Categories
Uncategorized

ভোট নিয়ে হঠাৎ যে ঘোষণা দিলেন মির্জা ফখরুল

আগামী ৩০ ডিসেম্বর জনগণের ভোটাধিকার হ”ত্যা দিবস পালন করবে বিএনপি। একথা জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম

আলমগীর। শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) সকালে ঠাকুরগাঁওয়ে কালীবাড়িস্থ নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি। এসময় মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিএনপি গণতন্ত্র চায়, আর সেজন্যই বিএনপি ৩০ ডিসেম্বর গণতন্ত্র হ”ত্যা দিবস পালন করছে। কিন্তু আওয়ামী লীগ মুখে

গণতন্ত্রের কথা বললেও কাজ করে উল্টো।’ তিনি বলেন, বাংলাদেশসহ পৃথিবীর মানুষ জানে ২০১৮-এর জাতীয় সংসদ নির্বাচন ৩০ ডিসেম্বর না হয়ে ২৯ ডিসেম্বর রাতে হয়ে গেছে। সেই ভোটে আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে সমস্ত ভোট ডাকাতি করে নিয়ে গেছে। জনগণকে ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত করে তাঁরা একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্য নিয়েই এগিয়ে চলেছে। আওয়ামী লীগের তীব্র সমালোচনা করে

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ কৌশল পরিবর্তন করে আদালতকে ব্যবহার করে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন চালু করে ক্ষমতায় থাকার ব্যবস্থা পাকাপোক্ত করেছে। দেশের মালিকানা নেওয়ার বাসনা পূর্ণ করতে তাঁরা সবকিছু নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে দেশ পরিচালনা করছেন, যা এই দেশ ও গণতন্ত্রের জন্য বড় হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘নিয়ন্ত্রিত গণতন্ত্র ভালো, উন্নয়নের জন্য ধারাবাহিকতা প্রয়োজন’- আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন বক্তব্যই প্রমাণ করে তাঁরা ভিন্ন কৌশলে বাকশাল বাস্তবায়ন করতে চান। তিনি বলেন, করোনার টিকা নিয়েও সরকারের চিরাচরিত চুরির অভ্যাস যায়নি, সেখানেও
দুর্নীতি চলছে। বলা হচ্ছে বিনামূল্যে করোনার টিকা প্রদান করা হবে,

কিন্তু টিকাপ্রতি যে টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে সেটি জনগণের কাছ থেকেই আদায় করা হবে। দুর্নীতি এখন প্রকাশ্যেই করা হয় এবং করোনা নিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের দুর্নীতি নিয়ে সরকারে মধ্যে কোনো জবাবদিহিতা নেই বলেও মন্তব্য করেন ফখরুল। বিএনপি মহাসচিব আরো বলেন, নির্বাচন কমিশনকে প্রকাশ্যে বলা হচ্ছে চোর,

এর চেয়ে আর কলঙ্কময় অধ্যায় আর কী হতে পারে। নির্বাচনে অংশ নেওয়া প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিএনপি কৌশলগত কারণে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে, এই সুযোগে বিএনপি জনগণের কাছে যেতে পারছে, অন্য সময় বিএনপিকে সে সুযোগ দেওয়া হয় না।’ তিনি বলেন, ‘ইভিএম এদেশের মানুষের জন্য উপযোগী নয়,

বিএনপি পূর্বেও তা সমর্থন করেনি, এখনো করছে না। পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশই ইভিএমকে পরিত্যাগ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *