Categories
Uncategorized

মুসলিম সম্প্রদায় থাকলেও এই দেশে নেই একটিও মসজিদ, দেওয়া হয় না নির্মাণের অনুমতি

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ হিন্দু, মুসলিম (Muslim), খ্রিস্টান হোক বা অন্য কোন সম্প্রদায়, যেখানেই মানুষের বাস, সেখানেই সেই সম্প্রদায়ের ধর্মীয়

স্থান অবশ্যই থাকবে। কিন্তু আপনারা কি জানেন, এই বিশ্বে এমন একটি দেশ রয়েছে যেখানে মুসলিম সম্প্রদায়ের বসবাস থাকা সত্ত্বেও নেই একটিও মসজিদ, না তো ভবিষ্যতে কোনদিন তৈরি হবে। দেশটি হল স্লোভাকিয়া (slovakia)। ইউরোপীয় ইউনিয়নের সর্বশেষ সদস্য দেশ

স্লোভাকিয়া বিষয়টি হল- ইউরোপীয় ইউনিয়নের সর্বশেষ সদস্য দেশ হল স্লোভাকিয়া। প্রায় ১৭ শতক থেকে তুর্কি এবং উগার গোষ্ঠীর মুসলিম সম্প্রদায় বসবাস করছেন স্লোভাকিয়াতে। ২০১০ সালে সেখানে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষের সংখ্যা সবমিলিয়ে দাঁড়িয়েছিল প্রায় ৫ হাজার। এখানে মসজিদ নির্মানের জন্য নানা বিরোধ হলেও, এখনও অবধি সেখানে একটিও মসজিদ তৈরি হয়নি, না তো কোনদিন হবে।

মুসলিমদের আশ্রয় দিতে অস্বীকার করা হয়েছিল
২০০০ সালে স্লোভাকিয়ার রাজধানীতে একটি ইসলামিক সেক্টর নির্মান করার বিষয়ে, বিক্ষোভ তীব্র আকার ধারণ করেছিল। স্লোভাক ইসলামী ওয়াকফ ফাউন্ডেশনের সমস্ত প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছিলেন তৎকালীন ব্র্যাটিসিওভের মেয়র। এরপর ২০১৫ সালে ইউরোপে শরণার্থী আশ্রয় একটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছিল। সেইসময় ২০০ জন খ্রিস্টানকে আশ্রয় দিলেও, স্লোভাকিয়া কোন মুসলিম শরণার্থীদের আশ্রয় দিতে চায়নি।

নেই একটিও মসজিদ
এই বিষয়ে স্লোভাকিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রক ব্যাখ্যা দিয়েছি- যেহেতু সেখানে কোন মসজিদ নেই, তাই মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষরা সেখানে থাকলে সমস্যা হতে পারে। এরপর ২০১৬ সালের ৩০ শে নভেম্বর স্লোভাকিয়ার সরকার একটি আইন পাস করে। সেই আইনে ইসলাম ধর্মকে অফিসিয়ালী মর্যাদা দিতে অস্বীকার করে স্লোভাকিয়া। স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দেয়, এই দেশ ইসলাম ধর্মকে কখনই গ্রহণ করবে না। সেই থেকে স্লোভাকিয়া সমগ্র

বিশ্বের মধ্যে একমাত্র দেশ, যেখানে মুসলিম সম্প্রদায় থাকা সত্ত্বেও সেখানে কোন মসজিদ নেই আর তৈরি হবেও না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *