Categories
Uncategorized

মেয়েকে সুস্থ করে বাড়ি ফিরলেন রিকশা চালিয়ে হাসপাতালে আসা সেই বাবা

৯ দিনের চিকিৎসায় শিশু সন্তান জান্নাত সুস্থ হওয়ায় বাড়ি ফিরেছেন ঠাকুরগাঁও থেকে রংপুর আসা রিকশাচালক বাবা তারেক ইসলাম। এর

আগে শিশু জান্নাতের উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেক) আনার জন্য অ্যাম্বুলেন্সের বাড়ার টাকা না থাকায় রিকশা চালিয়ে রংপুর আসেন তিনি। রোববার (২৫ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে রামেকের শিশু সা’র্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাহফুজুল

হক শিশুটির ছাড়পত্র দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রামেক থেকে ঠাকুরগাঁওয়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন তারা। যাওয়ার সময় তার রিকশাটি পিকআপভানে তোলা হয়। সোমবার (১৯ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অস্ত্রোপাচার করা হয় শিশু জান্নাতের। এরপর ৭দিন হাসপাতালের পোস্ট অ’পারেটি’ভ ওয়ার্ডে রাখা হয়েছিল

তাকে। শিশুটির পে’টের না’ড়ি পেঁ’চিয়ে পড়ায় অ’সুস্থ হয়েছিল। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়া তাকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে বলে জানান ওই চিকিৎসক প্রসঙ্গত, গত ১৩ এপ্রিল রাতে শিশু জান্নাতকে ঠাকুরগাঁও সদর-হাসপাতালে ভর্তি করে তার বাবা। চিকিৎসা অবস্থায় পরদিন উন্নত চিকিৎসার জন্য দায়িত্বরত চিকিৎসকরা তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ

দেন। কিন্তু শিশু জান্নাতের বাবা অ্যাম্বুলেন্সের ভা’ড়ার টাকা ব্যবস্থা করতে না পারায় তিনদিন পর শনিবার (১৭ এপ্রিল) রিকশা চালিয়ে সন্তানকে নিয়ে রংপুর আসেন। শিশু জান্নাতের বাবা তারেক ইসলাম ও মা সুলতানা বেগম অ’ভাব-অ’নট’নের জন্য খুব কষ্টে জীবন-যা’পন করেন। তাদের সংসারের আয়ের একমাত্র উৎস ব্যাটারিচালিত রিকশা। তারেক ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার দক্ষিণ

সালন্দর গ্রামের রামবাবুর গোডাউন এলাকার হোসেনের বড় ছেলে। তার আরও দুটি মেয়ে সন্তান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *