Categories
Uncategorized

ক্ষমতার দাপট দেখাবেন না, দল চিরদিন ক্ষমতায় থাকবে না: ওবায়দুল কাদের

দল চিরদিন ক্ষমতায় থাকবে না, তাই ক্ষমতার দাপট না দেখাতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক

ওবায়দুল কাদের। সোমবার (২৯ নভেম্বর) নবাবগঞ্জ পার্কে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ইউনিট সম্মেলনে যোগ দিয়ে নেতাকর্মীদের এ আহ্বান জানান তিনি। তিনি বলেন, ত্যাগী লোকদের বাদ দিয়ে পকেট মানি করে নিজেদের পকেটের লোক দিয়ে কমিটি করবে। এই পকেটের

লোক দিয়ে আওয়ামী লীগের খারাপ দিনে কোনো কাজে আসবে না। মনে রাখবেন চিরদিন ভালো সময় থাকবে না। আমরা চিরদিন ক্ষমতায় থাকবো না। ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়, তাই ক্ষমতার দাপট দেখাবেন না। আওয়ামী লীগই যদি আওয়ামী লীগের শত্রু হয় তবে বাইরের শত্রুর দরকার হবে না বলেও মনে করেন তিনি। অবশ্য ইউপি নির্বাচনে

বিদ্রোহী প্রার্থীদের নিয়ে হতাশা জানালেও ভোটার উপস্থিতি নিয়ে উচ্ছ্বসিত ছিলেন তিনি। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের উপস্থিতি এই আয়োজনের গুরুত্ব বাড়িয়ে দেয়। দলের সাংগঠনিক অবস্থা নিয়ে বলতে গিয়ে নেতাদের কোন্দল আর অনুপ্রবেশ নিয়ে সতর্ক করে দেন ওবায়দুল কাদের। ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীদের

নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন ওবায়দুল কাদের। তৃণমূলের মতামত আর যোগ্যতার ভিত্তিতে নেতা নির্বাচন করলে দল শক্তিশালী হবে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

Categories
Uncategorized

কক্সবাজারে বিমানের ধাক্কায় ২ গরুর মৃ;ত্যু, প্রাণে বাঁচলেন ৯৪ আরোহী

কক্সবাজার বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের সময় রানওয়েতে থাকা দুটি গরুর সঙ্গে বিমান বাংলাদেশের একটি বিমানের ডান পাখায় আ;ঘাত

লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই গরু দুটি মা;রা যায়। তবে বিমানে থাকা ৯৪ আরোহী অক্ষত আছেন। মঙ্গলবার বিকেল ৫টা ৫৭ মি‌নিটের দিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এক‌টি ফ্লাইট (BG-438) ৯৪ জন আরোহী নিয়ে কক্সবাজার থেকে ঢাকার উদ্দেশে উড্ডয়নের সময় এই দুর্ঘ;টনা ঘটে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কক্সবাজার বিমানবন্দরে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা একাধীক কর্মকর্তা এবং বেসরকারি এয়ারলাইন্সগুলোর কয়েকজন কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বিমানবন্দর সূত্র জানিয়েছে, বিমানটি ৭টা ৫ মিনিটে নিরাপদে ঢাকায় অবতরণ করেছে। তবে এ বিষয়ে বিমানবন্দর ম্যানেজারের সঙ্গে বেশ কয়েকবার

ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। আর বিমানবন্দরে গিয়ে যোগাযোগের চেষ্টা করলে সেখানেও দেখা করতে দেননি দায়িত্বরত নিরাপত্তারক্ষীরা। বিমানবন্দরের দায়িত্বরত আনসারের পিসি আলম বলেন, বিমানবন্দরের রানওয়েতে অবতরণ করা একটি বিমানের পাখায় গরু আহত হওয়ার খবর পেয়েছি। তবে আমি

বিমানবন্দরের বাইরে ছিলাম। গরু দুটির মালিককে এখনো জানা যায়নি। কক্সবাজার বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের

Categories
Uncategorized

আম্মাজানের র;;ক্তক্ষ;রণে বন্ধ হয়েছে, তবে উনি কথা বলতে পারছেন না- শর্মিলা রহমান

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) খালেদা জিয়াকে দেখে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যাবার সময় শর্মিলা সময় সংবাদকে এ কথা জানান।এদিন দুপুর দুইটা

থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত সিঁথি বেগম জিয়ার পাশে অবস্থান করেন।হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যাবার সময় শর্মিলা বলেন, ‘আম্মা স্টেইবল আছেন।’ র;;ক্তক্ষ;রণের বিষয়ে জানতে চাইলে সিঁথি বলেন, ‘উনি ভালো আছেন, তবে উনি কথা বলতে পারছেন না।’সিঁথি বেগম জিয়ার

সুস্থতা কামনায় দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন। তার হাসপাতালে অবস্থানকালে মেডিকেল বোর্ডের তিন সদস্য মেডিকেল বোর্ডের প্রধান সাহাবুদ্দীন তালুকদার, ডা এফ এম সিদ্দিকী ও ডা. এ বিএম জাহিদ হাসপাতালে আসেন। গত ১৩ নভেম্বর বেগম জিয়া এভার কেয়ারে ভর্তি হন। হাসপাতালে কয়েক দফা তার রক্তক্ষরণ হয়।

২৭ নভেম্বর মেডিকেল বোর্ড বেগম জিয়ার বাসভবন ফিরোজায় সংবাদ সম্মেলনে তার লিভার সিরোসিস সনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ৭৬ বছর বয়সী সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী বহু বছর ধরে আর্থ্রারাইটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, ফুসফুস, চোখের সমস্যাসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন। অসুস্থতার জন্য এর আগে টানা ২৬ দিন ওই হাসপাতালে চিকিৎসা

নেন খালেদা জিয়া। আরও পড়ুন: ‘কালবিলম্ব না করে সুচিকিৎসায় দ্রুত খালেদা জিয়াকে বাইরে নিতে হবে’ এর আগে এপ্রিলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন তিনি। পরে করোনা পরবর্তী জটিলতায় ২৭ এপ্রিল হাসপাতালে ভর্তি হন। সে সময় এক মাসের বেশি সময় হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি ছিলেন। শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে ১৯ জুন বাসায় ফেরেন।

পরে করোনার টিকা নিতে তিনি দু’দফায় মহাখালীর শেখ রাসেল ন্যাশনাল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে যান। গত ১২ অক্টোবর খালেদা জিয়ার শরীরে জ্বর দেখা দেয়। এরপর তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে গত ২৫ অক্টোবর শরীরের টিউমার ধরা পড়ায় খালেদা জিয়ার বায়োপসি করা হয়।

দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হলে খালেদা জিয়াকে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে পাঠানো হয়। করোনার কারণে গত বছরের ২৫ মার্চ সরকার শর্ত সাপেক্ষে তাকে সাময়িক মুক্তি দেয়। এখন পর্যন্ত চার বার খালেদা জিয়ার মুক্তির সময় বাড়ানো হয়েছে।

Categories
Uncategorized

ঘুরতে গিয়ে ট্রে’নে কা’টা পড়ে প্রা’ণ হা’রা’লেন স্কুলছাত্রী

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে প্রেমিকের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে নুসরাত জাহান তোয়া (১৩) নামে এক স্কুল ছাত্রীর ম;র্মা’ন্তিক

মৃ;ত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের উপজেলার দশকিয়া ইউনিয়নের ধলাটেঙ্গর এলাকা এ ঘটনা ঘটে। ওই স্কুলছাত্রী নাসির উদ্দিন ও শায়লা বেগম দম্পতির মেয়ে এবং এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী। তারা চট্টগ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা। এলেঙ্গা

শামসুল হক কলেজের সামনে একটি ভাড়া বাসায় দীর্ঘদিন যাবত তারা বসবাস করছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, স্কুলড্রেস পড়া একটি মেয়ে ও একটি ছেলে রিকশাযোগে ধলাটেঙ্গর রেলাইনের কাছে আসে। তারা রেল লাইনে বসে কথা বলছিল। মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে মেয়েটি রেলইনের স্লিপাড়ে বসে ও ছেলেটি পাশেই একটু নিঁচুতে দাঁড়িয়ে

তাদেরকে কথা বলতে দেখা যায়। সকাল ৯টা ১০ মিনিটের দিকে উত্তরবঙ্গগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঘটনাস্থলে এলে চালক হুইসেল বাজিয়ে ব্রেক কষার চেষ্টা করেও পারেনি। ছেলেটি লাফ দিয়ে সরে গিয়ে প্রাণে রক্ষা পেলেও মেয়েটি ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মা;রা যান। পরে মেয়েটিকে রেখে ছেলেটি দ্রুত পালিয়ে যান। স্কুলছাত্রী নুসরাতের মোবাইল

ফোনের ম্যাসেঞ্জারে দেখা যায়, সোহাগ আল হাসান জয় নামে একটি ছেলের সাথে মঙ্গলবার সকালে ফেসবুকের ম্যাসেঞ্জারে তাদের কথা হয়। তারা ধলাটেঙ্গর রেললাইনের পাশে দেখা করে কথা বলার জন্য বেড়িয়েছিলেন। নুসরাতের মা শায়লা বেগম জানান, সকালে বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার কথা বলে নির্ধারিত সময়ের একটু আগেই

বাসা থেকে বের হয় নুসরাত। বান্ধবীর বাসা থেকে তাকে নিয়ে একত্রে এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষা দিতে যাওয়ার কথা ছিল। এ জন্য তিনি ও তার ছোট মেয়ে নুসরাতকে কিছুটা পথ এগিয়েও দিয়ে আসেন। কিন্তু নুসরাত রেললাইনে কীভাবে গেল তিনি বুঝতে পারছেন না। এ বিষয়ে টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা রেলওয়ে ফাঁ;ড়ির ইনচার্জ এএসআই আব্দুস সবুর জানান,

সকাল ৯টা ১০ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা উত্তরবঙ্গগামী নীল সাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে নুসরাত জাহান তোয়া নামে এক স্কুলছাত্রী ঘটনাস্থলেই মা;রা যান। খবর পেয়ে লা;শ;টি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব রেলস্টেশন মাস্টার (ইনচার্জ) মাছুম খান জানান, ট্রেনে কাটা

পড়ে স্কুলছাত্রী নি;হ;তের বিষয়টি রেল পুলিশকে জানানো হয়েছে। তারা এসে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

Categories
Uncategorized

বিদেশে বেগম খালেদার চিকিৎসা: অনুমতির আভাস দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশে যেতে হলে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই যেতে

হবে। সোমবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এ কথা বলেন তিনি। এর আগে সেখানে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া প্রিজনার।

চাইলেই তিনি বিদেশ যেতে পারেন না। তবে তিনি চাইলে যে কোনো দেশ থেকে চিকিৎসক আনতে পারবেন। তার মেডিকেল রিপোর্ট বিদেশে পাঠানো হয়েছে। বৈঠকে বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে কোভিড পরিস্থিতি, এলডিসি থেকে উত্তরণ, রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এছাড়া বৈঠকে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়েও তাদের

সঙ্গে আলোচনা হয়। বিডি প্রতিদিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন

Categories
Uncategorized

আমার ছেলে-স্ত্রীর শপথ, আমি কিছু করি নাই: আদালতে ওসি প্রদীপ

চাঞ্চল্যকর মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হ;;ত্যা মামলায় বহিস্কৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে জড়িয়ে দেয়া অভিযোগপত্রকে

মনগড়া, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করে প্রদীপের আইনজীবী রানা দাশ গুপ্তের জেরার জবাবে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫ এর সাবেক সহকারি পুলিশ সুপার খায়রুল ইসলাম বলেন, ‘সঠিক তদন্ত করে এবং সাক্ষীদের সরাসরি বক্তব্যে মেজর সিনহা হ;;ত্যাকান্ডে

প্রদীপের সরাসরি সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে। প্রদীপ সম্পূর্ণ নিরাপরাধ, নির্দোষ হওয়া সত্বেও স্বার্থান্বেষি মহলের পারস্পারিক যোগসাজসে অভিযোগপত্রে আসামী প্রদীপকে জড়ানোর দাবি সত্য নয়। এ সময় কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে থাকা ওসি প্রদীপ কুমার দাশ কান্না শুরু করেন। প্রদীপ বিচারকের উদ্দেশ্যে কান্নারত অবস্থায় বলেন, ‘স্যার, আমার

ছেলের শপথ, আমার স্ত্রীর শপথ, আমি কিছুই করি নাই।’ এসময় আদালতের বিচারক ওসি প্রদীপকে বলেন, ‘আপনাকে আরও প্রশ্ন করব আপনি শান্ত হোন।’ আদালত সুত্র জানায়, আজ সোমবার (২৯ নভেম্বর) সকাল দশটার দিকে ৮ম ধাপে মামলার তদন্ত কর্মকর্তার অসমাপ্ত জেরা শুরু হয়। আসামী লিয়াকতের পক্ষে নিযুক্ত চট্টগ্রাম বারের সিনিয়র আইনজীবী

চন্দন দাশের অনুপস্থিতিতে অ্যাডভোকেট আরিফুল ইসলাম অসমাপ্ত জেরার জবাবে তদন্ত কর্মকর্তা খায়রুল ইসলাম বলেন, ‘আমি মেজর সিনহা হ;;ত্যাকা;ন্ডের ঘটনায় তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়ে পুরোদমে তদন্ত করেছি এবং তদন্তের মাঝখানে কোন বিরতি পড়েনি। মামলার সাক্ষীরা তদন্তকালে অনেক বক্তব্য দিয়েছেন। আমি তদন্তের স্বার্থে

আমার বিবেচনায় সংক্ষেপ করে লিপিবদ্ধ করেছি এবং আমার তদন্তের ধরণ এরকম।’ পরে অ্যাডভোকেট রানা দাশ গুপ্তের দীর্ঘ জেরার জবাবে তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে বলেন, সাক্ষী ছেনুয়ারা, হামজালাল, আলী আকবর, ছালেহ আহমদ ও বেবী বেগমেকে ওসি প্রদীপ বিভিন্ন মামলায় আসামী করেছেন। ওই সাক্ষীরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন এবং তাদের আত্মীয়স্বজন ক্রসফায়ারের

সম্মুখিত হয়েছেন- এমন দালিলিক প্রমাণ আছে। তদন্ত কর্মকর্তা আরও বলেন, প্রথমে টেকনাফ থানার তৎকালিন এসআই নন্দদুলাল র;ক্ষিত ভিকটিম সিনহার ক্যামেরা এবং মোবাইল জব্দ করেন এবং পরবর্তীতে এসআই সাব্বির ও ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মানস বড়ুয়ার মাধ্যমে জব্দকৃত আলামত আমার হাতে আসে। ঘটনার দুইসপ্তাহ পর আমি

হ;;ত্যাকা;ন্ডের তদন্তের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত হই এবং এ কারণে আমি ভিকটিমের ক্যামেরা ও মোবাইল ফরেনসিক পরীক্ষার প্রয়োজনীয়তাবোধ করিনি। সোমবার সকাল থেকে দুপুরের এক ঘন্টার বিরতি দিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত তদন্ত কর্মকর্তাকে জেরা করেন আসামী লিয়াকত ও প্রদীপের আইনজীবীগণ। পরে জেরা অসমাপ্ত রেখে আদালতের ওই বিষয়ে কার্যক্রম মুলতবি ঘোষণা

করেন মামলার বিচারক কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল। মামলাটির রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও কক্সবাজার আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফরিদুল আলম জানান, এ মামলায় এখন পর্যন্ত ৬৪ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ হয়েছে। এর আগে, সকাল সাড়ে ৯টায় ওসি প্রদীপসহ মামলার ১৫ আসামিকে কড়া নিরাপত্তায় আদালতে

নিয়ে আসা হয়। উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গু;;লিতে নি;হ;ত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। হ;;ত্যার পাঁচদিনের মাথায় ৫ আগস্ট সিনহার তাঁর বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়ে টেকনাফ

থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশসহ ৯ জনকে আসামি করে হ;;ত্যা মামলা দায়ের করেন। এ হ;;ত্যাকা;ন্ডের ঘটনায় চার মাসের বেশি সময় ধরে চলা তদন্ত শেষে গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর ৮৩ জন সাক্ষীসহ আলোচিত মামলাটির অভিযোগপত্র দাখিল করেন র‍্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খায়রুল ইসলাম।

১৫ জনকে আসামি করে দায়ের করা অভিযোগপত্রে সিনহা হ;;ত্যাকান্ডকে একটি ‘পরিকল্পিত ঘটনা’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

Categories
Uncategorized

সিলেটের আলোচিত লেডি বাইকার রিয়া এখন মা;দক রানী!

লেডি বাইকার রিয়া রায়। সমাজের গতানুগতিক বেড়া ভেঙ্গে নেমেছিলেন অন্যভাবে রাস্তায়। তার চলাফেরা ছড়িয়ে পড়েছিল নেট দুনিয়ায়।

গোয়ালের বাঁধা গরু যেভাবে ছাড়া পেলে দিকবিদিক হয়ে পড়ে, তেমনটিই ঘটেছে রিয়া রায়ের জীবনে। ঝলমল দুনিয়াই তাকে নিয়ন্ত্রন করেছে, পারেননি নিজকে সামলে রাখতে। নিজে কেবল দেহ মন রাখেননি মোটর বাইকে অন্যদের উৎসাহ দিতে শুরু করেছিলেন। কিন্তু তার ডাকে

অন্যরা আসতে না আসতে তিনি পা দিলেন নিষিদ্ধ মাদ;ক দুনিয়ায়। এখন তার পরিচিতি মা;দক রানী। আলোচিত এ লেডি বাইকার রিয়া রায় এখন মা;দক মামলায় পলাতক। আগাম জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছে তার আইনীবি। তার পক্ষে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন উচ্চ আদালতে শুনানি করবেন। আজ মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর)

ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বলেন, হাইকোর্টের একটি ফৌজদারি বেঞ্চে লেডি বাইকার রিয়া রায়ের জামিন আবেদন করেছি। তার পক্ষে নিজেই শুনানি করব আমি। স্মার্ট ও সুদর্শনা এ তরুণীর অস্বাভাবিক চলাফেরায় সর্তক চোখ ছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। সেকারনে মা;দকের নেটওয়ার্কে জড়িয়ে পড়ার খবর পৌছে আইনশৃংখলা

বাহিনীর নজরে। সিলেটের রাস্তায় নিয়ন্ত্রণহীন অবস্থায় চালাতেন মোটরসাইকেল। এছাড়া বিমানবন্দর সড়কে দিন-রাত যেকোন সময় যাতায়াত ছিলো তার। যার কারণে উঠতি বয়সী তরুণ ছাড়াও অনেকের নজর কাড়েন রিয়া। সেই রিয়া এখন পলাতক। তার কাঁধে মা;দকের মামলা। পুলিশ হন্যে হয়ে খুঁজলেও পাচ্ছে না তাকে। তবে রিয়ার বয়ফ্রেন্ড ছামি মা;দকের

মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারান্তরীণ রয়েছে। রিয়ার মা;দক জগতের ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর তার কর্মকান্ড নিয়ে তোলপাড় চলছে। তাকে নিয়ে নানা জল্পনা হচ্ছে নগরীর কুমারপাড়া ঝরনার পাড় এলাকায়ও। পুলিশের তথ্যমতে, চলতি মাসের ৭ নভেম্বর সিলেট নগরীর এয়ারপোর্ট এলাকা থেকে মা;দকসহ গ্রেফতার হন রিয়ার প্রেমিক।

ওই ঘটনায় আরমান সামীকে প্রধান আসামি করে রিয়াসহ দুই জনের বিরুদ্ধে মা;দক দ্রব্য আইনে মামলা করে সিলেট বিমানবন্দর থানা পুলিশ।
মামলার এজাহারে বলা হয়, ৫০০ গ্রাম মদ, ১০ পিস ইয়াবা ও দুই প্যাকেট গাঁ;জাসহ গ্রেফতার করার পর প্রেমিক সামী জানায় তার সঙ্গে লেডি বাইকার রিয়াও ছিল। কৌশলে সে পালিয়ে গেছে। সামীর মা-বাবা বলেন,

টিকটকে একসঙ্গে ভিডিও তৈরি করত সামী ও রিয়া। সেখান থেকেই বন্ধুত্ব, তারপর প্রেম। তবে রিয়া হিন্দু ধর্মের এজন্য সামীকে প্রেমের সম্পর্ক ভেঙে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিল পরিবার। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তা পলাশ চন্দ্র দাশ জানান, রিয়াকে গ্রেফতার করার জন্য পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে।

বর্তমানে জেলে আছেন রিয়ার প্রেমিক আরমান সামী। প্রেমিক আরমান সামীর মা-বাবার দাবি, লেডি বাইকার রিয়া প্রেমের ফাঁদে ফেলে মা;দক দিয়ে গ্রেফতার করিয়েছে তাদের ছেলেকে। অপরদিকে রিয়ার পরিবারের অভিযোগ, মিথ্যা প্রেমের সম্পর্ক তৈরি করে ফাঁসানো হয়েছে তাদের মেয়েকে। পুলিশ বলছে, মামলার তদন্ত শেষ হলে জানা যাবে বিস্তারিত। রিয়া রায় নিজেকে

সিলেটের ফার্স্ট লেডি বাইকার হিসেবে দাবি করেন। মাথায় হেলমেট, চোখে রঙিন চশমা পরে বিলাসবহুল মোটরসাইকেল নিয়ে সিলেট নগরীর অলিগলিসহ রাজপথে দেখা মিলত তার। এছাড়া ফেসবুক, ইউটিউব, টিকটক, ইনস্টাগ্রামে রিয়ার জনপ্রিয়তা রয়েছে। এজন্য খুব অল্প সময়ের ব্যবধানে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক পরিচিতি পান রিয়া। কিন্তু দামী বাইক, বেপরোয়া জীবনের পেছেন কার হাত রয়েছে তাও অনুসন্ধানের দাবী অনেকের।

Categories
Uncategorized

৮০ হাজার স্পন্সর ভিসা দিচ্ছে ইতালি, সুযোগ পাচ্ছেন বাংলাদেশিরা

২০২২ সালের জন্যে ৮০ হাজার নতুন স্পন্সরশীপ ভিসা চালু করতে যাচ্ছে ইতালি। গতবছর বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ৩০,১৫০ জন নতুন স্পন্সরশীপ

ভিসা দেয় ইতালি। কিন্তু এবছর তা বৃদ্ধি পাচ্ছে ৮০ হাজারে। আবারও ২০২২ সালের জন্য স্পন্সরশীপ ভিসা গেজেট প্রকাশের দ্বারপ্রান্তে ইতালীয় সরকার। ইতালির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুসিয়ানা লামরগেসে জানান গতবছর ইতালিতে স্থায়ী ও অস্থায়ী ক্যাটাগরিতে ৩০,৮৫০ জন শ্রমিকের জন্য

স্পন্সরশীপ ভিসা দেওয়া হলেও এ বছর তা বৃদ্ধি করে ৮০ হাজারে উন্নত করা হবে। এবারের ভিসায় কৃষি ও উৎপাদন খাত, পর্যটন ও হোটেল, সড়ক পরিবহন সেক্টর (লরী চালক) ও নির্মাণ শ্রমিক (রাজ মিস্ত্রী) এইসকল খাতগুলো সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পাবে ইতালিতে প্রবেশের জন্য।
সোমবার (২৯ নভেম্বর) ইতালিতে প্রকাশিত কয়েকটি

গণমাধ্যমে এ বিষয়ে প্রাথমিক তথ্য তুলে ধরেন ইতালি সরকারের কিছু মন্ত্রী ও দপ্তর। প্রাথমিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যে সকল দেশগুলোর নাম সুনির্দিষ্ট করে উল্লেখ করা হয়,সেখানে বাংলাদেশও রয়েছে।এতে আশা করা যায়,ইতালি প্রবেশে এবছর গতবারের তুলনায় প্রায় তিনগুণ বেশি বাংলাদেশি সুযোগ পাবে। এবারের প্রাথমিক তালিকা অনুযায়ী দেশগুলো হচ্ছে, আলবেনিয়া,

আলজেরিয়া, বাংলাদেশ, আইভরি কোস্ট, মিশর, সালভাদর, বসনিয়া- হার্জেগোভিনা, কোরিয়া, তিউনিসিয়া আরো কিছু দেশের নাম থাকবে চূড়ান্ত তালিকায়। আরও পড়ুনঃ বাংলাদেশ-থেকে-জনশক্তি-নিতে-চায়-গ্রিস ইতালি সরকারের শ্রমমন্ত্রী আন্দ্রেয়া ওর্লান্দো বলেন, ইতালিতে অবৈধ প্রবেশ বন্ধ করার জন্য এবার বৈধভাবে প্রবেশের কোটা

বৃদ্ধি করা হয়েছে।এদিকে ইতালির বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা বলেন, এবছর ইতালিতে প্রায় ৬৩ হাজার অবৈধ অনুপ্রবেশকারী প্রবেশ করেছে। বৈধভাবে প্রবেশের সুযোগ দেওয়া হলে, অবৈধদের ফেরত পাঠানো উচিত বলে জানান তারা। তবে সরকার এসব বিষয়ে সম্পূর্ণ অবগত আছেন বলে নিশ্চিত করেন ইতালির শ্রম মন্ত্রী ওর্লান্দো।এদিকে আগামী

সপ্তাহের মধ্যে স্পন্সরশীপ ভিসা চূড়ান্ত গেজেট প্রকাশ হবে বলে জানা গেছে। এদিকে ইতালিতে স্পন্সরশীপ ভিসা প্রথম আবেদন জমা করার জন্য, নাম মাত্র টাকা খরচ হয়। পরবর্তীতে স্পন্সরশীপ ভিসা নিশ্চিত হওয়ার পর,বিভিন্ন ক্ষেত্রে কিছু খরচ লাগবে। অনলাইনে বাংলাদেশিরা কোটার চেয়ে ৩০ বা ৪০ গুণ বেশি আবেদন করেন। এক্ষেত্রে দালাল চক্র থেকে নিজেকে

মুক্ত রেখে চলার জন্য সবাইকে আহ্বান জানান, ইতালি প্রবাসী কমিউনিটি ব্যক্তিরা। এদিকে আগামী সপ্তাহের মধ্যে স্পন্সরশীপ ভিসা চূড়ান্ত গেজেট প্রকাশ হবে বলে জানা গেছে।

Categories
Uncategorized

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে ডাক্তাররা যা বলেছেন তা বিএনপির শেখানো বক্তব্য: তথ্যমন্ত্রী

সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে ক্যাবল অপারেটরদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন, এ ডাক্তাররা সবাই বিএনপির

রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তিনি বলেন, অনেকে ড্যাবের কেন্দ্রীয় নেতা, তারা বলেছেন যুক্তরাজ্য, জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্রে বেগম জিয়ার চিকিৎসার ব্যবস্থা রয়েছে। এমনি সিঙ্গাপুর বা ব্যাংককেও নেই, অথচ ইউরোপ-আমেরিকার অনেকে সিঙ্গাপুর ও ব্যাংককে চিকিৎসা নিতে আসে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, তারা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যের কথা বলেছেন কারণ তারেক রহমান সেখানে আছেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে না দিলে বিশৃঙ্খলা হবে, মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্যই প্রমাণ করে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির

পরিকল্পনা করছে বিএনপি। এজন্য মির্জা ফখরুলের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা হতে পারে বলেও জানান তিনি।

Categories
Uncategorized

মহান আল্লাহ আমাদের খাবারের ব্যবস্থা করবেন: আফগান প্রধানমন্ত্রী

আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী ও তালেবানের রাহবারি শুরার প্রধান মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ বলেছেন, তালেবান সব দেশের

সাথেই সুসম্পর্ক চায় এবং তাদের সাথে অর্থনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চায়। তালেবান ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তানে বেকারত্বের হার ও দ্রব্যমূল্যের দাম বেড়ে যাওয়া নিয়ে নানা ধরনের গুজব ছড়ানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মোল্লা মোহাম্মদ হাসান

আখুন্দ। এগুলো অজ্ঞ লোকের কাজ মন্তব্য করে তিনি বলেছেন, দেশটির বর্তমান পরিস্থিতির জন্য আগের সরকারই দায়ী। আফগান প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বগ্রহণের পর প্রথমবারের মতো জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে হাসান আখুন্দ উল্টো প্রশ্ন ছুড়ে বলেন, তালেবান ক্ষমতা দখলের পরেই কি আফগানিস্তান সংকটে পড়েছে নাকি

এগুলো আগে থেকেই ছিল? তিনি বলেন, আফগান ইসলামিক আমিরাত কাউকে রিজিকের প্রতিশ্রুতি দেয়নি, আল্লাহই সবার জন্য খাবারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। আসুন, আমরা তার কাছে প্রার্থনা করি। তিনিই আমাদের সমস্যার সমাধান করবেন। তালেবানের এ নেতা দাবি করেন, আফগানিস্তানে ক্রমবর্ধমান বেকারত্ব ও অর্থনৈতিক সংকট মার্কিন-সমর্থিত

সরকার থাকার সময়েই ছিল। এগুলো তালেবান ক্ষমতা দখলের কারণে তৈরি এমন কথায় আফগানদের প্রভাবিত না হতে অনুরোধ করেন তিনি।