Categories
Uncategorized

চিৎকার শুনে ৯৯৯-এ ফোন, তিন তরুণীকে উদ্ধার

চট্টগ্রাম নগরীতে ভাড়া বাসায় বি;ভিন্ন বয়সী তরুণীদের আটকে রেখে জোরপূর্বক প;তিতা;বৃত্তির অভি;;যোগে শাহনাজ বেগম (৩০) নামে এক

না;রীকে গ্রে;প্তা;র করেছে পুলিশ। এ সময় ওই বাসা থেকে আটকে রাখা তিন তরুণীকে উদ্ধার করা হয়। সোমবার বিকাল সাড়ে ৪টায় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে নগরীর পাহাড়তলী থানার বাঁচা মিয়া রোডের একটি বাড়ির ৪র্থতলার বাসা থেকে পুলিশ তাকে গ্রে’;প্তার করে।

আটক শাহনাজ বেগম ফটিকছড়ি উপজেলার ভূ;জপুর থানার থানার হেঁয়া;কো বাজার মোহাম্মদপুরের জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী। তার স্বামী জাহাঙ্গীরও এই পেশায় জড়িত। পাহাড়তলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান ইমাম বলেন, আটক শাহনাজ বেগম ও তার স্বামী জাহাঙ্গীর আলম ৩ মাস আগে এই বাসা ভাড়া নিয়ে উঠতি নারীদের এনে জো;রপূর্বক

প;তিতাবৃ;ত্তি করা;তো। গতকাল সেই বাসায় চিৎকার শুনে ৯৯৯-এ ফোন দেয় পার্শ্ববর্তী এক লোক। পরে আমরা গিয়ে তিন মেয়েকে উদ্ধার করি এবং শাহনাজ বেগ;মকে গ্রে;প্তা;র করি। তবে স্বামী জাহাঙ্গীর পালিয়ে যায়। আটক শাহনাজকে মানবপাচার আইনে মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ওসি আরও

বলেন, আ;টক শাহনাজ বেগম জি;জ্ঞাসাদে জানিয়েছে তার স্বামী দেশের বিভিন্ন স্থান হতে চাকরির প্র;লোভন দেখিয়ে কৌশলে বিভিন্ন বয়সী নারীদের বাসায় নিয়ে আসে। পরে দু’জন মিলে তাদেরকে জোর;পূর্বক ভয়;ভীতি ;দেখি;য়ে ;পতি;তাবৃ;ত্তি;তে বাধ্য করে। এজন্য তারা কিছুদিন পরপর বাসা পরিবর্তন করে বিল্ডিং;য়ের

মা;লিক অথবা বিল্ডিং;য়ের কেয়ারটে;কারের স;ঙ্গে সখ্য গড়ে তুলে এই ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *