Categories
Uncategorized

চেন্নাইয়ের কাছে হেরে পাঞ্জাবের বিদায়

ধীরে ধীরে শেষের পথে এগোচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ত্রয়োদশ আসর। আসরের ৫৩তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল কিংস

ইলেভেন পাঞ্জাব ও চেন্নাই সুপার কিংস। আবু ধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাঞ্জাবকে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে চেন্নাই। ফলে দ্বিতীয় দল হিসেবে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিশ্চিত হলো পাঞ্জাবের পাঞ্জাবের দেয়া ১৫৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই

দেখে খেলতে থাকেন চেন্নাইয়ের দুই ওপেনার ঋতুরাজ গায়কোয়ান্দ ও ফাফ ডু প্লেসি। দলীয় ৮২ ও ব্যক্তিগত ৪৮ রানে যখন ডু প্লেসি সাজঘরে ফেরেন। ততক্ষণে চেন্নাইয়ের জয় অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায়। আম্বাতি রাইডুকে নিয়ে বাকি পথ সহজেই পাড়ি দেন ঋতুরাজ। শেষ পর্যন্ত রাইডু ৩০ ও ঋতুরাজ ৬২ রানে অপরাজিত থাকেন। এর আগে দিনের শুরুতে টস জিতে পাঞ্জাবকে ব্যাটিংয়ে পাঠান চেন্নাই অধিনায়ক মহেন্দ্র

সিং ধোনি। ব্যাট হাতে শুরুটা আশানুরূপ ছিল পাঞ্জাবের। দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল ও মৈনাক আগারওয়াল উদ্বোধনী জুটিতে যোগ করেন ৪৮ রান। ব্যক্তিগত ২৬ রানে মৈনাক আউট হওয়ার পর আসা যাওয়ার মিছিলে যোগ দেন দলটির ব্যাটসম্যানরা। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা পাঞ্জাব যখন বড় স্কোর নিয়ে দুশ্চিন্তায় তখনই দলের ত্রাতা হয়ে আসেন দীপক হুদা। ৩০ বলে তার অপরাজিত ৬২ রানের ইনিংসে ভর করে নির্ধারিত ওভার শেষে ১৫৩ পর্যন্ত যেতে পারে রাহুলের দল। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৯ রান আসে দলপতির ব্যাট থেকে। চেন্নাইয়ের হয়ে একাই

৩ উইকেট শিকার করেন লুঙ্গি এনগিডি। এছাড়া শার্দুল ঠাকুর, ইমরান তাহির ও রবীন্দ্র জাদেজা একটি করে উইকেট শিকার করেন। অনেকে ভেবেছিলেন এটাই আইপিএলে ধোনির শেষ ম্যাচ। তবে এমন সম্ভাবনা টসের সময়ই উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। চেন্নাই অধিনায়ক পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, অবশ্যই চেন্নাইয়ের জার্সিতে এটা আমার শেষ ম্যাচ নয়। পাঞ্জাবের বিদায় নিশ্চিত হওয়ায় এখন

প্লে অফের দৌড়ে টিকে রইলো পাঁচ দল। বাকি থাকা ৩ ম্যাচ থেকেই নিশ্চিত হবে কারা যাবে পরের রাউন্ডে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *