Categories
Uncategorized

বিরল রোগে আক্রান্ত তাহিয়াকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

বরগুনার তালতলীর উপজেলার তাহিয়া আমিন নামে পাঁচ মাস বয়সী এক কন্যা শিশু জন্মগতভাবে বিরল বিলিয়ারি অ্যাট্রেসিয়া রোগে আক্রান্ত।

তার চিকিৎসাবাবদ প্রায় ৫০-৬০ লাখ টাকার প্রয়োজন। তাহিয়া উপজেলার জাকির তবক গ্রামের বাসিন্দা প্রাইমারি স্কুল শিক্ষক আল আমিন ও মাতা মৌসুমি খানমের মেয়ে। তার বাবা-মা মেয়ের চিকিৎসার জন্য ঢাকার নানা হাসপাতালে ঘুরেন। অবশেষে ডাক্তার জানান, ভারতের

চেন্নাইয়ের রেলা ইনস্টিটিউটে নিয়ে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করতে হবে। যেখানে চিকিৎসাবাবদ প্রায় ৫০-৬০ লাখ টাকার মতো খরচ হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তাহিয়ার পরিবার ভারতে যেতে চায়। কিন্তু পরিবারের আর্থিক অবস্থা ও ইতোমধ্যে দেশে বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করার কারণে যা সম্ভব হচ্ছে না। তাই তাহিয়ার জীবন বাঁচাতে

সহৃদয়বান ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা চেয়েছেন স্কুল শিক্ষক বাবা। তাহিয়ার জীবন বাঁচাতে সাহায্য পাঠাতে পারেন নিম্নোক্ত ঠিকানায়:

আল আমিন (পিতা)
বিকাশ+রকেট+নগদ – 01719659253
মৌসুমী খানম (মা)
বিকাশ+রকেট – 01309190026

ডাচ বাংলা ব্যাংক
একাউন্ট 2181030021225
মৌসুমি খানম (মা)
পটুয়াখালী ব্যাঞ্চ

Categories
Uncategorized

শাহবাগে দুই ভবনের মাঝে পড়ে ছিল ব্যারিস্টারের স্ত্রীর নি’থ’র দে’হ!

রাজধানীর শা;হবাগ থানার পরীবাগ এলাকার দুই ভবনের মাঝামাঝি জা;য়গা থেকে ইভানা লায়লা চৌধুরী (৩২) নামের এক নারীর নিথর দেহ

উ;দ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সোয়া ছয়টার দিকে পুলিশ তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক জানান, তাঁকে মৃ;ত অবস্থায় আনা হয়েছে। ইভানা লায়লা চৌধুরী সপরিবার পরীবাগের সাকুরা গলির নবাব হাবিবুল্লাহ রোডে একটি

নয়তলা ভবনের পঞ্চম তলায় থাকতেন। তাঁর স্বামী ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ মাহমুদ হাসান। তিনি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী। তাঁদের সংসারে দুই ছেলে রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আব্বাস আলী বলেন, জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ খবর পেয়ে বিকেল ৩টা ৪০ মিনিটে ঘটনাস্থলে যাই।

সেখানে গিয়ে দেখি দুটি ভবনের মাঝে ওই নারী র.ক্তা.ক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন। এরপর তাকে উ;দ্ধার করে সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে চিকিৎসক জানান, আগেই তাঁর মৃ;ত্যু হয়েছে। তিনি আরও জানান, নি;হ;তের শ্বশুর মো. ইসমাইল হোসেন একজন অবসরপ্রাপ্ত সচিব। নিহতের স্বামী আবদুল্লাহ মাহমুদ

হাসান একজন ব্যারিস্টার। ইভানা মিরপুর স্কলাসটিকা স্কুলে চাকরি করতেন। নি;হ;ত ইভানার সঙ্গে হাসানের ২০১১ সালে বিয়ে হয়। তাদের দুটি ছেলে রয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই পরিবারের একজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তার শারীরিক সমস্যা ছিল। এ কারণেই তিনি ৯ তলা থেকে লাফ দিয়ে আ.ত্ম.হ.ত্যা করে

থাকতে পারেন। তারা ওই ভবনের ৫ তলায় থাকেন। এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদুত হাওলাদার জানান, ঘটনাস্থলের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে প্রাথমি;কভাবে ধা;রণা করা হচ্ছে ওই নারী ভবন থেকে লা;ফি;য়ে আ.ত্ম.হ.ত্যা করেছেন। পারিবারিক

কল;হের কারণে তিনি এ ঘটনা ঘটাতে পারেন বলে ধারণা করছে পুলিশ। তার;পরও সবকি;ছুই তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Categories
Uncategorized

বেনাপোলে ভারতে প্রবেশের অপেক্ষায় ৯০০ পণ্যবাহী ট্রাক

জায়গা সংকটের কারণে বেনাপোল বন্দর থেকে রপ্তানি পণ্য বোঝাই ট্রাক ভারতে প্রবেশ করতে পারছে না। এতে বন্দর এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে

তীব্র যানজট। শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে বেনাপোল বন্দর এলাকায় দেখা যায়, ভারতে প্রবেশের অপেক্ষায় শত শত রপ্তানি পণ্য বোঝাই ট্রাক দাঁড়িয়ে রয়েছে। বন্দরে এসব ট্রাক রাখার কোনো টার্মিনাল নেই। তাই বন্দরের হাইওয়ে সড়ক এবং বাইপাস সড়কসহ সব

সড়কে সৃষ্টি হয়েছে ভয়াবহ যানজট। মানুষ চলাচলের রাস্তা পর্যন্ত নেই। ছোট ছোট যানবাহন ঘণ্টার পর ঘণ্টা সড়কে দাঁড়িয়ে থাকছে। গরমে কষ্ট পাচ্ছেন বৃদ্ধ ও শিশুরা। ভারতগামী যাত্রী সুকুমার দেবনাথ জানান, বেনাপোল বাজার থেকে চেকপোস্ট মাত্র পাঁচ মিনিটের রাস্তা। অথচ এই রাস্তার যানজট পেরিয়ে আসতে সময় লেগেছে প্রায় দেড় ঘণ্টা।

স্থানীয় চাকুরজীবী শাহাজান আলী বলেন, দীর্ঘ দেড় বছর পর শিক্ষার্থীদের স্কুল খুলছে। কিন্তু রাস্তায় যানজটের যে ভয়াবহ অবস্থা তাতে বাচ্চারা সঠিক সময়ে স্কুলে যেতে পারবে না। ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, বন্দরে ইচ্ছা করেই স্থান সংকট সৃষ্টি করা হয়েছে। ভারত প্রতিদিন এ বন্দর দিয়ে বাংলাদেশে ৪০০ থেকে ৫০০ ট্রাক পণ্য রপ্তানি করলেও বাংলাদেশি পণ্য নেওয়ার

ক্ষেত্রে তারা বরাবরই প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। গত চার দিনে রপ্তানি পণ্য নিয়ে অন্তত ৯০০টি ট্রাক বেনাপোল বন্দরে অপেক্ষা করছে ভারতে প্রবেশের জন্য। ভারত প্রতিদিন মাত্র ১৫০ ট্রাক রপ্তানি পণ্য গ্রহণ করছে। অন্যদিকে ভারত প্রতিদিন এই বন্দর দিয়ে বাংলাদেশে ৪০০ থেকে ৫০০ ট্রাক পণ্য রপ্তানি করছে। বেনাপোল ট্রাক-লরি

শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহীন জানান, বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পরিমাণে সয়াবিনের ভুষি সেই সঙ্গে পাট ও পাটজাত দ্রব্য এবং গার্মেন্টস ঝুট ভারতে রপ্তানি হচ্ছে। প্রতিদিন এসব পণ্য নিয়ে ২৫০-৩০০ ট্রাক বেনাপোল বন্দরে আসছে। এ কারণে বন্দর এলাকায় তীব্র যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের

সভাপতি মফিজুর রহমান সজন বলেন, প্রতিদিন রপ্তানি পণ্য বোঝাই প্রায় ৩০০টি ট্রাক ভারতে প্রবেশের জন্য বেনাপোল আসলও ভারত বন্দরে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে মাত্র ১৫০টি ট্রাক। বেনাপোল কাস্টম হাউসের কমিশনার মো. আজিজুর রহমান বলেন, বিষয়টি সমাধানের জন্য ভারতীয় বন্দর ব্যবহারকারীরা আগামী সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুদেশের কাস্টমস, বন্দর,

সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন ও ট্রান্সপোর্ট নেতাদের সমন্বয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করবেন। যত দ্রæত সম্ভব এ সমস্যার সমাধান করা হবে। তিনি আরও জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছর কয়েক গুণ বেশি পণ্য রপ্তানি হচ্ছে ভারতে।

Categories
Uncategorized

প্রবাসী নারীর ফাঁদে পড়ে ৫৫ লাখ টাকা খোয়ালেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী

বাংলাদেশের হাজারো নাগরীক দীর্ঘদিন ধরেই বসবাস করে আসছেন বিশ্বের বিভিন্ন সব দেশে। এর মধ্যে অনেকেই আছেন ভালো কর্মকান্ডের

সাথে জড়িত আবার অনেকে আছেন অনৈতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত।আর সেই সব অনৈতিক কর্মকান্ড করা মানুষের পাল্লায় পড়ে ক্ষতির সমুখিন হয়ে থাকেন অনেক মানুষ। যার নতুন আরেকটি প্রমান মিললো।সম্প্রতি পরিবারসহ অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী হওয়ার প্রলোভনে সুপ্রিম কোর্টের

এক আইনজীবীর কাছ থেকে ৫৫ লাখ ৩৭ হাজার ৬০০ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি চ’ক্র। আইনজীবী এমএবিএম খায়রুল ইসলামের (৪৭) সঙ্গে প্র’তারণায় জ’ড়িত চ’ক্রের দুই সদস্যকে গ্রে’ফতার করেছে পুলিশের অ’পরাধ ত’দন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তারা হলেন- মো.সাইমুন ইসলাম (২৬) ও মো. আশফাকুজ্জামান খন্দকার (২৬)।

এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি কম্পিউটার, জাল ভিসা ও জাল টিকিটসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সরঞ্জামাদি জ’ব্দ করা হয়। এ চ’ক্রের মূলহোতা অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী উম্মে ফাতেমা রোজী (৩৫)। তাকেও দেশে ফিরিয়ে আনতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সিআইডি। রোববার দুপুরে রাজধানীর মালিবাগে সিআইডির প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত এক

সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সংস্থাটির অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হোসেন। তিনি বলেন, অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী বসবাসের কথা বলে দীর্ঘদিন ধরে জাল ভিসা প্রস্তুত করে লাখ লাখ টাকা আ’ত্মসাৎ করেছেন প্রবাসী উম্মে ফাতেমা রোজী। তিনি মাঝেমধ্যে দেশে এসে উচ্চবিত্তদের টার্গেট করে আত্মীয়ের ভিসায় অস্ট্রেলিয়া নিয়ে যাবেন বলে প্রলোভন দেখান।

সপরিবারে গেলে (স্বামী-স্ত্রী) ২৩ লাখ আর একা গেলে ১৮ লাখ, সে হিসেবে চুক্তি করতেন তিনি। রোজী নিজেকে অস্ট্রেলিয়া ইমিগ্রেশন কনস্যুলার জেনারেল হিসেবে মি’থ্যা পরিচয় দিতেন। সিআইডি জানায়, রোজী দেশে থাকাকালীন তার সঙ্গে পরিচয় হয় সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এমএবিএম খায়রুল ইসলামের। তখন রোজী অস্ট্রেলিয়ার

প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের কাছ থেকে পুরস্কৃত হন ও পুরস্কারের ছবি ভু’ক্তভোগীকে দেখান। এতে করে ভু’ক্তভোগী বিশ্বাস করতে থাকেন। এরপর অস্ট্রেলিয়ার ইমিগ্রেশনমন্ত্রী এলেক্স হাউকির সঙ্গে সুসম্পর্ক রয়েছে বলেও জানান রোজী। এরপর ধাপে ধাপে কাগজপত্র ও ভিসার কথা বলে টাকা নিতে থাকেন। ওই আইনজীবীও রোজীর ফাঁ’দে পড়ে স্ত্রী-স’ন্তানসহ পরিবারের

আট সদস্যসহ অস্ট্রেলিয়ায় যেতে চেয়েছিলেন তিনি। এজন্য রোজীর দেওয়া দু’টি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৫৫ লাখ ৩৭ হাজার ৬০০ টাকা দেন এ আইনজীবী। টাকা দেওয়ার পর কাগজপত্র ও ভিসা হাতে পেয়ে সেগুলো যাচাই-বাছাই করে দেখতে পান সবগুলোই ভুয়া এবং জাল। এ দিকে এই ঘটনাটি নিয়ে এখন বেশ আলোচনা হচ্ছে। এ নিয়ে কথা বলতে

গিয়ে অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হোসেন বলেন, ভু’ক্তভোগী আইনজীবী প্র’তারিত হয়েছেন বুঝতে পেরে গত ১ জুলাই রাজধানীর খিলগাঁও থানায় একটি মা’মলা দা’য়ের করেন। মা’মলাটি ত’দন্তের ধারাবাহিকতায় শনিবার বনশ্রী ও শাজাহানপুর এলাকায় অ’ভিযান চা’লিয়ে এ প্র’তারক চ’ক্রের দুই সদস্যকে গ্রে’ফতার করে সিআইডি।

Categories
Uncategorized

সুখবর: ভিসা ছাড়াই বাংলাদেশি নাগরিকরা ভ্রমণ করতে পারবেন যে ৪১ দেশ জেনে নিন কোন কোন দেশ

কেবল পাসপোর্ট থাকলেই বাংলাদেশের নাগরিকরা ঘুরে আসতে পারবেন ৪১টি দেশে। যেখানে লাগবে না কোনো ভিসা।

যদিও এর আগে ভিসা ছাড়া ৩৮ দেশে যেতে পারতেন। এখন সেটি বেড়ে ৪১ দেশ হয়েছে। তবে ২০২০ সালে কোনো
পরিবর্তন না আসায় ৪১ দেশেই যেতে পারবেন।

২০১৯ সালেও ৪১ দেশেই যাওয়ার ব্যবস্থা ছিল। বিশ্বের ১০৪টি দেশের ওপর প্রতি বছরই জরিপ চালিয়ে একটি মূল্যায়ন
সূচক তৈরি করে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা ‘দ্যা হ্যানলি

অ্যান্ড পার্টনার্স’। এই বছরও তার ব্যতিক্রম নয়। আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থার (আইএটিএ) ভ্রমণ তথ্যভাণ্ডারের সহযোগিতা
নিয়ে প্রতিবছরের মতো এ সূচক তৈরি করেছে তারা। এতে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান সম্পর্কে এ তথ্য তুলে
ধরা হয়েছে। দ্য হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স বলছে,

বাংলাদেশি পাসপোর্ট থাকলে বিশ্বের ৪১টি দেশে ভিসা ছাড়াই প্রবেশ করা যাবে। তাদের তালিকা নিচে দেয়া হলো।

Categories
Uncategorized

আমি খেটে খাওয়া লোক, এসির আরাম চাই না: মোহাম্মদ রফিক

বাংলাদেশের কিংবদন্তি স্পিনার মোহাম্মদ রফিক। তাকে দেখেই তরুণ খেলোয়াড়রা স্পিনার হওয়ার স্বপ্নে বিভোর হতো। সে কারণে এক সময়

বাংলাদেশের স্পিনারদের পাইপলাইন বেশ শক্ত ছিল। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে রফিক যেন দূরের বাতিঘর হয়ে গেলেন।গত ২০০৮ সালে অবসর নেওয়ার পর ক্রিকেটের সঙ্গে বিশেষ করে ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে তার দূরত্ব বাড়তে থাকে। এক সময়কার কিংবদন্তি এই স্পিনারকে বোর্ডও খুব

একটা ব্যবহার করেনি। রফিকের সঙ্গে যারা খেলেছেন, তারা এখন বোর্ডে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করছেন। বোর্ডে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েও তাকে ডাকা হয়নি। এই নিয়ে এক সাক্ষাৎকার দেন রফিক। সেখানে তিনি জানান, “আপনারা দেখেছেন, আমি অনেক জায়গায় সাক্ষাৎকার দিয়েছি, বোর্ড প্রেসিডেন্ট নিজেও বলেছেন

রফিককে আমরা খুব তাড়াতাড়ি নিচ্ছি। গর্ডন গ্রিনিজের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এই কথা বলেছিল। কিন্তু ২০০৮ সালে অবসর নিয়েছি, আজ ২০২০- ১২ বছর হয়ে গেল। এর আগেও আমি বলেছিলাম, যখন অবসর নেবো তারপরই আমি বোর্ডে কাজ করব। কিন্তু সেটা তো হচ্ছে না।” যদি বোর্ডে কাজ করার সুযোগ পেতেন, তাহলে মাঠ থেকে নতুন খেলোয়াড় তৈরি করতেন।

এসির রুমে বসে হুকুম দিতেন না। তিনি আরও বলেন, “আমি মনে করি, আমি খেটে খাওয়া লোক, আমাকে রোদে কাজ করার জন্য দায়িত্ব দেন। আমি চাই না ওই এসি রুমে বসে আরাম করা। কারণ আমি মাঠ পছন্দ করি, আমাকে মাঠের কাজে দেন।” রফিক বলেন, “যেটা নিয়ে আমি কাজ করব যে কাজে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা উঠে দাঁড়াবে,

বাংলাদেশের পতাকা তুলে ধরবে, যেখানে বাংলাদেশ ভালো নতুন খেলোয়াড় খুঁজে পাবে। আমি ওই এসির ভেতর বসে থেকে মানুষকে হুকুম দিতে চাই না। খেলোয়াড়দের শিখাতে চাই।” এদিকে ১৯৯৫ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় রফিকের। এরপর থেকে ১২৫ ওয়ানডে খেলে ১১৯১ রান এবং উইকেট শিকার করেছেন ১২৫টি।

এছাড়া ৩৩ টেস্টে ১০৫৯ রানের পাশাপাশি প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ১০০ উইকেট শিকার করেন তিনি।

Categories
Uncategorized

বাঁশ দিয়ে নির্মাণ হচ্ছে ফেরি ঘাটের রাস্তা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে মনতলা-সিতারামপুর ঘাটে ফেরি চলাচলের জন্য খনন কাজ চলছে। এরই প্রেক্ষিতে দুই পারে ফেরিঘাট নির্মাণের জন্য

রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। কিন্তু সেই রাস্তা তৈরি হচ্ছে বাঁশের ব্যবহার দিয়ে। এ নিয়ে স্থানীয় জনমনে চরম ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, জেলা সদরে যাতায়াতের জন্য স্থানীয় সাংসদ এবাদুল করিম বুলবুলের প্রচেষ্টায় মনতলা-সিতারামপুর ফেরি স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। কিন্তু

বাঁশ দিয়ে রাস্তা নির্মাণের ফলে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই ফেরি চলাচল ব্যাহত হবে বলে তারা আশঙ্কা করছেন। পথচারী তাজুল ইসলাম বলেন, এভাবে রাস্তা নির্মাণ করলে মাস দুয়েকের মধ্যেই ভেঙে যাবে। আমরা চাই কাজগুলো যেনো আরও ভালোভাবে হয়। আরেক পথচারী হাজী আবুল হোসেন বলেন, দুপাড়ের রাস্তা আরো উঁচু করতে হবে।

অন্যথায় টিকবে না। ইট -সিমেন্ট দিয়ে রাস্তাটি করলে এলাকাবাসী উপকৃত হবে। বিআইডব্লিউটি সহকারী প্রকৌশলী রবিউল আলম বলেন, নদীর পাড়ে আরসিসি ঢালাই করা যায় না, অথবা করাও সম্ভব না। সারাদেশে বিআইডব্লিউটি নদীর

পাড়ে যত ফেরিঘাট নির্মাণ করে তা বালি দিয়ে এভাবে করা হয়। মূলত নরম মাটিতে বাঁশ ব্যবহার করলে অতিরিক্ত চাপ নিতে পারে। অর্থাৎ রডের মত কাজ করে। এভাবেই সারাদেশে নদীর পাড়ের ফেরিঘাট এর কাজগুলো সম্পন্ন করা হয়। এ ব্যাপারে নবীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একরামুল

ছিদ্দিক বলেন, তদন্ত করে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। সূত্রঃ বিডি২৪লাইভ

Categories
Uncategorized

খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের ছাত্রীদের বাথরুম থেকে নবজাতক উদ্ধার

খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের ছাত্রীদের কমন রুমের সৌচাগার থেকে একটি নবজাতক উদ্ধার হয়েছে। সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে

১১টার দিকে কলেজের ছাত্রীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষ এ নবজাতককে উদ্ধার করে। নবজাতকের মা ঘটনার পর থেকে প;লা;ত;ক রয়েছে। খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রফিক উদ্দিন বলেন,

২০২১ শিক্ষাবর্ষের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট জমা নেওয়ার নির্ধারিত দিনে অনেক শিক্ষার্থী এসেছিল। ছাত্রীদের কমন রুমের টয়লেটে নবজাতকের কান্না শুনে শিক্ষার্থীরা খবর দিলে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এ ঘটনায় খাগড়াছড়ি সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি করার প্রস্তুতি চলছে। খাগড়াছড়ি শহর সমাজসেবা কেন্দ্রের পরিচালক নাজমুল আহসান জানান, কলেজের টয়লেটে নবজাতকের কান্না শুনে সদ্য ভূমিষ্ঠ শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে তাকে নবজাতক পরিচর্যা

কেন্দ্রে রাখা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে কোনো অভিভাবক চাইলে শিশুটিকে দত্তক নিতে পারবে।

Categories
Uncategorized

বিদেশগামীদের জন্য সুখবর, মন্ত্রিসভার নতুন নির্দেশ

বিদেশ যাওয়ার জন্য করোনার টেস্ট করার যে বাড়তি ভোগান্তি তা আর থাকছে না। এখন থেকে বিদেশগামী যাত্রীদের সুবিধার্থে দেশের

আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরগুলোতে পিসিআর টেস্টের ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আজ সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের

মাধ্যমে এ বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন। সচিব বলেন, ‘সিভিল অ্যাভিয়েশন বিমানবন্দরে পিসিআর টেস্টের ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকবে। বিমানবন্দরে স্থাপিত ল্যাবগুলো বিভিন্ন দেশের চাহিদা অনুযায়ী দুই

থেকে চার ঘণ্টার মধ্যে রিপোর্ট দেবে।’ মন্ত্রিসভার বৈঠকে সরকারি ঋণ আইন ২০২১-এর খসড়াও চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। এ ছাড়া বৈঠকে বিদ্যুৎ বিভাগ উত্থাপিত বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দ্রুত সরবরাহ বৃদ্ধি বিশেষ বিধান সংশোধন আইন ২০২১-এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, বিদেশগামী যাত্রীদের জন্য ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে আন্তর্জাতিক

বিমানবন্দরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্তের পরীক্ষার ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছিলেন সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ। প্রবাসীরাও সংক্রমণ শনাক্তের জন্য বিমানবন্দরে কোভিড পরীক্ষা করার দাবি করেছিলেন।

Categories
Uncategorized

বিআরটিএ ও পাসপোর্ট অফিসে র‍্যাবের অভিযান, ৫১ দালাল আটক

ঢাকার কেরানীগঞ্জের বিআরটিএ ও পাসপোর্ট অফিসে অভি’যান চালিয়ে ৫১ জন দালা’লকে আ’টক করেছে র‍্যাব। রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর)

দুপুরে র‍্যাব-১০ এর ভ্রাম্যমাণ আ’দালত এ অভিযান পরিচালনা করে। র‍্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক এনায়েত কবির সোয়েব গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, “বিআরটিএ অফিস থেকে ৩৬ জন এবং পাসপোর্ট অফিস থেকে ১৫ জন দালা’লকে আ’টক করা হয়েছে।”

তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান তিনি। এছাড়াও দালালদের বিরুদ্ধে র‍্যাব-৩ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল এলাকায় এবং র‍্যাব-২ এর ভ্রাম্যমাণ

আদালত আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে অভিযান পরিচালনা করছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অভিযান চলছে।