Categories
Uncategorized

ভাড়াটিয়াকে থাপ্পর দেওয়ায় ছেলেকে অপহরণের পর হত্যা

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কোনাবাড়ী থানাধীন হরিনাচালা আমতলা এলাকায় অপহরণের ৫ দিন পর এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে।

নিহত হলেন- কোনাবাড়ী থানাধীন হরিনাচালা আমতলা এলাকা ফরহাদ হোসেনের ছেলে আলিফ হোসেন (৫)। শনিবার (২ মে) রাত দেড়টার দিকে র‌্যাব ওই শিশুদের বাড়ির ৩ তলায় একটি ঝুট গুদাম থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। রবিবার দুপুরে র‌্যাব-১ এর গাজীপুরের কোম্পানি

কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন তার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, গত ২৯ এপ্রিল বিকেলে আলিফ হোসেনকে অপহরণ জুয়েল আহমেদ সবুজ (২২) ও সাগর (২০)। অপহরণের পর ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করছিল তারা। এক পর্যায়ে নিহতের পিতা ফরহাদ হোসেন মুক্তিপণের ২০ লাখ টাকা দিতে রাজি হয়। পরে ওই টাকা দিতে

মোবাইলে বিভিন্ন জায়গায় ফরহাদ হোসেনকে যেতে বলে অপহরণকারীরা। এক পর্যায়ে শনিবার সন্ধ্যায় মুক্তিপণের ২০ লাখ টাকা নিয়ে পূবাইল এলাকায় যায় ফরহাদ হোসেন। সেখান থেকে সাগরকে আটক করে র‌্যাব সদস্যরা। পরে তার দেয়া তথ্যমতে ফরহাদ হোসেনের একটি বাড়ির তৃতীয় তলার ঝুট থেকে আলিফের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আটক সাগর জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাবকে জানায়, গত কয়েকদিন আগে ফরহাদ হোসেনের তাদের ভাড়াটিয়া জুয়েল আহমেদ সবুজকে কারণবশত থাপ্পড় মারে। এর প্রতিশোধ নিতে জুয়েল আহমেদ সবুজ, আলিফ হোসেনকে অপহরণ করে তাদের বাড়ির ৩ তলায় ঝুট গুদামে নিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে। আব্দুল্লাহ আল মামুন আরো জানান, মরদেহ মর্গে

পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া মূল আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *