Categories
Uncategorized

ব্রিজের রেলিং ভেঙে বোনের বাড়ির রাস্তা বানাচ্ছেন নেতা

বোনের বাড়িতে যেতে এলজিইডির অর্থায়নে নির্মিত ব্রিজের হুইল গাইড ও রেলিং ভেঙে রাস্তা বানাচ্ছেন আওয়ামী লীগ নেতা। ওয়ার্ড আওয়ামী

লীগ নেতা রেজাউল করিম বাবু খানের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার আনাইতারা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের চরবিলসা দক্ষিণপাড়া গ্রামে। ব্রিজের হুইল গাইড ও রেলিং ভেঙে অন্যের জমির ওপর দিয়ে রাস্তা বানালেও ভয়ে জমির

মালিকসহ কেউ বাবু খানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে পারছেন না। সোমবার সরেজমিনে ওই এলাকায় গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। উপজেলা প্রকৌশল অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০০২-২০০৩ অর্থ বছরে চরবিলসা গ্রামের খালের ওপর ২০ মিটার দৈর্ঘ্যের একটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করে স্থানীয় এলজিইডি মির্জাপুর অফিস। ওই ব্রিজটি নির্মাণ হওয়ার পর গ্রামের মানুষ সহজে বারিন্দা

বাজারসহ উপজেলা সদরে চলাচল করে। গত শনিবার (২৮নভেম্বর) ওই ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম বাবু খান তার বোনের বাড়িতে যাওয়ার রাস্তা সহজ করতে খালের ওপর নির্মিত ব্রিজের হুইল গাইড ও রেলিং ভাঙেন। এ কাজে সহায়তা করেন তার ভগ্নিপতি রাজাপুর বাহারাম মল্লিক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মঞ্জুর রহমান মজনু। পরে তারা চান মিয়া নামের

এক ব্যক্তির জমির ওপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণ কাজ শুরু করেন এবং নির্মাণকাজের ব্যয়ভার বহন করছেন তারই। জমির মালিক ও এলাকাবাসী
এর প্রতিবাদ করলে বাবু খান উল্টো তাদের নানাভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি ধামকি দিচ্ছেন বলে গ্রামবাসী জানান। এই ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে যেকোনো

মুহূর্তে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে বলেও স্থানীয়রা জানিয়েছেন। জমির মালিক চান মিয়ার ছেলে আব্দুল হক ও ফজলুল হক বলেন, আমাদের না জানিয়েই আমাদের জমির ওপর দিয়ে রাস্তা বানানো হচ্ছে। বাধা দিলে তারা মানছেন না। আনাইতার ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার লুৎফর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ব্রিজ ভেঙে রাস্তা করার

খবর পেয়ে বাধা দিতে গেলে বাবু খান তা কর্ণপাত করছেন না। আনাইতার ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বেল্লাল হোসেন বলেন, ব্রিজের রেলিং ভেঙে রাস্তা বানানো কোনো ভাবেই ঠিক হয়নি। বাবু খানের ভগ্নিপতি রাজাপুর বাহারাম মল্লিক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মঞ্জুর রহমান মজনু বলেন, গ্রামবাসীর সমন্বয়ে রাস্তাটি

বানানো হচ্ছে। অর্থদানকারী কে জানতে চাইলে তিনি কোনো উত্তর দেননি। অভিযুক্ত বাবু খান বলেন, গ্রামবাসীর স্বার্থে রাস্তা তৈরির কাজ চলছে। এ কাজের সঙ্গে আমি জড়িত নই।আনাইতারা ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ব্রিজের হুইল গাইড ও রেলিং ভেঙে অপরাধ করা হয়েছে। মির্জাপুর উপজেলা প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান বলেন,

সরজমিনে পরিদর্শন করে ব্রিজের হুইল গাইড ও রেলিং ভাঙার সত্যতা পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *