Categories
Uncategorized

সৌদি বাদশা সালমানের প্রতি সন্তুষ্টি প্রকাশ করে যা বললেন কাতারের আমির

উপসাগরীয় দেশ সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ ও দেশটির যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানকে আন্তরিকভাবে

ধন্যবাদ জানিয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন উপসাগরীয় প্রতিবেশি দেশ কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি। ৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার উপসাগরীয় আরব রাষ্ট্রসমূহের জন্য সহযোগিতা কাউন্সিল (জিসিসি) এর শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেওয়ার সময় সৌদি বাদশাহ ও তার

সঙ্গী প্রতিনিধিরা যে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছেন, সেজন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কাতারের আমির। আল-উলা থেকে ফিরে সৌদি বাদশাহ ও ক্রাউন প্রিন্সকে পাঠানো বার্তায় জিসিসি সম্মেলনে ভ্রাতৃত্বপূর্ণ পরিবেশ এবং সম্মেলন সফল করার প্রয়াসের জন্য প্রশংসা করেন শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি। শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি জোর দিয়ে বলেছেন,

এই সম্মেলনের ইতিবাচক ফলাফলগুলো জিসিসির পদযাত্রাকে শক্তিশালী করবে ও উপসাগরীয় অঞ্চল যে হু;মকির মুখোমুখি হয়েছে, সেসব মোকাবেলায় সদস্য দেশগুলোর মধ্যে সংহতি বাড়িয়ে তুলবে। গালফ সামিট শেষে কাতারের আমির আল-উলা ছেড়ে যান। সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান তাকে বিদায় জানাতে বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন এদিকে কাতারের সাথে সম্পর্ক পুনরুদ্ধারে সম্মত হলো

সৌদি, আমিরাত, বাহরাইন ও মিশর। খবরে জানা যায় সৌদি আরব ও তার তিনটি আরব মিত্র মঙ্গলবার রাজ্যের এক শীর্ষ সম্মেলনে দোহার সাথে পুরো সম্পর্ক পুনরুদ্ধারে সম্মত হয়েছে বলে জানিয়েছেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। মিশরও উপস্থিত উপসাগরীয় আরব রাষ্ট্রসমূহের সমবেত হওয়ার পরে ফয়সাল বিন ফারহান আল সৌদ একটি সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন যে, আকাশ পথ পুনরায় চালু হওয়াসহ কূটনৈতিক ও অন্যান্য সম্পর্ক পুনরুদ্ধারের চুক্তি বাস্তবায়নের গ্যারান্টি দেওয়ার

জন্য রাজনৈতিক ইচ্ছাশক্তি ও সৎ বিশ্বাস ছিল। এর আগে সৌদি আরব কাতারের সাথে আকাশ, স্থল ও নৌপথ খুলে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *