Categories
Uncategorized

বিয়ের প্যান্ডেলে জানাজা হলো বরের

বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের আগের রাতে আল আমিন নামে মাস্টার্স পড়ুয়া এক ছাত্র মৃত্যুবরণ করেছেন।মৃ’ত্যু’কালে তাঁর বয়স

হয়েছিল ২৭ বছর। ১২ আগস্ট বৃহস্পতিবার শিবগঞ্জের দেউলী ইউনিয়নের রহবল দক্ষিণপাড়ার বাড়ি থেকে তার বরযাত্রা যাওয়ার কথা থাকলেও সকালে শয়নঘরে তার নিথ;র দে;হ পাওয়া যায়। পরে তাঁর বিয়ের প্যান্ডেলে জানাজা শেষে দুপুরে তার মরদেহ দাফ;ন করা হয়। স্থানীয়রা

জানান, আল আমিন বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার দেউলী ইউনিয়নের রহবল দক্ষিণপাড়া গ্রামের আলম আকন্দের ছেলে। তিনি বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজে মাস্টার্সের ছাত্র ছিলেন। পাশাপাশি সংসারের কাজ করতেন। আল আমিনের সঙ্গে একই উপজেলার রায়নগর ইউনিয়নের টেপাগাড়ী গ্রামের আশরাফ আলীর মেয়ে আরেফা

আকতারের (১৮) বিয়ে ঠিক হয়। আত্মীয়স্বজন এসে বাড়ি ভরে যায়। বুধবার পরিবারের সদস্যরা দুজনের গায়েহলুদের আয়োজন করেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ি থেকে বরযাত্রার কথা ছিল। সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হওয়ায় পরিবারের সদস্যদের সন্দেহ হয়। দরজা খুলে বিছানায় আল আমিনের নি;থর দেহ দেখতে পাওয়া যায়। তার

মৃত্যুতে দুটি পরিবারে শো;কের ছায়া নেমে আসে। বরযাত্রার সময় বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিয়ের প্যান্ডেলের কাছে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে পারিবারিক গো;রস্থানে তার; মর;দেহ দাফ;ন করা হয়েছে। পরিবারের উদ্ধৃ;তি দি;য়ে দেউ;লী ইউনি;য়নের

চে;য়ারম্যান আব;দুল হাই প্রধান জানান, আল আ;মিন উচ্চ রক্তচাপে ভুগছিলেন। স্বজনদের ধারণা, তিনি ঘুমের মধ্যে স্ট্রোকে মা;রা গেছেন। বাবা আলম আকন্দ জানান, ছেলের মৃত্যুর ব্যাপারে তাদের কোনো সন্দে;হ বা অ;ভি;যোগ ;নে;ই। শিবগঞ্জ থানার ওসি

সিরাজুল ইসলাম জানান, সাংবাদিকদের কাছে এমন ঘটনা শুনলেও পরিবারের কেউ থানায় অবহিত করেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *