Categories
Uncategorized

পদ্মা নদীতে প্রচুর মর’দেহ, সংখ্যা ছাড়াতে পারে ১৫০

একের পর এক বিকৃত মর’দেহ ভেসে আসছে ভারতের গ’ঙ্গা নদী দিয়ে। ইতোমধ্যে পাওয়া গেছে ৪০-৪৫টি মর’দেহ। এই সংখ্যা ১৫০ এর

বেশিও হতে পারে। এভাবে মরদেহ ভেসে আসার কারণে বিহারের বক্সায় পদ্মার পার্শ্ববর্তী এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে আ’তঙ্ক। করোনায় বিপ’র্যস্ত উত্তর প্রদেশের পাশের এলাকা বিহারে এভাবে এত মর’দেহ ভেসে আসা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে প্রশ্নের। এগুলো কোথা থেকে ভেসে এসেছে তা নিয়ে

অনুসন্ধান চালাচ্ছে প্রশাসন। রাজ্যের চৌসা এলাকার স্থানীয় বাসি’ন্দাদের বরাতে জানা যায়, সকালে উঠেই তারা দেখে গঙ্গার পাড়ে মহা’দেব ঘাটে সার সার দিয়ে জলে ভাসছে পচে গলে ফুলে ওঠা মৃতদেহ। মুহূ’র্তে খবর যায় পুলিশে। স্থানীয় প্রশা’সনের প্রাথমিক ধারণা, উত্তর’প্রদেশ থেকেই ভেসে এসেছে দেহ’গুলো এবং মৃ’ত’দের মৃ’ত্যু সম্ভবত করোনা

সংক্র’ম’ণের কারণেই হয়েছে। সৎকার করতে না পেরে মা’রা যাওয়া লোকদের পরি’বার নদীতেই ভাসিয়ে দিয়েছে মর’দেহ’গুলো। করো’নাকালে এভাবে মর’দেহ ভেসে আসায় নদীর পানিতেও সংক্র’মণ ছড়ানোর আশ’ঙ্কা তৈরি হয়েছে। ভারতের চৌসা জেলার কর্ম’কর্তা অশোক কুমার বলেন, এদিন সকালে ৪০-৫০টি মৃতদেহ ভেসে এসেছে গঙ্গায়। মৃ’তদে’হের অবস্থা

দেখে মনে করা হচ্ছে পাঁচ থেকে সাত দিন আগেই এদের মৃ’ত্যু হয়েছে। প্রাথমিক অনুমান, মৃ’ত্যুর পর কেউ দেহগুলো গঙ্গা’য় ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছে। তবে এখানেই শেষ নয়, আরও মৃ’ত’দেহ ভেসে আসার সম্ভা’বনা রয়েছে। কম করে ১০০-এর কাছাকাছি লা’শ নদীতে ফেলা হয়েছে বলে অনুমান। এভাবে ক্রম’শ করোনায় মা’রা যাওয়াদের নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ায় দ্রু’ত সংক্র’মণ ছড়ানোর আতঙ্কে তটস্থ বাসিন্দারা।

তবে এগুলো উদ্ধার করে মাটিতে পুঁতে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। সূত্র: এই সময়, এনডিটিভি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *