগুলোর বিশ্লেষণে বলা হচ্ছে। এছাড়া মেক্সিকো সীমান্তে বিতর্কিত দেয়াল নির্মাণ কার্যক্রমও বাইডেন বন্ধ করেছেন। অবৈধ অভিবাসীদের জন্যও তিনি শিগগিরই বিল নিয়ে আসবেন। শপথ নেয়ার অনুষ্ঠানেই বাইডেন বলেছেন, ‘বিশ্ববাসী আমাদের সবাইকে আজ দেখছে। আমেরিকা পরীক্ষার মধ্য দিয়ে গেছে। এবং আমরা আরও শক্তিশালী হয়ে সেখান

থেকে বেরিয়ে এসেছি। আমরা আমাদের চুক্তিগুলোতে আবারও ফিরে যাব এবং বিশ্বের সাথে আবারও সংযুক্ত হবো।’

Categories
Uncategorized

নবীগঞ্জে বিজয়ী ধানের শীষ, বিজয় উল্লাস নৌকা সমর্থকদের

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ পৌরসভায় বেসরকারি ফলাফলে ধানের শীষের প্রার্থী ছাবির আহমদ চৌধুরী বিজয়ী হয়েছেন। আজ শনিবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে

মাত্র ১৬৭ ভোটের ব্যবধানে নৌকার প্রার্থী গোলাম রসুল রাহেল চৌধুরীকে পরাজিত করে তিনি বিজয়ী হন। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো তিনি পৌর মেয়র নির্বাচিত হলেন। তবে ধানের শীষের প্রার্থী ছাবির আহমদ চৌধুরী বিজয়ী হলেও তাৎক্ষনিক নৌকা প্রার্থীর সমর্থকরা বিজয়

উল্লাস করে শ্লোগান দেওয়া শুরু করেন। আর থেমে নেই ধানের শীষের প্রার্থীর সমর্থকরাও। বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী, প্রাথমিক ফলাফলে মোট ১০টি কেন্দ্রে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরীর প্রাপ্ত ভোট ৫ হাজার ৭৪৫। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গোলাম রসুল রাহেল চৌধুরীর প্রাপ্ত ভোট

৫ হাজার ৪৮৫। ২৬০ ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে বেসরকারি ফলাফলে বিজয়ী হন ছাবির আহমদ চৌধুরী। তবে ফলাফল নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে। উভয় প্রার্থীর সমর্থকরা নিজেদের বিজয়ী দাবি করে বিক্ষোভ মিছিল করায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াকে সতর্ক অবস্থায় রয়েছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ পৌরসভায় বেসরকারি ফলাফলে ধানের শীষের প্রার্থী ছাবির আহমদ চৌধুরী বিজয়ী হয়েছেন।

Categories
Uncategorized

বাংলাদেশ থেকে ভ্রমনকারীদের জন্য এমিরেটস বিমানের দারুণ মূল্যছাড়

বাংলাদেশ থেকে বিশেষ ভাড়া ঘোষণা করেছে এমিরেটস। ভ্রমনে উৎসাহিত করার লক্ষ্য নিয়ে দুবাই ভিত্তিক এমিরেটস এয়ারলাইন বাংলাদেশ

থেকে ভ্রমনকারীদের জন্য বিশেষ মূল্যছাড় ঘোষণা করেছে। ইকোনমি ও বিজনেস উভয় শ্রেণীতে ভ্রমনের ক্ষেত্রে এই মূল্যছাড় প্রযোজ্য হবে। মংগলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমিরেটস এয়ারলাইন্স এই তথ্য জানায়। বিশেষ অফার পেতে হলে গ্রাহকদের ১৯ জানুয়ারী থেকে ১

ফেব্রুয়ারী, ২০২১ এর মধ্যে টিকিট ক্রয় এবং ২০ জানুয়ারী থেকে ৩০ জুন, ২০২১ মধ্যে ভ্রমন করতে হবে। ঢাকা, চট্রগ্রাম ও সিলেটে অবস্থিত এমিরেটস অফিস, ট্রাভেল এজেন্ট বা www.emirates.com/bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টিকিট ক্রয় করা যাবে। বিশেষ অফারে ইকোনমি শ্রেণীতে সকল ট্যাক্সসহ সর্বনিন্ম রিটার্ন ভাড়া হবে: লন্ডন- ৬৭,৪৪৪ টাকা, মিলান-৫৮,৬৮৭ টাকা,

নিউইয়র্ক-৭৪,৪৩২ টাকা, টরন্টো-১০৭,৬৯১ টাকা এবং দুবাই- ৫০,২৬৭ টাকা। অন্যদিকে বিজনেস শ্রেণীতে সকল ট্যাক্সসহ সর্বনিন্ম রিটার্ণ ভাড়া পড়বে : লন্ডন- ২৩৬,০৯৬ টাকা, মিলান-২০৭,৪৬৮ টাকা, নিউইয়র্ক- ২৯২,৯৩১ টাকা, টরন্টো-২৯৪,১৯৪ টাকা এবং দুবাই-১০২,৮০৮ টাকা। দুবাই এখন ব্যবসা ও পর্যটনের জন্য উন্মূক্ত। ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ এর মধ্যে দুবাই বা ভায়া দুবাই ভ্রমণকারীরা সংযুক্ত

আরব আমিরাতে তিন শতাধিক রেস্টুরেন্ট এবং বিশ্বমানের ৩৫টি হোটেলের স্পাতে বিশেষ মূল্যছাড় পাবেন। এ ছাড়াও থাকবে অন্যান্য সুবিধা।
এ জন্য যাত্রীদের ‘মাই এমিরেটস পাস’ দেখাতে হবে, যা মূলত: এমিরেটস বোর্ডিং পাস এবং সাথে যে কোন বৈধ পরিচয় পত্র। ভ্রমনে যাত্রীদের আস্থা ফিরিয়ে আনতে করতে এমিরেসট নমনীয় বুকিং নীতি ও কোভিড-১৯সহ মাল্টি-রিস্ক বীমা কভারেজ অফার করছে।

৩০ জুন, ২০২১ এর মধ্যে টিকিট ক্রয়কারী যাত্রীরা রিবুকিং-এর ক্ষেত্রে বিশেষ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে এবং সাথে রয়েছে টিকিটের বৈধতা ২ বছর পর্যন্ত বৃদ্ধির সুযোগ। ১ ডিসেম্বর, ২০২০ থেকে টিকিট ক্রয়কারী যাত্রীরা বিনা খরচে মাল্টি-রিস্ক ও কোভিড-১৯ বীমা কভারেজ পাচ্ছেন। এমিরেটস বর্তমানে ঢাকা থেকে সুপরিসর বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজের সাহায্যে দৈনিক ২টি করে ফ্লাইট

পরিচালনা করছে। এমিরেটস যাত্রীরা ভায়া দুবাই বিশ্বের শতাধিক গন্তব্যে ভ্রমণের জন্য সুবিধাজনক সংযোগ পাচ্ছেন।

Categories
Uncategorized

আগ্রহী হলে বিএনপিকে যেন আগে ভ্যাকসিন দেয়া হয়: তথ্যমন্ত্রী

বিএনপি আগে ভ্যাকসিন নিতে চাইলে তাদের যেন আগে ভ্যাকসিন দেয়া হয় সে বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করবেন বলে জানিয়েছেন

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বুধবার দুপুরে, সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি। তথ্যমন্ত্রী বলেন, ভ্যাকসিন সরকার একটি নীতিমালার ভিত্তিতে প্রয়োগ করবে। যারা ফ্রন্টলাইন ফাইটার মহামারির ক্ষেত্রে তারা নিশ্চয়ই প্রথমে পাওয়ার অধিকার রাখে। এই ব্যাপারে সরকার

চিন্তা-ভাবনা করে যাদেরকে আগে দেয়া প্রয়োজন তাদেরকে আগে দেয়া হবে। বিএনপি যদি আগে ভ্যাকসিন নিতে চায় আমি স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করতে পারি বিএনপিকে যেন আগে ভ্যাকসিন দেয়া হয়। তিনি বলেন, বিএনপি গুজব রটিয়েছিল একটি ভুল সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে সঠিক সময়ে ভ্যাকসিন আসছে না। কিন্তু সঠিক সময়ে ভ্যাকসিন আসছে। এমনকি আমরা বিনামূল্যে ভ্যাকসিন পাচ্ছি,

ভারত সরকারের উপহার হিসেবে। যখন সবকিছুতে ব্যর্থ হচ্ছে তখন ভ্যাকসিন নিয়ে অন্য কথা। লুটপাটের দল তো বিএনপি, সেজন্য সবকিছুতে লুটপাট দেখার চেষ্টা করে। তারা মনে করেছিল এই করোনা মহামারি সরকার সঠিকভাবে মোকাবিলা করতে পারবে না। যখন সেটি হয়নি তারা প্রথম থেকে আশঙ্কা বা ধরণা করেছিল এমনকি হয়ত প্রার্থনাও করেছিল যে করোনায় যেন ব্যাপক

লোক ক্ষয় হয় এবং দেশে একটি অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়, কিন্তু তা হয়নি। এতে তারা প্রচণ্ড হতাশ হয়েছে।

Categories
Uncategorized

নৌকার চেয়ে ৮ গুন বেশি ভোট পেল ধানের শীষ

হবিগঞ্জের মাধবপুর পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে বেসরকারিভাবে জয়লাভ করেছেন বিএনপির প্রার্থী হাবিবুর রহমান মানিক। শনিবার (১৬

জানুয়ারি) রাতে পাওয়া ফলাফলের ভিত্তিতে জানা যায়, তিনি আওয়ামী লীগের নৌকার চেয়ে ৮ গুন বেশি ভোট পেয়েছেন। জানা যায়, ৫ হাজার ৩১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে জয়লাভ করেছেন ধানের শীষের প্রার্থী হাবিবুর রহমান মানিক। তার নিকটতম প্র,তিদ্ব,ন্ধী আও,য়ামী লীগের বি,দ্রো,হী প্রার্থী পংকজ কুমার সাহা নারিকেল গাছ মার্কায়

পেয়েছেন ৪ হাজার ১৫৬ ভোট। আরেক বিদ্রোহী শাহ মো. মুসলিম জগ মার্কায় পেয়েছেন ৩ হাজার ৪৯ ভোট। নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের শ্রীধাম দাশ গুপ্ত পেয়েছেন ৬০৮ ভোট। যার ফলে নৌকার চেয়ে ৮ গুন বেশি ব্যবধানে জয়লাভ করেছে ধানের শীষের প্রার্থী। এই তথ্য নিশ্চিত করেছে উপজেলা নির্বাচন অফিস।

হবিগঞ্জের মাধবপুর পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে বেসরকারিভাবে জয়লাভ করেছেন বিএনপির প্রার্থী হাবিবুর রহমান মানিক।

Categories
Uncategorized

আমার স্বামী আমেরিকায় সরকারি চাকরি করেন, আমেরিকার জীবন মেশিনের মতো: রিচি সোলায়মান

বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রিচি সোলায়মান দীর্ঘদিন ধরে তার স্বামীর সাথে প্রবাসে বসবাস করছেন। তবে প্রায় সময় তিনি দেশে আসেন।

আর দীর্ঘদিন পর তিনি দেশে ফিরেছেন। এদিকে, করোনা ভাইরাসের কারণে আমেরিকার পরিস্থিতি প্রথম থেকে ব্যাপক খারাপ হয়ে পরে। আর এই সময় এই অভিনেত্রীও সমস্যার মধ্যে পড়েন। তবে বর্তমানে দেশটির করোনা পরিস্থিতি আগের থেকে কিছুটা উন্নতি হলেও এখনো প্রতিদিন

আনেক মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে। আর এবার এই অভিনেত্রী গণমাধ্যমের সাথে নানা বিষয়ে কথা বলেছেন।
* করোনা মহামারিতে দেশে এসে কেমন লাগছে?
** বেশ ভালোই লাগছে। কারণ আমেরিকায় করোনার তাণ্ডব চলছে। রীতিমতো বি/ভী/ষি/কা/ম/য় পরিস্থিতি সেখানে। সেই তুলনায় দেশে করোনার ব্যাপকতা তেমন দেখছি না।

তাই অনেক স্বস্তিও লাগছে। এমনিতেই অনেকদিন দেশে আসা হয়নি। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করার জন্যই মূলত এসেছি। তবে এ অবসর সময়ের মধ্যে কয়েকটি নাটকে অভিনয় করব। মাসখানেক পর আমেরিকায় চলে যাওয়ার পরিকল্পনাও আছে।

* গত সপ্তাহে একটি নাটকে শুটিং করেছেন। সেটি কেমন ছিল?
** চয়নিকা চৌধুরীর পরিচালনায় ’মন কেমনের দিন’ নামের এক খণ্ডের একটি নাটকে কাজ করেছি। গল্পও বেশ সুন্দর। এ নাটকের মাধ্যমে পাঁচ বছর পর আনিসুর রহমান মিলনের সঙ্গে অভিনয় করেছি।

* আর কী কী নাটক হাতে নিয়েছেন?
** আরও অন্তত তিনটি নাটকে অভিনয় করার পরিকল্পনা আছে। এগুলো পরিচালনা করবেন এসএম শাহীন, চয়নিকা চৌধুরী। নাটকগুলোর গল্প আমার হাতে এসেছে। এছাড়া আরও কয়েকজন নির্মাতা অভিনয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন; কিন্তু সময় স্বল্পতার কারণে সেগুলো ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে। আমি তো অনেকটা ঘুরতেই দেশে এসেছি। তাই কিছুটা সময় নিজের জন্যও রাখতে হচ্ছে।
* ক্যারিয়ারের তুঙ্গে থাকাবস্থায় আমেরিকায় পাড়ি জমিয়েছেন। এ নিয়ে কখনো অনুশোচনা হয় না?

** তা তো হয়ই। আমার স্বামী আমেরিকায় সরকারি চাকরি করেন। তাই সব কিছু ছেড়ে সেখানে যাই। এরই মধ্যে আমার দুটি সন্তানও হয়েছে। ওরা বড় হচ্ছে, শিক্ষাজীবন শুরু হয়েছে। তাছাড়া আমেরিকার জীবন মেশিনের মতো। অনেক ব্যস্ত থাকতে হয় কাজ নিয়ে। মাঝে মধ্যে তাই দেশে এসে পরিবার পরিজনদের সঙ্গে দেখা করে যাই। এ ফাঁ/কে কিছু নাটকে অভিনয়ও করি।
* বর্তমান টিভি নাটক নিয়ে আপনার পর্যবেক্ষণ কী?

** আমি দেশে না থাকলেও নিয়মিতই টিভি নাটক দেখি। অল্প সংখ্যক নাটক ছাড়া বেশিরভাগই গতানুগতিক। প্রচার মাধ্যমের সংখ্যা যেভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে সেভাবে ভালো নাটক নির্মিত হচ্ছে কম। তাছাড়া সব কিছুর দাম বাড়লেও নাটকের দাম কমেছে। এটি শিল্প বিকাশের অন্তরায়। আর সরকারকে এ সেক্টরের দিকে মনোযোগ বৃদ্ধি করতে হবে। নাট্যাঙ্গনের নেতাদের নাটকের উন্নতির জন্য আরও গভীর মনোযোগ দিতে হবে।
উল্লেখ্য, দেশের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী একাধিক নাটক ও টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন। তার অভিনীত নাটক ও টেলিফিল্ম গুলো ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। তবে একটা সময় তিনি হঠাৎ করে

আমেরিকায় চলে যান। আর সেখানে তার স্বামী সরকারি চাকরি করেন। এই অভিনেত্রী সুযোগ পেলেই দেশে ছুটে আসেন।

Categories
Uncategorized

জাতিসংঘের স্বীকৃতি পেল খুলনার এক মেয়ে, অসাধারণ অর্জন

খুলনার রূপসা উপজেলার বাগমারার রূপসা চরের কিশোরী আঁখির (১৭) লেখাপড়া বন্ধ হয়ে যায় দারিদ্র্যের কশাঘাতে। করোনাভাইরাস মহামারির

কারণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে তার পরিবার। সেই মেয়েটি করোনা মোকাবিলায় মাস্ক তৈরি ও দরিদ্রদের কাছে কম দামে সেটি বিক্রি করার জন্য পেলো জাতিসংঘের ‘রিয়েল লাইফ হিরো’ স্বীকৃতি। গত ১৯ আগস্ট বিশ্ব মানবিক দিবস উপলক্ষে চার বাংলাদেশিকে ‘রিয়েল লাইফ হিরো’

হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘ। অন্য তিনজন হলেন ব্র্যাকের স্থপতিরিজভী হাসান, অনুবাদক সিফাত নূর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তানভীর হাসান সৈকত। বিজ্ঞাপন বিজ্ঞাপন শনিবার এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সেই আঁখিকে পোশাক খাতের উদ্যোক্তা বানাতে গার্মেন্টস মেশিনারিজ প্রদান করলেন খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য জনাব আব্দুস

সালাম মূর্শেদী। সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত অর্থায়নে “সালাম মূর্শেদী ‍সেবা সংঘ”-এর মাধ্যমে আঁখিকে ফ্যাটলক, ওভার লক, প্লেন, স্টিচ ও কাটিং মেশিনসহ ১৫টি মেশিন প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-খুলনা ৪ আসনের সংসদ সদস্য জনাব আব্দুস সালাম মূর্শেদী। সভাপতিত্ব করেন সালাম মূর্শেদী ‍সেবা সংঘের চেয়ারম্যান মিসেস সারমিন সালাম। উপস্থিত ছিলেন- মোঃ কামাল উদ্দিন বাদশা,

সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রূপসা উপজেলা শাখা, খাঁন নজরুল ইসলাম, সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দিঘলিয়া উপজেলা শাখা, মোঃ শহিদুল ইসলাম- চেয়ারম্যান, তেরখাদা উপজেলা পরিষদ, শেখ মারুফুল ইসলাম- চেয়ারম্যান, দিঘলিয়া উপজেলা পরিষদ, রূপসা, তেরখাদা ও দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাবৃন্দসহ আরো অনেকেই। আঁখি বলেন,

‘দরিদ্রদের সহায়তা করার জন্য এত বড় স্বীকৃতি পেয়েছি। তাই সারাজীবন অসহায়দের পাশে থাকতে চাই। ভবিষ্যতে নিজের দোকানের পরিধি আরও বড় করে পরিবারের খরচ মেটানোর পাশাপাশি অসহায় মেয়েদের কাজের সুযোগ দেওয়ার ইচ্ছে আছে।’ বাগমারার রবের মোড় এলাকার মাসুদ মোল্লা ও আনোয়ারা বেগমের দ্বিতীয় মেয়ে আঁখি। পঞ্চম শ্রেণি পাস করা এই কিশোরীর কথায়, ‘করোনাভাইরাস মহামারির শুরুতে

বাজারে মাস্কপাওয়া যাচ্ছিল না। কিছু দোকানে দাম ছিল চড়া। দরিদ্র মানুষেরা সেটি কিনতে পারতো না। কিন্তু করোনা থেকে মুক্ত থাকতে মাস্কই ভরসা। তাই নিজেই মাস্ক বানিয়ে কম দামে বিক্রি করেছি। দরিদ্ররা সেগুলো ব্যবহার করেছেন। অসহায় অনেককে বিনামূল্যে মাস্ক দিয়েছি।’ জানা গেছে, চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানায় কাজ করার সময় আঁখির বাবা দুর্ঘটনায় শারীরিকভাবে অক্ষম হয়ে পড়েন। মা চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানায় কাজ করতেন।

কিন্তু তার একার রোজগারে সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়ে। বড় বোনের সঙ্গে আঁখি চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকরণের একটি কারখানায় যোগ দেয়। এ কারণে তার স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়ে যায়। দুই বছর আগে ওয়ার্ল্ড ভিশন পরিচালিত ‘জীবনের জন্য’ প্রকল্পের কর্মী আবেদা সুলতানা চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানায় কাজ করতে দেখেন আঁখিকে। তখন আগ্রহ দেখে মেয়েটিকে সেলাই প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। প্রশিক্ষণ শেষে আঁখি ওই প্রকল্প থেকে একটি সেলাই মেশিন ও কিছু থান কাপড় পায়। এরপর শুরু হয় তার পোশাক তৈরির গল্প।

ঘরে বসেই স্থানীয়দের পোশাক বানিয়ে মাসে গড়ে তিন হাজার টাকা রোজগার করতে থাকে ‘সত্যিকারের এই নায়ক’।

Categories
Uncategorized

বাড়ি না বানিয়ে নিজের জমিতে হাসপাতাল নির্মাণ করছেন ইলিয়াস কাঞ্চন

১৯৯৩ সালের ২২ অক্টো;বর এক স;ড়ক দু;র্ঘ’ট;নায় চিত্রনায়ক ই;লিয়াস কাঞ্চনের স্ত্রী’’ মা;’;রা যান। পরে ওই বছর ২৭ নভেম্বর সং;বাদ

স;ম্মে;লন করে ’নি;রা;পদ সড়;ক চাই’ নামে এ;কটি সংগঠ;ন গঠন করেন। সেই থেকে চল;চ্চিত্রের পাশা;পাশি সমা;জসে;বা কর;ছেন জ;নপ্রিয় এই চি;ত্রনায়ক। সমা;জ;সেবায় অব;দানের স্বীকৃতি হিসেবে পে;য়েছেন একুশে পদক। নান্দ;নিক বাড়ি না বানিয়ে এই জমি;তে

হাসপাতা;ল বা;নানোর ঘো;ষণা দি;য়েছেন ইলি;য়াস ;কা;ঞ্চন। যেখানে সেবা দেওয়া হবে মানুষকে। এরই মধ্যে নামও চূড়া;ন্ত করে ফে;লেছেন। তাঁর প্র;য়াত স্ত্রী’’র নামে এটির নাম হবে ’জা;হানারা কা;ঞ্চন মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হা;পা;তাল’। ই;লিয়াস কাঞ্চ;ন বলেন, আশু;লিয়াতে হাস;পাতাল করতে যাচ্ছি। আমা’র এক;টি মাত্র জমি,

সেখানে আমি হা;সপাতাল করবো আমা’র যা আছে তাই দিয়েই হাস;পাতা’লের কাজ শুরু হয়েছে। এর মধ্যেই ৬ তলার প্ল্যান পাশ হয়ে;ছে।জেনারে;ল হাসপাতা;ল হলেও এখানে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে সড়ক দু;র্ঘ’ট;নায় আ’;;ত মা;নুষ;দের।’ অনেক সহ;;গিতা করেছেন ই;ঞ্জিনিয়া;র স্বপন ভাই। আমি আমা’র স্বপ্ন পূর;ণ করে চলেছি। যত;দিন বেঁচে থাক;বো মানুষে;র সে;বা করে যাবো। এটাই আ;মা’র স্বপ্ন ও

কাজ।তিনি আরো জানা;ন, ২০০০ সা;লে নিজ প্র;যো;জনা প্রতি;ষ্ঠান থেকে সর্ব;শে;ষ চলচ্চি;ত্র ’মুন্না মা;;স্তা;ন’ মু;ক্তি দেন তিনি। সেই ছবি থেকে যে আয় হয় তা দিয়ে হাস;পাতা’লের জমিটি কিনে রেখে;ছিলেন। ১৯৭৭ সালে বসুন্ধ’রা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অ’ভিনয় শুরু করেন ইলিয়াস কাঞ্চন। চলচ্চিত্র অ’ভিনেতা ছাড়াও তার দুটি পরিচয় হল চলচ্চিত্র প্রযোজক এবং চলচ্চিত্র পরিচালক।

মাটি;র ক;সম সিনেমা’র মাধ্যমে চলচ্চিত্র প্রযোজনা এবং বাবা আমা’র বাবা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র পরিচা;লনা শুরু করেন। তিনি মায়ে;র স্ব;প্ন নামেও একটি চলচ্চিত্র পরিচা;লনা করেন। ইলি;য়াস কাঞ্চনের প্রযোজনা সং;স্থার নাম জয় চলচ্চিত্র। প্রাইভেট প্লেনে চড়ে চুল কা’টা;তে যান সুলতান বোলখিয়া এশি;য়ার ছোট একটি দেশ ব্রুনেই। দেশটির রাজা সুল;তান হাসা;নাল বো;লখিয়া। তিনিই দেশটির স;র্বেস;র্ব্বা অ;ধি;পতি। বর্তমানে দেশটি;তে কঠোর শ;রিয়াহ আইন প্রব;র্তন করা হয়েছে। ওই আইনের

ভ’য়ে দেশটি;তে মানুষেরা আ;তঙ্কে রয়েছে। সবচেয়ে বেশি আত;ঙ্ক;গ্রস্ত হয়ে পড়েছে সমকামিরা। তারা দলে দলে দেশ ছাড়ছে।সুলতান হাসানাল বোলখিয়া ব্রুনেইর সকল ক্ষমতার একচ্ছত্র অধিপতি। তিনিই দেশটির সর্বোচ্চ ইস’লামিক নেতা। একাধারে তিনি দেশটির প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, পররাষ্ট্র ও বানিজ্যমন্ত্রী। শুধু তাই নয়, সুলতান হাসানাল বোলখিয়া ব্রুনা;ইয়ের সুপারিন্টেন্ডেন্ট অব পু’লিশ, প্রতির;ক্ষা মন্ত্রী এবং কমা;র অব দ্য আর্মড ফোর্সেস। এমনকি ব্রু;নেইর জাতীয় বিশ্ববি;দ্যালয়ের চ্যা;ন্সেলরও তিনি। ব্রু;নেইর সু;লতানে;র ব্য;ক্তি;গত

সম্প;দের পরি;মাণ ২৭ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার। বিশ্বের সবচেয়ে সম্প;দশালী শাসকদের এক;জন তিনি।র ।

Categories
Uncategorized

বাইডেন প্রশাসনে বাংলাদেশি জাইন, ময়মনসিংহে আনন্দের বন্যা

যুক্তরাষ্ট্রে নবনির্বাচিত বাইডেন প্রশাসনে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ডেপুটি চিফ অব স্টাফের সিনিয়র অ্যাডভাইজার পদে নিয়োগ পেয়েছেন

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জাইন সিদ্দিকী। ১৩ জানুয়ারি (বুধবার) জো বাইডেন প্রশাসন ডেপুটি চিফ অব স্টাফের সিনিয়র অ্যাডভাইজার পদে তার নাম ঘোষণা করে। ৩০ বছর বয়সী জাইন সিদ্দিকী ময়মনসিংহের নান্দাইলের শেরপুর ইউনিয়নের মাদারীনগর গ্রামের মোস্তাক আহম্মেদ সিদ্দিকী

ওরফে মামুন ও কামরুন আবেদীন হেলেনা সিদ্দিকী দম্পতির একমাত্র ছেলে। তারা দুজনেই যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসক। ৩২-৩৩ বছর আগে তারা পাড়ি জমান যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানেই জন্ম জাইনের। তাদের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন দাদি মাজেদা আক্তারও। নান্দাইলের শেরপুর ইউনিয়নের মাদারীনগর গ্রামে গেলে জাইনের স্বজন ও গ্রামবাসী জানান, প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত

হিসেবে জো বাইডেনের প্রশাসনে এতো বড় গুরুত্বপূর্ণ পদে তার নিয়োগ পাওয়ায় গ্রামের মানুষের মধ্যে আনন্দের বন্যা বইছে। সর্বশেষ ২০১৬ সালের এপ্রিলে বাবাকে নিয়ে গ্রামে এসেছিলেন তিনি। সবাই বলছেন, জাইন সিদ্দিকী শুধু নান্দাইলের নন, ময়মনসিংহের গর্ব, বাংলাদেশের গর্ব।
তার নিয়োগের খবরে এলাকায় মিষ্টি বিতরণের পাশাপাশি মসজিদে মসজিদে দোয়ার অনুষ্ঠান চলছে। গ্রামবাসীর প্রত্যাশা, জাইন গ্রামের মানুষের

দুঃখ-দুর্দশায় পাশে দাঁড়াবেন। বর্তমানে গ্রামের বাড়িতে জাইনের বাবা-ফুফুরা কেউ বসবাস করেন না। চিকিৎসক মোস্তাক আহম্মেদ সিদ্দিকীর চাচাত ভাই রতন সিদ্দিকী বলেন, তাদের সম্পত্তি আমিই দেখাশোনা করি। জাইনের এক ফুফু নাহিদ পারভিন মনির বিয়ে হয় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের ছোট ভাই আবদুল হাইয়ের সঙ্গে। স্বামীর মৃত্যুর পর নাহিদ পারভিন মনি আবদুল হামিদের ব্যক্তিগত সহকারী

হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি আরও বলেন, জাইনের বাবা মোবাইলে জাইন সিদ্দিকী যুক্তরাষ্ট্রের জো বাইডেন প্রশাসনে গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োগ পাওয়ার খবর জানান। এরপর থেকে গ্রামে আনন্দের বন্যা বইছে। এ বিষয়ে জাইনের চাচি লুৎফুন্নাহার বেগম বলেন, ২০১৬ সালে তারা সবাই বেড়াতে এসেছিলেন। আধাপাকা টিনশেড ঘরে রাতযাপন করেছেন আমাদের সঙ্গে। বাড়ির পাশে নরসুন্দা নদীতে নৌকায় ঘুরেছে জাইন।

ওই গ্রামের বরিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. শাহিন কবির বলেন, জাইন শুধু আমাদের গ্রাম বা জেলা নয়, বাংলাদেশের গর্ব।
মোস্তাক আহম্মেদ সিদ্দিকীর বাবার পৈতৃক জায়গায় গড়ে তুলেছেন মাহবুব সিদ্দিকিয়া নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসা। এই মাদরাসার প্রধান মো. আল-আমিন জানান, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের ডেপুটি চিফ অব স্টাফের সিনিয়র অ্যাডভাইজার

হয়েছেন জেনে শুক্রবার জুমার নামাজের পর মসজিদে মিলাদ পড়িয়ে গ্রামের মানুষকে মিষ্টিমুখ করানো হয়েছে। জাইন সিদ্দিকীর ফুফু রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সহকারী একান্ত সচিব নাহিদ পারভীন মনি বলেন, জাইন যুক্তরাষ্ট্রেই জন্মগ্রহণ করেছে। জাইন সিদ্দিকীর বেড়ে ওঠা যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে। প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটি ও ইয়েল ল’ স্কুল থেকে গ্র্যাজুয়েশন করা জাইন

বর্তমানে বাইডেন-কমলা ট্রানজিশন টিমে অভ্যন্তরীণ ও অর্থনৈতিক টিমের চিফ অব স্টাফ হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছে। জাইন যুক্তরাষ্ট্রে এত বড় একটি পদে নিয়োগ পাওয়ায় তিনি খুব আনন্দিত জানিয়ে বলেন, আমরা আশাবাদী জাইন বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করবে। এছাড়া জাইন সিদ্দিকী যুক্তরাষ্ট্রের পদটি পাওয়ার পর রাষ্ট্রপতি

আব্দুল হামিদ টেলিফোনে জাইনের বাবা মোস্তাক আহম্মেদ সিদ্দিকীর সঙ্গে কথা বলে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

Categories
Uncategorized

ক’রোনায় আ’ক্রান্ত হাসানুল হক ইনু, হাসপাতালে ভর্তি

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি। তিনি রাজধানীর একটি হাসপাতালে

চিকিৎসাধীন আছেন।তিন দফায় পরীক্ষার পর গত ১৬ জানুয়ারি দিবাগত রাতে তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এর আগে ইনুর গানম্যান করোনা আক্রান্ত হন। এজন্য গত ১২ জানুয়ারি সকালে জাতীয় সংসদের কোভিড বুথে টেস্ট করান ইনু। দুপুরে টেস্টের ফলাফল পজিটিভ

আসে। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শে এদিন একটি বেসরকারি হাসপাতালে করোনার দ্বিতীয় টেস্ট করান। কিন্তু সেই রিপোর্টে নেগেটিভ আসে। পরে চিকিৎসকরা তাকে বাসায় আইসোলেশনে থেকে ৭২ ঘণ্টা পর আবার টেস্ট করতে বলেন। বাসায় আইসোলেশনে থেকে ১৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হসপিটালে ভর্তি হন।

পরদিন ১৬ জানুয়ারি তৃতীয় দফায় করোনা টেস্ট করা হলে ওইদিন রাতে ফলাফল পজিটিভ আসে। সাবেক এই তথ্যমন্ত্রী বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হসপিটালে ডা. মহিউদ্দিন আহমেদের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা স্বাভাবিক ও স্থিতিশীল আছে বলে চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহিল কাইয়ুম। সূত্রঃ যুগান্তর

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি। তিনি