Categories
Uncategorized

করো’নাকালে নার্স হয়ে সেবা করা সেই অভিনেত্রী প্র’চণ্ড অসুস্থ

করোনা মহামারির শুরুতে যখন সবাই ব্যাপক আতঙ্কিত, তেমন পরিস্থিতিতে মার্চ মাসের শেষ সপ্তাহে অভিনয় ছেড়ে পুরনো নার্সের পেশায়

ফিরে সাড়া জাগানো দৃষ্টান্ত রেখেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী শিখা মালহোত্রা। সেই শিখা এখন গুরুতর অসুস্থ হয়ে শয্যাশায়ী। জানা গিয়েছে, শিখার শরীরের ডানদিক বাজে ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রায় প্যারালাইসিসের মতো পরিস্থিতি। তাঁকে জুহুর কুপার হাসপাতালে ভরতি করা

হয়েছে। এক মাস আগেই তিনি করোনাভাইরাস জয় করেছেন। শিখার ম্যানেজার অশ্বিনী শুক্লা জানিয়েছেন, ‘শিখার ভয়াবহ স্ট্রোক হয়েছে। শরীরের ডানদিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাজে ভাবে। ভিলে পার্লের কুপার হাসপাতালে তাঁকে ভরতি করা হয়েছে।’ ১০ ডিসেম্বর রাতে স্ট্রোক হয়েছে শিখার। কথা বলতে পারছেন না তিনি। আপাতত তাঁকে চিকিৎসকেরা কড়া পর্যবেক্ষণে রেখেছেন। অভিনয়ের পাশাপাশি শিখার নার্সিংয়ের ডিগ্রিও

রয়েছে। করোনাভাইরাসের কালবেলায় মানুষের সাহায্যের জন্য নার্সিংয়ের পেশায় ফিরে গিয়েছিলেন তিনি। মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে কাজ করেছেন দীর্ঘদিন। ইন্ডাস্ট্রিতে যোগ দেওয়ার আগে নার্সিং শিখেছিলেন শিখা। মহারাষ্ট্রের করোনার এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতে ফিরে গিয়েছিলেন সেই কাজেই। যোগেশ্বরী পূর্বের বালাসাহেব ঠাকরে ট্রমা

হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাবে জরুরি পরিষেবায় কাজ করেছেন তিনি। এক মাস আগে নিজেও করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। তার পর সুস্থও হয়েছিলেন। শাহরুখ খানের ‘ফ্যান’ সিনেমায় টেলিভিশনের সঞ্চালিকার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন শিখা মালহোত্রা। পিরিয়ড ড্রামা ‘কাঞ্চলি’তে সঞ্জয় মিশ্রর মতো অভিনেতার বিপরীতে

কজরির চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। করোনাকালে গ্ল্যামারের তোয়াক্কা না করেই মানুষের সেবা করতে ছুটে গিয়েছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *