Categories
Uncategorized

শাহজালাল বিমানবন্দরের ১০ কোটি টাকা মূল্যের বিমানের ইঞ্জিন গায়েব, পড়ে আছে কঙ্কাল

এবার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে একটি পরিত্যক্ত বিমানের ইঞ্জিন গায়েব হয়েছে এমন তথ্য পাওয়া গিয়েছে তবে এয়ারলাইন্স

কোম্পানি পরিত্যক্ত এই জাহাজের ইঞ্জিন চুরি হয়েছে নাকি কোন উদ্দেশ্যে খুলে নেয়া হয়েছে সেটা জানাতে পারেনি এরইমধ্যে জানা গেছে গায়েব হওয়া ওই ইঞ্জিনের দাম আনুমানিক 10 কোটি টাকা সেইসাথে অনুসন্ধান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে তারা সিসিটিভি ফুটেজ সহ বিভিন্ন ভাবে

দেখা হচ্ছে খুঁটিনাটি ডাম্পিং স্টেশনগুলোয় পুলিশ, কাস্টমস বা অন্য কোনো সংস্থার জ’ব্দ করা গাড়ি ফেলে রাখলে রাতের আঁধারে ই’ঞ্জিন, চাকা কিংবা পার্টস গায়েব হওয়ার ঘটনা পুরনো। ডাম্পিং কর্মকর্তারা বলেন, নিরাপ’ত্তায় নিয়োজিত জনবলের অ’ভাবে তারা খোলা আকাশের নিচে থাকা এসব গাড়ির সুর’ক্ষা দিতে পারেন না।

কিন্তু সর্বোচ্চ নিরাপ’ত্তা প্রদানকারী ২১টি সংস্থার চোখ ফাঁ’কি দিয়ে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রপ্তানি কার্গো ভিলেজের পেছনের রানওয়ে অ্যাপ্রোন এলাকায় ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের একটি উড়োজাহাজের ই’ঞ্জিন গা’য়েব হয়ে গেছে। পড়ে আছে উড়োজাহাজটির ক’ঙ্কাল। বেসরকারি এয়ারলাইন্স কোম্পানির পরিত্য’ক্ত এ

উড়োজাহাজের ইঞ্জিন চু’রি হয়েছে নাকি ভিন্ন কোনো উদ্দেশে কেউ খুলে নিয়েছে, তাও জানে না বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। গায়েব হওয়া ইঞ্জিনটির দাম আনুমানিক ১০ কোটি টাকা বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। শাহজালাল বিমানবন্দরের রপ্তানি কা’র্গো ভিলেজসহ সংশ্লিষ্ট শাখা বা যাতায়াতের পয়েন্টগুলোয় সংরক্ষিত ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার

(সিভিটিভি) ফুটেজ বিশ্লেষণসহ নানাভাবে অনুস’ন্ধান করেও গায়েব হওয়া ইঞ্জিনের হদিস পাওয়া পায়নি। প্রায় পাঁচ বছর ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ রাখার পর যে মুহূর্তে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ আকাশে ওড়ার চেষ্টা করছে, তখন স্প’র্শকা’তর বা সংরক্ষিত এলাকা থেকে ইঞ্জিন উ’ধাওয়ের ঘটনায় তো’লপাড় চলছে বিমানবন্দরে। বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ

সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) কেউ এর দা’য় নিতে চাচ্ছে না শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রপ্তানিকারক ভিলেজের পেছনের রানা এবং এলাকায় একটি উড়োজাহাজ ইঞ্জিনিয়ার হয়েছে শুধু পড়ে আছে বিমানের চেসিস বেসরকারি এয়ারলাইন্স কোম্পানির পরিত্যক্ত উড়োজাহাজের এই ইঞ্জিন কোন উদ্দেশ্যে কেউ খুলে নিয়েছে নাকি

চুরি হয়েছে সেটা এখনো পর্যন্ত জানেনা কর্তৃপক্ষ তবে জানা গেছে চুরি হওয়া ইঞ্জিনের দাম আনুমানিক ১০ কোটি টাকা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *