Categories
Uncategorized

অসুস্থ মা হাসপাতালে ভর্তি। রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালের সামনে যমজ দুই ভাই–বোন আবু বক্কর ও রিতা রিকশায় চাচার কোলে ঘুমাচ্ছে।

অসুস্থ মা হাসপাতালে ভর্তি। রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালের সামনে যমজ দুই ভাই–বোন আবু বক্কর ও রিতা রিকশায় চাচার কোলে ঘুমাচ্ছে।

ঢাকা, ১১ জুলাই। ছবি: সাবিনা ইয়াসমিন
Comment
ইয়া রাব্বুল আলামীন, তুমি এই নিষ্পাপ মাসুম বাচ্চাদের জন্য, হলেও তাকে ক্ষমা কর সুস্থতা দান করো।পৃথিবীর সব চাচারা যদি এমন হত,তাও চাচাতো আছে পাশে। আল্লাহ সহায় হউন আজ দুটো শিশু অনন্ত তাদের চাচাকে কাছে পেয়ে শান্তিতে আর নির্ভয়ে ঘুমাতে পারছেন,

এই বন্ধন অটুট থাকুক সারাজীবন, মহান আল্লাহতালা যেন শিশুদের মাকে দ্রুত সুস্থ করে দেয়। এমন চাচা পাওয়াও ভাগ্যের, যা সবার কপালে জোটেনা। চাচার আদর কি তা কখনো বুঝিনি। তবে আমি একজন চাচী হয়ে দেবরের মেয়েকে অনেক ভালোবাসি, যত্ন করি, আদর করে খাইয়ে দেই৷ যে আদর ভালোবাসা নিজে পাইনি, তা বিলিয়ে দেয়ার চেষ্টা করি।

আল্লাহ বাচ্চাদের মা’কে যেন জলদি সুস্থ করে দেন৷ চাচা গরীব হলেও চাচার মনটা অনেক বড়ো ,, ভাই এর বউ অসুস্থ হলে দুনিয়াতে কয়জন আছে যারা ভাই এর ছেলে মেয়েদের এভাবে যত্ন নেয় ।। আল্লাহ খুব শীগ্রই বাচ্চা গুলোর মা কে সুস্থ করে দিক ।। মা ছাড়া ছোট বাবু গুলোর কষ্ট ।। আল্লাহ উনাকে সুস্থতা দান করুক । আমীন ।। শিশু দুটি নিশ্চিতে তাদের

চাচার কোলে শুয়ে আছে এই দৃশ্যটি আমার খুব ভালো লাগলো। সম্পর্কগুলো তো আজকাল কেমন তেতো হয়ে যাচ্ছে।তাই ভালো কিছু দেখলে ভালোই লাগে।মনে হয় এখনো পৃথিবীতে মানবতা বলে কিছু অবশিষ্ট আছে। মা হীন পৃথিবী এলোমেলো 😢 আল্লাহ শিশুদের আম্মাকে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠার তাওফীক দান করুন এর চেয়ে কষ্টের দৃশ্য অার হতে

পারে না!!!ইচ্ছে করতেছে শিশু দুটোকে বুকে জরিয়ে ধরে অাদর করি কয়েক ঘন্টা যাবত। লক-ডাউনের কারনে কত জরুরি অবস্থার রোগী ঠিকমত,সময়মত হাসপাতালে পোঁছাতে পারছে না। অন্যান্য রোগের কারনে মৃত রোগীদেরও আমরা হয়ত ভাবছি করোনায় মৃত্যু হচ্ছে। লক-ডাউনের চাইতে ক্ষতিকর কিছু হতে পারে না।

আল্লাহ এই পরিবারের সুখ শান্তি ফিরিয়ে দিন। সবাইকে পরিবারের বন্ধনে জড়িয়ে থাকার তৌফিক দান করুন। আমিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *