Categories
Uncategorized

মালয়েশিয়ায় দু’র্ঘ’টনা’য় আ’হত দেলোয়ার পেনশন পাবেন আজীবন

দূতাবাসের তৎপরতায় ক্ষতিপূরণ ও মাসিক ভাতা পেলেন দু;র্ঘটনা;য় আ;হত মালয়েশিয়া প্রবাসী দেলোয়ার (৩২)। এককালীন ক্ষতিপূরণ

পেয়েছেন ৩৫ হাজার ৭৭.৫০ রিঙ্গিত সমপরিমাণ ৭ লাখ ১৯ হাজার ৮৮.৫০ বাংলাদেশি টাকা এছাড়াও আজীবন মাসিক ভাতা ৭৫০ রিঙ্গিত সমপরিমাণ ১৫ হাজার ৩৭৫ টাকা বাংলাদেশে বসেই প্রতি মাসে পাবেন। ইতোপূর্বে ক্ষ;তিগ্র;স্ত প্রবাসী কর্মীরা আ;জীবন পেনশন পায়নি। এই

প্রথম দেলোয়ার দিয়ে শুরু হলো বলে হাইকমিশনের সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। রেমিট্যান্সযোদ্ধা, পাবনার মো. দেলোয়ার হোসেন (৩২), ২০১৬ সালে ভাগ্যের চাকা বদলাতে আসেন মালয়েশিয়ায়। প্রথম দিকে ভালোই চলছিল দেলোয়ারের দিনাতিপাত। কাজে থাকাবস্থায় এক দু;র্ঘটনা;য় তার বা;মহাত কে;টে ফেলা হয়। এরই মাঝে দেলোয়ারের মালিকপক্ষ

তড়িগড়ি করে তাকে দেশে পাঠানোর চেষ্টা চালায়। বিমানের টিকিট করে দেলোয়ারের হাতে তুলে দেয় মালিকপক্ষ। ক্ষ;তিপূ;রণের টাকা চাইলে মা;লিকপ;ক্ষ অসম্মতি জানায়। কোনো উপায়ন্তর খুঁজে না পেয়ে দেলোয়ার সোজা চলে আসেন হাইকমিশনে। দায়ের করেন মালিক পক্ষের বি;রুদ্ধে অ;ভিযোগ। হাইকমিশন দেলোয়ারের পক্ষে ক্ষ;তিপূরণ আদায়ে রিতিমতো ই;ন্স্যুরে;ন্স

কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করে। যতদিন পর্যন্ত দেলোয়ারের ক্ষতিপূরণ পরিশোধ না করবে ততদিন দেলোয়ার মা;লয়েশিয়ায় অবস্থান করবে বলে সি;দ্ধান্তে অটল ছিল হাইকমিশন। সম্প্রতি হাইকমিশনের তৎপরতায় ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি দেলোয়ারের কেটে ফেলা বাম হাতের জায়গায় লাগানো হয় কৃ;ত্রিম হাত। আগামী ২৫ মে দেলোয়ার চলে যাবেন দেশে। যতদিন

বেঁচে থাকবেন ততদিন তিনি ৭৫০ রিঙ্গিত করে প্রতি মাসে পাবেন ক্ষ;তিপূ;রণের টাকা। এদিকে হাইকমিশনের তৎপরতায় রেমিটেন্সযোদ্ধা দেলোয়ার পেয়েছেন প্রাপ্য স;ম্মান। বৈধ থাকলে সুফল মিলে এমনটিই বলছেন প্রবাসীরা। হাইকমিশনের এ তৎপরতাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তারা। মালয়েশিয়ায়া সোশ্যাল সিকিউরিটি অর্গানাইজেশন ২০২০ সাল থেকে বিদেশি কর্মীদের ক্ষতিপূরণ ও পেনশন নিয়ে কাজ করছে। মালয়েশিয়া সরকার নিয়োগকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে সকসো (ইন্স্যুরেন্স) এর সদস্য হিসেবে বিদেশি কর্মীদের অন্তর্ভুক্ত করতে। হাইকমিশন

অনুরোধ করেছে প্রবাসী বৈধ কর্মীদের নিয়োগকর্তা যদি সোকসোর সদস্য না পেলে যেন হাইকমিশনে যোগাযোগ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *