Categories
Uncategorized

এবার নিজের আইনজীবীদের ধুয়ে দিলেন নায়িকা পরীমণি

ঢাকার বনানী থানায় দায়ের করা মাদক মামলায় ৩য় দফায় রিমান্ড শেষে চিত্রনায়িকা অভিনেত্রী পরীমণিকে জেলে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন

বিজ্ঞ আদালত। আদালতের পাঁচ মিনিটের বিরতির মধ্যে পরীমণি তার আইনজীবীদের ডেকে রেগে গিয়ে বলেন, আপনারা আমার জামিন চান না কেন? আমি তো পা;গ’ল হয়ে যাচ্ছি। আপনারা আমার সাথে কী কথা বলবেন? আমি তো পাগল হয়ে যাব? আপনারা বুঝতেছেন আমার

কী কষ্ট হচ্ছে? আদালতে শুনানির সময় পরীমণি তার আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভীসহ অন্যান্যদের সাথে এ কথা বলেন। এর আগে পরীমণিকে আদালতের এজলাসে উপস্থিত করে শুনানির জন্য আবেদন করেছেন তার আইনজীবী মুজিবুর রহমান। পরে শুনানি শুরু হলে মুজিবুর রহমান আদালতকে বলেন, আমরা আজকে জামিন

শুনানি করছি না। আমরা একটা আবেদন জানাই, আমাদের পরীমণির সঙ্গে কথা বলতে চাই। ৫ দিন চেষ্টা করেও তার সঙ্গে কথা বলতে পাননি। এসময় আদালত আবেদনের বিষয়ে আদেশ না দিয়ে ৫ মিনিটের বিরতি নেন। পরে আদালত এসে জানান পরীমণির আইনজীবীর আবেদন না মঞ্জুর করা হলো। তৃতীয় দফায় এক দিনের রিমান্ড শেষে শনিবার

বেলা সাড়ে ১১টার পর পরীমণিকে আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত সংস্থা সিআইডি। এরপর তাকে আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক কাজী গোলাম মোস্তফা তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। এর আগে বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) পরীমণির একদিনের রিমান্ড

মঞ্জুর করেন ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম। তার আগে ১০ আগস্ট পরীমণি ও আশরাফুল ইসলাম দীপুর দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস। ৫ আগস্ট পরীমণি ও দীপুর চার দিনের রি;মা;ন্ড মঞ্জুর করেছিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশিদ। উল্লেখ্য, গেল ৪ আগস্ট পরীমণিকে তার

বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‍্যাব। অভিযানে নতুন মা;দ;ক এ;ল;এ;স;ডি, ম;দ ও আ;ই;স উদ্ধার করা হয় বলে দাবি করে তারা। তার ড্রয়িংরুমের কাবার্ড, শোকেস, ডাইনিংরুম এবং বেডরুমের সাইড টেবিল ও টয়লেট থেকে বিপুল ম;দে;র বোতল উদ্ধার করা হয় বলেও দাবি করা হয়। পরদিন বিকেলে পরীমণি, প্রযোজক ও অভিনেতা মো. নজরুল ইসলাম

রাজ এবং তাদের দুই সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দীপু ও মো. সবুজ আলীকে বনানী থানায় সোপর্দ করে র‍্যাব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *