Categories
Uncategorized

ফেরিতে হুড়ো’হুড়িতে নিহ’তের ঘট’নায় সংখ্যা বেড়ে ৭

শিমুলিয়া-বাংলা’বাজার নৌ’রুটে ২ ফে’রিতে হু’ড়ো’হু’ড়িতে এখন পর্যন্ত ৭ জন নি’হ’ত এবং অর্ধ’শতা’ধিক আ’হত হয়েছে বলে

জানিয়েছেন পুলি’শ। আজ বুধবার (১২ মে) শিমু’লিয়া থেকে বাংলাবাজার যাওয়ার প’থে শাহ পরান ও এনা’য়ে’তপুরী নামের দুইটি ফে’রিতে এই দু’টর্ঘ’না ঘটে। এর আগে শিমু’লিয়া- বাংলা’বাজার নৌ’রুটে ফে’রিতে হু’ড়োহু’ড়িতে এক কিশো’রের মৃ’ত্যু হয়েছে। ঘা’ট ও পু’লি’শ

সূত্রে জানা যায়, আজ সকাল ১০টার দিকে যাত্রী বো’ঝাই করে শিমু’লিয়া ঘাট থেকে রো রো ফে’রি শাহ-পরান ছে’ড়ে আসে। বেলা সাড়ে ১১টায় বাংলাবাজার ৩ নং ফেরি ঘাটে নোঙর করে ফে’রিটি। এ সময় অ’তি’রিক্ত যাত্রী থাকা’য় না’মার সময় তাড়া’হু’ড়ো করায় এই হ’তাহ’তের ঘ’টনা ঘটে। গণপ’রিবহন বন্ধ ও বি’জিবি মোতা’য়েন করে

কয়ে’কটি চেক’পো’স্ট বসিয়েও লো’কজ’নকে এবার আ’ট’কে রাখা যা’য়নি। সব বাধা উপেক্ষা করেই বাঁধ’ভাঙা স্রো’তের মতো শিমু’লি’য়া ঘাটে ছু’টছে মানুষ। গেল কয়ে’কদিন ধরে ঘাটে মা’নুষের ভিড় অ’ব্যাহ’ত থাক’লেও বুধবার (১২ মে) যা’ত্রী’দের চাপ আরও বেড়েছে। সকাল থেকে ঘরে ফেরা মানুষের ভি’ড়ের কারণে পা রাখার ঠাঁ’ই ছিল না। স্বাস্থ্য’বি’ধির তো’য়া’ক্কা না করে যাত্রীরা নদীর স্রোতের মতো

ফেরি’যোগে বাড়ি ফিরছেন। শিমুলিয়া-বাংলা’বাজার নৌ’রুটে মুন্সী’গ’ঞ্জের লৌ’হজং উপজেলার শি’মুলিয়া’ঘাটে বুধবার ১৫ টি ফে’রি চলাচল করেছে। এতে হাজার হাজার যাত্রী যানবাহন পারাপারে অ’স্বা’ভাবিক হয়ে উঠেছে দক্ষি’নব’ঙ্গের ব্য’স্ততম শিমু’লিয়া-বাংলা’বাজার নৌরুট। ফেরিতে রোগী ও লা’শবা’হী অ্যা’ম্বুলেন্স, পিক’আপ, প্রাই’ভেটকার এবং

পন্য’বাহী যা’নবাহনের সঙ্গে কয়েক হা’জার যাত্রী পার হচ্ছে। বিআ’ইডব্লি’উটিসির উর্ধ্বতন কর্তৃ’পক্ষের সি’দ্ধান্তে’র পর নৌ’রুটে ফেরি চলাচল স্বাভা’বিক হও’য়ার পরও শিমু’লি’য়াঘাটে যা’ত্রী পারা’পারে ভো’গান্তি বে’ড়েছে ক’য়েক’গুন। বুধ’বার ভোর থে’কেই শি’মুলি’য়াঘা’টে ছুটে আ’সতে থাকে ঘরমু’খো যাত্রী সাধা’রণ। এতে বেলা বাড়ার সাথে সাথে এ নৌ’রুটে হাজার

হাজার যাত্রী নিয়ে পন্যবাহি যানবাহন বোঝাই করে ঘাট ছেড়ে যায় একের পর এক ফেরি। বাংলাদেশ অভ্য’ন্তরিণ নৌ’পরিবহন কর্পো’রেশন (বিআ’ইডব্লিউ’টিসির) শিমু’লিয়া’ঘাটের ব্যবস্থা’পক (বানিজ্য) সাফায়েত আহমেদ এসব তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছেন। ১৫ টি ফে’রি চলা’চল করছে। এ নৌ’রুটে স্বাভাবিক ভা’বেই ফেরি চলাচল করেছে। যা’ত্রী ও যানবাহন

পারা’পারে ফেরিতে কি’ছুটা চাপ তো থাকবেই। মাওয়া ট্রা’ফিক পু’লিশ ফাঁ’ড়ির ইন’চার্জ মোহা’ম্মদ হিলাল উদ্দিন বলেন, ঘাটে যাত্রী চাপ থা’কলেও যানবা’হ’নের তেমন কোনো চাপ তেমন নেই। ঘাটে সামান্য সংখ্যক ৩ শতা’ধিক পন্য’বাহী যান’বা’হন পারা’পা’রের অপে’ক্ষায় রয়েছে জরুরি পরি’সেবা ছাড়া ফেরি চ’লাচল বন্ধ এবং রাতে পণ্যবা’হী’বাহী ট্রাক পারাপা’রের

ঘোষণার পরও অনে’কেই বুঝতে না পেরে ঘাটে র’ওনা হয়ে চরম বি’ড়ম্ব’নায় পড়েছেন। অনেকে ফেরতও যাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *