Categories
Uncategorized

ক্লা’সের ম’ধ্যেই অ’ন্ত’রঙ্গ অবস্থায় ছাত্র-ছাত্রীর ভিডিও ফেসবুকে ভা’ইরাল!

ক্লাসরুমের মধ্যে ছাত্র-ছাত্রী অন্তরঙ্গ অবস্থায় ছিল। সেই মুহুর্তে ভিডিও করছিল ক্লাসের কয়েকজন। পরে কে বা কারা ভিডিওটি ছড়িয়ে দেয়

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এরপর তা ভাইরাল হতেই শোরগোল পড়ে যায় ওই স্কুলে।ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মগরার একটি স্কুলে। ইটিভি ভারত নামের গণমাধ্যমে প্রকাশ পাওয়া সংবাদে আরও বলা হয়েছে, দুই ছাত্র-ছাত্রী খুবই ঘনিষ্ঠ অবস্থায় রয়েছে। সেই দৃশ্য ভিডিও করছে আরো

কয়েকজন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিওটি ভাইরাল হতে সময় লাগেনি। একপর্যায়ে অন্য শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদেরও চোখে পড়ে তা। গতকাল সকালে অভিভাবকরা একজোট হয়ে স্কুলের সামনে বিক্ষোভ করেন। অভিযুক্ত ছাত্র-ছাত্রীকে বহিষ্কার করারও দাবি তোলা হয়।স্কুলের প্রধান শিক্ষক জানান, ওই দুই শিক্ষার্থীকে এরইমধ্যে বহিষ্কার করা হয়েছে। তবে, ভবিষ্যতের কথা ভেবে কেবল টেস্ট পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার

সুযোগ দেওয়া হবে তাদের। ক্লাস করতে দেওয়া হবে না।প্রধান শিক্ষক বলেন, আমাদের স্কুল যথেষ্ট ঐতিহ্যবাহী। ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে এ ধরনের আচরণ মানা যায় না। প্রত্যেক ক্লাসরুমের বাইরে সিসিটিভি আছে। এবার আমরা ক্লাসরুমের ভেতরেও সিসিটিভি লাগানোর ব্যবস্থা করব।
স্কুলে মোবাইল ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে এবং কেউ মোবাইল নিয়ে ধরা পড়লে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।স্কুলের সাবেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরাও এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তাঁদের কথায়, আমরাও পড়াশোনা করেছি। আমাদের ছেলে-

মেয়েরাও পড়ছে। এই ধরনের ঘটনা সামনে আসায় চমকে যাচ্ছি। স্কুল কর্তৃপক্ষকে আরো কঠোর হতে হবে। আরো পরুন নিজ স্ত্রীকে আবারো বিয়ে করলেন বলিউড তারাকা আবতাব আক্ষরিক অর্থেই, জ্ঞান হওয়ার আগে থেকেই তিনি বিনোদন দুনিয়ার মুখ। এক বছর দু’মাস বয়সে তাঁকে দেখা গিয়েছিলে ফ্যারেক্স বেবি ফুডের বিজ্ঞাপনে। তারপর শিশুশিল্পী হিসেবেও এসেছে সুনাম এবং পরিচিতি। কিন্তু গোটা কেরিয়ারে

‘চকোলেট বয় ভাবমূর্তি ছেড়ে আর বেরোতে পারেননি আফতাব শিবদাসানি।আফতাবের জন্ম ১৯৭৮-এর ২৫ জুন। তাঁর বাবা প্রেম শিবদাসানি সিন্ধি সম্প্রদায়ের। মা, পুতিল পার্সি পরিবারের মেয়ে। সেন্ট জেভিয়ার্স স্কুলের পরে এইচআর কলেজ থেকে বাণিজ্যে স্নাতক হন আফতাব।

বেশ কিছু বিজ্ঞাপন ছাড়াও শৈশবে আফতাবকে দেখা গিয়েছিল বেশ কিছু হিন্দি ছবিতেও। তিনি শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেন ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’, ‘চালবাজ’ এবং ‘ইনসানিয়ত’ ছবিতে। ‘শাহেনশা’ ছবিতে তিনিই ছিলেন অমিতাভ বচ্চনের শৈশবের ভূমিকায়।মডেলিং চলতে থাকে উনিশ বছর বয়স অবধি। তারপরই তিনি সুযোগ পান রামগোপাল ভার্মার ছবি ‘মস্ত’-এ। কলেজপড়ুয়া আফতাবের বিপরীতে নায়িকা ছিলেন ঊর্মিলা মাতণ্ডকর। ২০০০ সালে মুক্তি পাওয়া ছবিটি ছিল সুপারহিট।তার পরের বছরই আফতাব অভিনয় করেন খলনায়কের ভূমিকায়। বিক্রম

ভট্টের পরিচালনায় ‘কসুর’ ছবিতে। এই ছবিটিও বক্সঅফিসে সাফল্য পায়। পরপর দু’টি ছবি হিট হওয়ার পরে আফতাবের কেরিয়ার ধাক্কা খায়।
পরপর বেশ কিছু ছবি মুখ থুবড়ে পড়ে। ‘লভ কে লিয়ে কুছ ভি করেগা’, ‘কোই মেরে দিল সে পুছে’, ‘ক্যায়া ইয়েহি প্যায়ার হ্যায়’ সে ভাবে সফল হয়নি। তারপর ওঠাপড়া নিয়েই এগোতে থাকে আফতাবের কেরিয়ারগ্রাফ। তাঁর কেরিয়ারে ‘ডরনা মানা হ্যায়’, ‘হাঙ্গামা’, ‘মুসকান’, ‘নিশব্দ’, ‘ওম শান্তি ওম’, ‘দশ কহানিয়াঁ’, ‘লাইফ মেঁ কভি কভি’, ‘কমবখত ইশক’ উল্লেখযোগ্য ছবি। তবে ২০০৭-এর পর থেকেই আফতাবের কেরিয়ারগ্রাফ আচমকাই নামতে থাকে দ্রুত গতিতে।তিনি ছবি করা কমিয়ে দেন। এমনও সময় গিয়েছে, যখন এক বছরে

আফতাবের একটা ছবিও মুক্তি পায়নি। ব্যক্তিগত জীবনেও দেখা দেয় টানাপড়েন। ইন্ডাস্ট্রিতে আফতাবের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত বিক্রম ভট্ট। তাঁকে
‘মেন্টর’ বলে মানেন আফতাব। বিক্রমের অভিযোগ, আফতাবের জীবন ব্যাহত হয় আমনা শরিফের জন্য। আফতাবকে নাকি নিজের প্রয়োজনে ‘ব্যবহার’ করেছিলেন আমনা। পরে আমনা বিয়ে করেন প্রযোজক অমিত কপূরকে। আমনার কাছ থেকে প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পরে আফতাবের জীবনে আসেন নিন দুসাঞ্জ। তাঁকেই আফতাব বিয়ে করেন ২০১৪ সালের ৫ জুন। একান্ত ঘরোয়া সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন শুধুই দুই পরিবারের সদস্যরা। পঞ্জাবি পরিবারের মেয়ে নিনের বড় হওয়া লন্ডনে। তারপর তিনি ছিলেন হংকং-এ। নিন কর্মরত অ্যাডভার্টাইজিং

ও ব্র্যান্ডিং-এ।আফতাবের জীবনে অভিনব দিক হল একই স্ত্রীকে দু’বার বিয়ে করা। ২০১৭ সালের অগস্টে নিনকে আবার বিয়ে করেন আফতাব। প্রথমবার তাঁদের বিয়ে হয়েছিল ঘরোয়া ধর্মীয় অনুষ্ঠানে। দ্বিতীয়বার তাঁদের বিয়ে হয় শ্রীলঙ্কায়। শ্রীলঙ্কায় তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন ঘনিষ্ঠ বন্ধু ও আত্মীয়রা। হাতির পিঠে চড়ে বিয়ের আসরে হাজির হন আফতাব। পাল্কিতে করে আসেন নিন। ডিজাইনার যোশিতার লেহেঙ্গায় সেজেছিলেন নিন। আফতাবের পরনে ছিল ট্রয় কোস্টার ডিজাইন করা শেরওয়ানি। আফতাবের আগামী ছবি ‘টম ডিক হ্যারি ২’-র মুক্তি আসন্ন।

অভিনয়ের পাশাপাশি ছবি প্রযোজনাও করেন তিনি। ২০০৯ সালে মুক্তি পায় আফতাব প্রযোজিত ছবি ‘আও উইশ করেঁ’।

Categories
Uncategorized

স্বামী প্রবাসে থাকেন বলে সুন্দরী ফাঁ’দে ফেলে হাতিয়ে নিয়েছেন লাখ লাখ টাকা

প্রতিনিয়ত আমাদের চারিপাশে কত রকমের প্রতারনার ঘটনা ঘটে চলেছে। তার সব আমরা জানাতে না পারলেও কিছু কিছু ঘটনা মিডিয়ার

মাদ্ধমে আমরা জানতে পারি আমাদের অবাক করে দেয়। নাম তার রূপালী। পরে যুক্ত হয়েছে কণা। চেহারা আ’কর্ষণীয় হওয়ায় এলাকার সবাই তাকে সুন্দরী বলেই ডাকেন। স্বামী বিদেশ আছেন এমন কথা বলে একের পর লোকজনকে ফাঁ’দে ফেলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে পরিবারের সবাই

মিলে কৌশলে হা’তিয়ে নেয় লাখ লাখ টাকা। পরিবারটির মূল পেশাই যেন প্র’তারণা করা। শুধু এলাকায় নয়, তারা দেশের বিভিন্ন জে’লায় প্র’তারণা কাজে জ’ড়িত। প্র’তার’কদের বাড়ি জয়পুরহাটের কালাই উপজে’লার পুনট ইউনিয়নের নান্দাইল দিঘি গ্রামে। তারা প্রথমে বগুড়া জে’লা শহরে, এরপর কালাই পৌর শহরে, সর্বশে’ষ জয়পুরহাট জেলা শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ভাড়া বাসা নিয়ে এসব কাজ চালিয়ে

আসছেন। কয়েকদিন আগে নওগাঁর সাপাহারের এক ব্যবসায়ীকে প্রেমের ফাঁ’দে ফেলেন রূপালী ও তার স্বামী কামরুজ্জামান। তার কাছ থেকে পরিবারের সবাই মিলে ৩৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন এমন অ’ভিযোগ পু’লিশের কাছে। এরই সূত্র ধরে মঙ্গলবার রাতে জয়পুরহাট বাসস্ট্যান্ড এলাকায় তাদের ভাড়া বাসা থেকে নওগাঁর পিবিআই স্বামী-স্ত্রী, ছোট ভাই, ফুফু ও তার এক বোনকে আ’টক করেছে এ সময় পু’লিশ তাদের বাড়ি থেকে দেড় লাখ টাকা উ’দ্ধার করেছে। স্থানীয় পুনট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস ফকির বলেন, দীর্ঘদিন ধ’রে তারা

সবাই প্র’তারণার কাজে জ’ড়িত। তাদের পরিবারের কোনো লোকজনই কোনো কাজকর্ম করে না। অথচ সমাজে আর ১০ জনের চেয়ে তাদের দিন ভালোভাবে পার হচ্ছে। তাদের কঠিন শা’স্তি দা’বি করছি। পিবিআই নওগাঁ ইউনিটের পু’লিশ সুপার নয়মুল হাসান জানান, রূপালী নামের মেয়েটি স্বামী বিদেশ আছে বলে প্রেমের ফাঁ’দে ফেলেন সাপাহার বাজারের ব্যবসায়ী আবুল কালামকে। গত ৪-৫ মাস আগে মোবাইল ফোনে

পরিচয় হয় তাদের। এরই মধ্যে তারা দৈ’হি’ক স’ম্প’র্কে জ’ড়িয়ে পড়েন। এমন সম্পর্কের মাঝে রূপালী জমি কেনার কথা বলে মোটা অঙ্কের টাকা হা’তিয়ে নেন ওই ব্যবসায়ীর কাছ থেকে। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে বি’কাশ অ্যাকাউন্টের মাধ্যমেও টাকা নেন রূপালি। তিনি আরও জানান,

গত ৩১ অক্টোবর রূপালীসহ পরিবারের সবাই মিলে ব্যবসায়ী আবুল কালামকে জয়পুরহাটে ডেকে নিয়ে আ’টক করেন। এরপর ১০ লাখ টাকা দা’বি করা হয়। ব্যবসায়ীর মোবাইল ফোন দিয়ে কথা বলে তার পরিবারের সদস্যদের টাকা নিয়ে আসতে চা’পও দেন প্র’তারকরা।
তাতেও যখন টাকা পাননি তখন ব্যবসায়ীকে মা’রধ’র করে তা ভিডিও কলে দেখানো হয় পরিবারের সদস্যদের। এরপর বা’ধ্য হয়ে ব্যবসায়ীর পরিবারের লোকজন বিকাশ অ্যাকাউন্টে ১ লাখ ১০ হাজার টাকা পাঠান।

সেই টাকা নিয়েও তারা ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেননি। আরও টাকার জন্য চা’প দেন। বা’ধ্য হয়ে ব্যবসায়ী আবুল কালামের পরিবারের লোকজন ওই ঘ’টনা লিখিতভাবে জানান পিবিআইকে। পু’লিশ প্রযুক্তির সহায়তায় মঙ্গলবার রাতে আবুল কালামকে জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজে’লা সদর থেকে উ’দ্ধার করে। ওই ঘ’টনায় পু’লিশ সদস্যরা প্র’তারক চক্রের মূল হোতা রূপালী, তার স্বামী কামরুজ্জামান, ছোট ভাই শাহারুল ইসলাম রাজু, ছোট বোন

সুরাইয়া খাতুন ও ফুফু আজেদা বেগমকে জয়পুরহাট বাসস্ট্যান্ড এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে গ্রে’প্তার করে।

Categories
Uncategorized

প্রেসিডেন্ট হতে না হতেই বাইডেনকে যে অনু’রোধ করলো ইরান

ইরানের সঙ্গে স্বাক্ষর হওয়া পরমাণু সমঝোতা থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বের করে নিয়ে আসেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। তবে তার পুনরায়

নির্বাচিত হওয়ার সুযোগ এখন বেশ কম। ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেন জয়ের একদম দ্বা’রপ্রা’ন্তে রয়েছেন। এ অবস্থায় অনু’রোধ
জানিয়ে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী সম্ভাব্য প্রেসিডেন্ট যেনো আবারো

তার দেশকে পরমাণু সমঝোতায় ফিরিয়ে নিয়ে আসে। এ খবর দিয়েছে কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল-জাজিরা। শনিবার দেশটির টেলিভিশনে দেয়া এক বক্তব্যে এ অনুরোধ জানান রুহানি। তিনি বলেন, ইরানের মানুষ অর্থনৈতিক স’ন্ত্রা’সের শি’কা’র। গত তিন বছর ধরে

যুক্তরাষ্ট্র এটি করে যাচ্ছে এবং ইরানিরা কঠিন ধৈ’র্য্য দেখিয়েছে। আমরা এ ইস্যুতে সবসময়ই স্প’ষ্ট অবস্থান নিয়েছি এবং প্রয়োজনে
ভবিষ্যতেও আমাদের প্র’তিরো’ধ অব্যাহত থাকবে। এরপরই তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র হয়ত সামনে বুঝতে পারবে যে
ইরানের ওপর অব’রো’ধ চাপিয়ে দেয়া ছিল ভু’ল সিদ্ধান্ত এবং এর কোনো ভালো ফলাফল নেই।রুহানি আরো বলেন, গত তিন

বছরের অভিজ্ঞতা মার্কিনিদের জন্য একটি শিক্ষা হয়ে থাকবে। এ শিক্ষা থেকে মার্কিন পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হয়ত যুক্তরাষ্ট্রকে আবারো
ইরানের সঙ্গে হওয়া সমঝোতায় ফিরিয়ে নিয়ে আসবে।উল্লেখ্য, ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেন এর আগেও প্র’তিশ্রু’তি দিয়েছেন যে
তিনি নির্বাচিত হলে যুক্তরাষ্ট্রকে ইরানের সঙ্গে হওয়া প’রমা’ণু

সমঝোতায় ফিরে যাবেন। একইসঙ্গে ইরানের ওপর আরোপ করা নি’ষে’ধা’জ্ঞা সরিয়ে নেয়ার কথাও বলেছেন তিনি।

Categories
Uncategorized

শি’খে নিন বয়স চল্লিশ হওয়ার পরও চেহারায় তারুণ্য ধরে রাখার ৫ উপায়

চল্লিশ বছর হলেই আমাদের চেহারায় বাধ্যর্ক্যের ছাপ প’ড়ে যায়। শুধু নারীদেরই নয়, পুরুষদেরও ত্বক থেকে তারুণ্য বি’দায় নিতে

শুরু করে। তাই ত্বকের যত্ন নেওয়া খুবই প্রয়োজন। না হলে অকালেই বুড়িয়ে যেতে হবে। এমন ৫ টি কৌশল আছে যেগু’লি ঠিক মতো
মেনে চললে পঞ্চাশেও চেহারায় তারুণ্য ধ’রে রাখতে পারবেন। • বিভিন্ন ফলের রস ত্বকের জন্য খুব উপকারী।

যেমন, গাজর, শসার রস, টোম্যাটো, কমলাবেলুর মতো ফলের রস খেতে পারলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃ’দ্ধি পায়। • গোসলের আগে গোটা শ’রীরে অলিভ অয়েল মেখে নিতে পারলে তা ত্বকের তারুণ্য ধ’রে রাখতে সাহায্য করে। • পানিতে ভেজানো খেজুর ও ছোলা মিশিয়ে খেতে

পারলে পে’ট থাকবে প’রিষ্কার, ত্বক হয়ে উঠবে ঝকঝকে ও তারুণ্য ভরা। • পুরুষদের চূড়ান্ত ক’র্মব্যস্ততার মধ্যেও ১৫ দিন অন্তর অন্ত’ত একবার ফেশিয়াল করা উচিত। না, তার জন্য পার্লারে যাওয়ার দরকার নেই। মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে ত্বকে লা’গান। ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। বা মুলতানি মাটিতে সামান্য গোলাপজল মিশিয়েও মুখে মাখিয়ে

রাখু’ন। ১০-১৫ মিনিট রেখে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। উপকার পাবেন। • সকালে খালি পে’টে এক গ্লাস হালকা উ’ষ্ণ জলের স’ঙ্গে এক চামচ মধু আর লেবুর রস মিশিয়ে খেতে পারলে পে’ট থাকবে প’রিষ্কার আর শ’রীর থাকবে ঝরঝরে। ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল

ও মসৃণ। এই নিয়মগু’লি মেনে চলতে পারলে সুফল পাওয়া যাবে। আপনার চেহারায় যৌ’বন হবে দীর্ঘস্থা’য়ী।

Categories
Uncategorized

ভা’ঙতে বসেছে মিথিলা সৃজিতের সং’সা’র… বের হলো মিথিলার স্বামী সৃজিতের ৬ প্রে’মিকা

সৃজিত মুখার্জি। কলকাতার প্রতিভাবান একজন পরিচালক হিসেবেই সুনাম তার। তবে নির্মাতার বাইরেও টালিউড পাড়ায় তার আরও একটা

পরিচয় রয়েছে। ইন্ডাস্ট্রির মানুষ তাকে ‘প্রে’মিক’ হিসেবেই চিনেন। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে সৃজিতের একাধিক প্রেমের খবর প্রকাশ হয়েছে গণমাধ্যমে। ৪২ বছর ব’য়সি সৃজিত বিয়েও করেছিলেন। কিন্তু সে সংসার বেশিদিন টেকেনি। অনেক ঘাট ঘুরে সৃজিতের প্রেমের তরী অবশেষে

ভিড়েছে তীরে। সর্বশেষ বাংলাদেশের অভিনেত্রী মিথিলার স’ঙ্গে প্রেমে জড়ান সৃজিত। গেল ৬ ডিসেম্বর বিয়ে করেন তারা। মিথিলাকে বিয়ের আগে বেশ কয়েকজন না’রীর নামের স’ঙ্গে জড়িয়েছে সৃজিতের নাম।স্বস্তিকার স’ঙ্গে সৃজিত২০১৩ সালে ‘মিসর র’হস্য’ ও ২০১৪ সালে ‘জাতিস্মর’ সিনেমা নির্মাণ করেন সৃজিত। টলিউড অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জি অভিনয় করেন ওই ছবিতে। এই সিনেমা করতে গিয়েই স্বস্তিকার

স’ঙ্গে ঘনিষ্ঠ হন সৃজিত। তার আগে তখন পরমব্রত চ্যাটার্জির স’ঙ্গে প্রেমের সম্প’র্কের বিচ্ছেদ হয় স্বস্তিকার। এমন বিরহের দিনে প্রেমের পেয়ালা হাতে স্বস্তিকার পানে এগিয়ে যান সৃজিত মুখার্জি। তবে স্বস্তিকায় ‘স্বস্তি’ মেলেনি সৃজিতের। বা’ধ্য হয়ে দু’জন দুই পথ ধরেন। জয়া আহসানের স’ঙ্গেওবাংলাদেশের শোবিজের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। হুট করেই কলকাতায় ছবিতে অভিনয় শুরু করেন। ২০১৫ সালে কলকাতার ‘রাজকাহিনি’ ছবিতে অভিনয় করেন জয়া। এ ছবির নির্মাতা সৃজিত। ছবিটি করতে গিয়েই জয়ার স’ঙ্গে সৃজিতের প্রেমের গুঞ্জন

ওঠে।তবে বি’ষয়টি নিয়ে প্রথমে নীরব থাকলেও পরে গুঞ্জন নাকচ করে দেন জয়া।বধুমন্তী বাগচীতে ডুবে ছিলেন সৃজিতগত বছরের শুরুতে ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’ ভারতের সংগীতশিল্পী মধুবন্তী বাগচীর স’ঙ্গে সৃজিতের প্রেমের খবর প্রকাশ করে। তাদের প্রেম নিয়ে মিডিয়া বেশ কিছুদিন সরব থাকলেও হুট করে নীরব হয়ে যায়। মধুবন্তী বাগচীও পরে বি’ষয়টি অস্বীকার করেন। সায়ন্তনীর স’ঙ্গেও প্রেম টেকেনিসৃজিত মুখার্জি

পরিচালিত ‘এক যে ছিল রাজা’ সিনেমায় অভিনয় করেন অভিনেত্রী সায়ন্তনী গুহ ঠাকুর। চলতি বছরের মাঝামাঝি শোনা যায়, এই পরিচালকের স’ঙ্গে প্রেমে জড়িয়েছেন সায়ন্তনী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা এই জুটির একটি ছবিকে কেন্দ্র করে আলোচনা জমে ওঠে। যদিও সর্বশেষ তা গুঞ্জন পর্যন্তই সীমাবদ্ধ রয়ে গেছে। পায়েলের প্রেমে মজেছিলেন সৃজিতযেনো

‘প্রেম কুমার’ সৃজিত। টালিউড অভিনেত্রী পায়েল স’রকারের স’ঙ্গেও প্রেমে মজে ছিলেন এ নির্মাতা। কিন্তু শেষপর্যন্ত পায়েলেও থাকেনি। একটা পর্যায়ে সম্প’র্কের বিচ্ছেদ হয় তাদের মধ্যে। রিতাভারির স’ঙ্গেও প্রেমকলকাতার অভিনেত্রী ও মডেল রিতাভারি। সৃজিতের স’ঙ্গে রিতাভরির প্রেম টালিউড পাড়ায় বেশ আলোচনায় ছিল। তাদের অনেক ঘনিষ্ঠতার খবরও

কলকাতার গণমাধ্যমে উঠে আসে। তবে সম্প’র্কে পরিণয় আসেনি। হুট করেই দু’জনের সম্প’র্কে ভাঙন ধরে।

Categories
Uncategorized

বাইডেন-কমলাকে অভিনন্দন জানিয়ে যা বলল বিএনপি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় জোসেফ রবিনেট বাইডেন জুনিয়রকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

জানিয়েছে বিএনপি। একই সঙ্গে বাইডেনের রানিংমেট প্রথম মার্কিন নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকেও অভিনন্দন জানিয়েছে
দলটি। দুজনের জন্য অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম

আলমগীর। তাঁরা নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্টের সর্বাঙ্গীণ সাফল্য, সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন। বিএনপির
মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তাঁর অভিনন্দন বার্তায় জো বাইডেনের উদ্দেশে বলেন, তাঁর এই ঐতিহাসিক বিজয়ে বন্ধুপ্রতিম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের সঙ্গে বাংলাদেশের জনগণও আনন্দিত। বিএনপির মহাসচিব অভিনন্দন বার্তায় বাংলাদেশের জনগণ,

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি ও তাঁর নিজের পক্ষ থেকে জো বাইডেনকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। বিএনপির
মহাসচিব আশা প্রকাশ করে বলেন, জো বাইডেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে সক্ষম হবেন এবং
একই সঙ্গে বিশ্বে শান্তি, নিরাপত্তা,

গণতন্ত্র ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় জোরালো অবদান রাখবেন।অভিনন্দন বার্তায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর
রহমান এবং বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আমলে দুই দেশের গভীরতম

সম্প’র্কের কথা উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল আশা প্রকাশ করেন, জো বাইডেন সেই ধারাকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

Categories
Uncategorized

মুসলিম, ইহুদি ও খ্রিস্টানদের উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে কোরআন তেলাওয়াত করলেন পুতিন

মুসলিম, ইহুদী ও খ্রিস্টানদের উদেশ্যে দেয়া বক্তব্যে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করে ভাষণ দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট

ভ্লাদিমির পুতিন। রাশিয়ার জাতীয় সং’হ’তি দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ব’ক্তৃতা দেয়ার সময় রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন
পবিত্র কোরআনের দুইটি সূরার দুটি আয়াত তেলাওয়াত করেন। রাশিয়ার গণমাধ্যমগুলো বলছে,

রাশিয়ার জাতীয় সং’হ’তি দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট পুতিন বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে মুসলিম, ইহুদি, খ্রিস্টান ও
হিন্দু ধর্মের প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন। বক্তব্যে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পবিত্র কোরআনের সূরা আশ-শুরার ২৩ নম্বর আয়াত

এবং সূরা আন-নাহলের ১২৮ নম্বর আয়াত তেলাওয়াত করে সৎকর্ম, ভ্রাতৃত্ব ও বন্ধুত্ব এবং এর পুরস্কার সম্পর্কে কথা বলেন।
প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, এসব পুরস্কার সেই সব মানুষের জন্য যারা জীবদ্দশায় ভালো কাজ করেন। এরপরে তিনি ইহুদি ও

খ্রিস্টানদের উদ্দেশ্যেও তাওরাত ও বাইবেলের আয়াত উদ্ধৃত করেন। এছাড়াও বক্তব্যে পুতিন মুসলিমদের অনুভূতিতে আ’ঘা’ত হা’নার
জন্য ফ্রান্সের সমালোচনা করেন। উল্লেখ্য, নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও

সম্প্রতি গণমাধ্যমে দেয়া একটি সাক্ষাৎকারে একটি হাদীস উদ্ধৃত করেছিলেন। সূত্র : দি ইসলামিক ইনফরমেশন

Categories
Uncategorized

নির্বাচিত হওয়ার প্রথম দিনই মুসলিম নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ঘোষণা বাইডেনের

ক্ষম’তায় থাকাকালীন কিছু মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে নি’ষেধা’জ্ঞা আরোপ করেছিলেন ট্রাম্প। আর ক্ষমতায়

এলে হোয়াইট হাউজে তার প্রথম দিনই হবে যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম নি’ষেধা’জ্ঞার শেষ দিন, এমনটিই ঘোষণা দিয়েছিলেন জো বাইডেন।
তাই বাইডেন নির্বাচিত হওয়ায় এ নিয়ে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়েছে।

২০১৭ সালে দায়িত্ব গ্রহণের কিছুদিন পরই প্রেসিডেন্টের নির্বাহী আদেশে মুসলিম নি’ষেধা’জ্ঞা জারি করেন ট্রাম্প। আল জাজিরা-র
খবরে বলা হয়েছে, এখন বাইডেন প্রশাসন চাইলে খুবই সহজেই নির্বাহী আদেশে ওই সিদ্ধান্ত উ’ল্টো দিতে পারে।

তবে কনজারভেটিভ পার্টি এ নিয়ে আদালতের শরণাপন্ন হলে নি’ষেধা’জ্ঞা বা’তিলের প্রক্রিয়ায় কিছুটা বিলম্ব হতে পারে। নির্বাচনের
আগেই বি’দ্বেষমূ’লক অ’পরা’ধের বি’রু’দ্ধে ল’ড়াইয়ের কথা বলেন বাইডেন। মুসলিম সম্প্রদায়ের উদ্দেশে তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট
হিসেবে আমি আপনাদের অবদানকে সম্মান জানাতে এবং সমাজ

থেকে ঘৃ’ণার বিষয় উ’পড়ে ফেলতে আমি আপনাদের সঙ্গে কাজ করবো। আমার প্রশাসন প্রতিটি স্তরেই মুসলিম আমেরিকানদের
অবদান দেখতে চাইবে। হোয়াইট হাউসে প্রথম দিনই আমি ট্রাম্পের অসাংবিধানিক মুসলিম নিষেধাজ্ঞার পরিসমাপ্তি ঘটাবো।
এদিকে শনিবার বিজয় ভাষণে ঐক্যবদ্ধ আমেরিকা গড়ার অঙ্গীকার করেছেন বাইডেন। বলেছেন, আমি এমন একজন

রাষ্ট্রপতি হওয়ার অঙ্গী’কার করছি যিনি বিভাজন না করে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে চান। যিনি লাল ও নীল রাজ্য দেখেন না, কেবল
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে দেখেন।তিনি বলেন, এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ কথা বলেছে। তারা আমাদের সুস্পষ্ট বিজয় এনে
দিয়েছেন। এটা জনগণের বিজয়। নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরো বলেন, ‌

এই জাতির ইতিহাসে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আমরা সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছি–সাত কোটি ৪০ লাখ ভোট। আমার ওপর
আপনাদের এই আস্থা ও বিশ্বাসের জন্য আমি কৃতজ্ঞ। কোটি কোটি আমেরিকান আমার দৃ’ষ্টিভ’ঙ্গির পক্ষে ভোট দিয়েছেন। এটি আমার জীবদ্দশায় এক

অনন্য সম্মান। যে দৃ’ষ্টিভ’ঙ্গির প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ রায় দিয়েছে তাকে বাস্তবে পরিণত করাই এখন আমাদের কাজ।

Categories
Uncategorized

এক চার্জেই ছুটবে টানা ২১০ কিমি, একদম স্বল্প দামে পাচ্ছেন এই বৈদ্যুতিক স্কুটার

যত উন্নতি হচ্ছি আমর’া ততোই উন্নত হচ্ছে আমা’দের আশেপাশের পরিস্থিতি। তার সাথে সাথে বেড়ে চলেছে আমা’দের চাহিদা।

এবং সেই চাহিদার কথা মাথায় রেখে বাজারে এসেছে নিত্য নতুন ধরনের উচ্চমানের বাইক ।তার পাশাপাশি যে বি’ষয়টি খেয়াল রাখতে
হবে সেটি হল পেট্রোল এবং ডিজে’লের দাম । অত্যাধুনিক বাইক থাকলে হবেনা তার পাশাপাশি সেই

বাইকের মাইলেজ ক্ষমতা কেমন সেদিকেও নজর রাখতে হবে। কিন্তু কম দামে ভালো মাইলেজ বাইক মেলা ভার। এবার সমস্ত গ্রাহকদের কথা মাথায় রেখে এবং বর্তমান পরিস্থিতিতে পেট্রোল-ডিজে’লের দাম মাথা রেখে জনপ্রিয় বাইক নির্মাণ কোম্পানি নিয়ে এলো বাজারে ইলেকট্রিক

স্কুটার। আপাতত বাজারে এ ধরনের মডেল পাওয়া যাব’ে । এগু’লি হল Optima-hx, Nyx-hx ও Photon-hx। সেই সূত্র ধরেই Nyx HX স্কুটারের দাম প্রকাশ করা হয়েছে। বাজার হোক বা অন্য যেকোনো ধরনের কাজ সেই সমস্ত কাজের জন্য উচ্চপ্রযুক্তি ক্ষমতাসম্পন্ন
ইলেকট্রিক স্কুটার অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠবে আগামী দিনে বাজারে

এমনটাই মনে করছে গাড়ি নির্মাণ সংস্থা । গাড়িপ্রস্ততকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, এই ইলেকট্রিক স্কুটারে ব্লুটুথ ইন্টারফেসের জন্য চার ধরনের অন ডিমান্ড স্মা’র্ট কানেক্টিভিটির ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাতে যাব’তীয় কাজ অত্যাধুনিক প্রযুক্তির হাত ধরে খুব সহজে সম্পন্ন ‘হতে পারে এ বি’ষয়ে Hero Electric-এর CEO সোহিন্দর গিল জানিয়েছেন,

প্রতিটি ছোটখাটো ব্যবসাতেই একটি সুনির্দিষ্ট পরিবহন পরিষেবার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। বর্তমানে গ্রাহকদের ক্রমবর্ধমান চাহিদার বি’ষয়টিও মাথায় রাখতে হয় ছোটো-মাঝারি ব্যবসায়ীদের। এই পরিস্থিতিতে Nyx-HX-এর নতুন সিরিজের গাড়ি অনেকটাই ফ্লেক্সিবল, মডিউলার ও ভার্সাটাইল। যা গ্রাহকদের চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম।

স্কুটারটির লো রানিং কস্ট, হাই লোড-ক্যারিং ক্যাপাবিলিটি, ইন্টারসিটি রেঞ্জ আপনার নজর কাড়বে। রয়েছে স্মা’র্ট কানেক্টিভিটি ফিচারও।
স্বল্প ব্যাটারি খরচায় পর্যা’প্ত পিক-আপ দিতে সক্ষম হবে এই বাইক। এই স্কুটির দাম ৬৪ হাজার টাকা ধার্য করা হয়েছে এবং এ বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো একবার

চার্জ দিলে এই স্কুটার টি ২১০ কিলোমিটার পর্যন্ত দৌড়াতে সক্ষম । কাজেই আজই আনুন এই ইলেক্ট্রিক স্কুটার ।

Categories
Uncategorized

আমি মুসলিমদের পাশে থাকবোঃ জো বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে মু’সলিমদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ডেমোক্র্যাট নেতা জো

বাইডেন। দেশটির ইসলামিক সোসাইটি অব নর্থ আমেরিকার (আইএসএনএ) ৫৭তম বার্ষিক সম্মেলনে অংশ নিয়ে তিনি এই অঙ্গীকার
করেন। এ সময়ে ‘মু’সলিম আমেরিকান ভয়েসেস ম্যাটার’ উল্লেখ করে তিনি তিনবার বলেন, ‘আমি প্রেসিডেন্ট

নির্বাচিত হলে মু’সলিমদের পাশে থাকব।’ গতকাল আইএসএনএ’র অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে এক টুইটে বাইডেনের বক্তব্যসহ ভি’ডিও পোস্ট করে এ তথ্য জানানো হয়েছে। প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন বলেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে

প্রথম দিনই সুনির্দিষ্ট মু’সলিম দেশগুলোর ওপর অ’ভিবাসনে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবেন। মু’সলিম আমেরিকানরা তার
প্রশাসনের প্রতিটি স্তরের অংশীদার হবেন বলে নিশ্চিত করেন তিনি। এদিকে, আইএসএনএ-তে বাইডেনের উপস্থিতি মার্কিন যু’ক্তরাষ্ট্রের

নির্বাচনী রাজনীতিতে মু’সলিম আমে’রিকানদের জন্য একটি ঐতিহাসিক মু’হূর্ত বলে মনে করা হচ্ছে।