Categories
Uncategorized

২০ লাখ টাকার নিচে ডা’কা’তি করেন না এই চোর

চট্টগ্রামে আবুল খায়ের গ্রুপের পরিবেশকের গুদাম থেকে ৩৩ লাখ টাকার সিগারেট লু’টের মূল হোতা নূর ন’বীকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ।

পরে নুর নবীর স’ঙ্গে গ্রে’ফতার করা হয় ডা’কাতির মা’লামাল ক্রয় করা কুমিল্লার পশ্চিম বাগিচাগাঁও এলাকার মো. শাহজাহান এবং তার ছেলে মো. এনায়েত উল্লাহকে। চট্টগ্রাম ডিবির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি-বন্দর) নোবেল চাকমা জানান, বছর খানেক ধরে নূর নবী ও

তার দলের টা’র্গেট বিভিন্ন সিগারেটের দোকান ও গুদাম। যেসব দোকানে অন্তত ২০ লাখ টাকার সিগারেট পাওয়া যাবে সেসব দোকান কিংবা গুদাম হচ্ছে তাদের ডাকাতির লক্ষ্য। সহজে লুট ও বিক্রির সুবিধার্থে তাদের পছন্দ সিগারেট। তবে তারা ২০ লাখ টাকার মূল্যমানের নিচে মালামাল লু’ট করেন না। গ্রে’ফতার নুর নবী নোয়াখালীর হাতিয়া

থা’নার পশ্চিম বড়ডেল গ্রামের ছেলে। এলাকায় সবাই তাকে চেনেন সমাজসেবক হিসেবে। ডা’কাতির টাকায় এলাকায় দান-খয়রাতও করেন তিনি। গরু চু’রির মাধ্যমে নুর নবীর এ পথে যাত্রা শুরু হয়। রোববার রাতে সীতাকুণ্ড থা’নার বাড়বকুণ্ড এলাকা থেকে মো. নুর নবীকে গ্রে’ফতার করা হয়। পরে তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে শাহজাহান ও তার ছেলেকে কুমিল্লা

সদর থা’নার বাগিচাগাঁও এলাকা থেকে গ্রে’ফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে লুট করা ৯২ কার্টন সিগারেট এবং দুই কার্টন বিক্রির ৬৮ হাজার টাকা উ’দ্ধার করা হয়। ২৭ মে নগরের ডবলমুরিং থা’নার পোস্তারপাড় এলাকায় আবুল খায়ের গ্রুপের ডিলার খাজা ট্রেডার্সের গুদামে ডা’কাতি করে ৩২ লাখ টাকার সিগারেট নিয়ে যায় তারা।

এ ঘ’টনায় ডবলমুরিং থা’নায় মা’মলা হলে ত’দন্ত করতে গিয়ে ডবলমুরিং থা’না-পু’লিশ ও নগর গো’য়েন্দা পু’লিশের যৌথ অ’ভিযানে আন্তঃজে’লা এই ডা’কাতদলের এই স’ন্ধান পায়। নগর পু’লিশের উপ-কমিশনার (পশ্চিম) মো. আবদুল ওয়ারিশ সোমবার দুপুরে ডবলমুরিং থা’না কার্যালয়ে সংবা’দ সম্মেল’নে বলেন, এই ডা’কাতদলে ২০ থেকে ২৫ জন সদস্য রয়েছেন।

তাদের প্রধান নুর নবী। দলের বাকি সদস্যদের গ্রে’ফতারে অ’ভিযান চলছে। জি’জ্ঞাসাবা’দে নুর নবী পু’লিশকে জানিয়েছেন, সাধারণত তারা ২০ লাখ টাকার মা’লামাল টা’র্গেট করেন। এর কম করলে তাদের পোষায় না। গত ৭ বছরে ১০ জে’লায় ৩০টি ঘ’টনায় ১০ কোটি টাকার সিগারেট লু’ট করেছেন তারা। চলতি বছর লু’ট করেছেন কোটি টাকার বেশি সিগারেট। ডবলমুরিং থা’নার ওসি মোহাম্ম’দ মহসীন বলেন, চক্রটি ডা’কাতিতে বা’ধা দিলে খুনও করে। এই পর্যন্ত ডা’কাতি করতে গিয়ে বা’ধা পেয়ে দুজনকে খু’ন করার কথা

স্বীকার করেছেন নুর নবী। তিনি নিজ এলাকায় সংগঠক ও সমাজসেবক হিসেবে পরিচিত। বিয়ে করেছেন তিনটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *