Categories
Uncategorized

বাংলাদেশে বিনিয়োগ বৃদ্ধি করতে চায় তুরষ্ক

বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে তুরস্ক। ঢাকায় নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত মুসতফা ওসমান তুরান বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু

মুনশির সঙ্গে এক সাক্ষাতে এ আগ্রহের কথা জানান। সোমবার (১৬ নভেম্বর) সচিবালয়ে এক মতবিনিময় সভায় এসব বিষয়ে আলোচনা হয়।
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন বিনিয়োগের জন্য আকর্ষণীয় স্থান। দেশের বিভিন্ন স্থানে একশতটি স্পেশাল ইকোনমিক জোন

গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। পৃথিবীর অনেক দেশ ইতোমধ্যে বিনিয়োগের জন্য এগিয়ে এসেছেন। বাংলাদেশ সরকার আকর্ষণীয় সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছেন বিনিয়োগকারিদের।’ তুরষ্কের সঙ্গে বাণিজ্য জটিলতার বিষয় তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, ‘তৈরী পোশাক রপ্তানির ক্ষেত্রে উচ্চহারে শুল্ক প্রদান করতে হচ্ছে, ফলে রপ্তানিতে কিছু সমস্যা হচ্ছে।

উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্য সমস্যা চিহ্যিত করে, আলোচনার মাধমে তা সমাধান করা হলে বাণিজ্য বাড়ানো সম্ভব।’ তুরষ্কের সাথেও বাংলাদেশের জয়েন্ট ইকোনমিক কমিশন রয়েছে। এ কমিশনকেও কাজে লাগানোর সুযোগ রয়েছে। আইসিটি, ওষুধ এবং তৈরী পোশাক খাতে বিনিয়োগ করলে তুরষ্ক লাভবান হবে। যোগ করেন টিপু মুন্সি। তুরষ্কের রাষ্ট্রদূত বলেন, তুরষ্ক বাংলাদেশের সাথে বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বাড়াতে

আগ্রহী। তুরষ্ক বাংলাদেশের পাট পণ্যের একনম্বর ক্রেতা। তৈরী পোশাকও তুরষ্ক বাংলাদেশ থেকে আমাদি করে, এর ডিজাইন নিয়েও তুরষ্ক কাজ করতে আগ্রহী। ওষুধ আমদানির প্রচুর সুযোগ রয়েছে। ওষুধ শিল্পের মেশিনারিজ তুরষ্ক সরবরাহ করতে পারে। কিভাবে উভয় দেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়ানো যায়, তা নিয়ে কাজ করতে চায় তুরষ্ক। এ সময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের

অতিরিক্ত সচিব (এফটিএ) মো. শহিদুল ইসলামসহ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *