Categories
Uncategorized

গরীব ঘরের ছেলে থেকে যেভাবে হলেন বিশ্বসেরা, মুস্তাফিজুরের জীবন কাহিনী

রেহা মিলনি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি করার পরপরই যাতে বাইরে খেলাধুলা করতে যেতে না পারেন, এ জন্য বাড়িতে দেওয়া হলো

চারজন প্রাইভেট শিক্ষক।কিন্তু তাতেও কাজ হয়নি। সবাইকে ফাঁকি দিয়ে মনের টানে স্কুল পালিয়ে চলে যেতেন ক্রিকেট মাঠে।সেই ছেলেটিই বাংলাদেশের ক্রিকেটের বিস্ময় বালক মুস্তাফিজুর রহমান। ২০১৫ সালের ১৮ জুন ভারতের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে নিজের অভিষেকেই ৫

উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের বিজয় নিশ্চিত করেন, হন ম্যান অব দ্য ম্যাচ। দ্বিতীয় দিনে মুস্তাফিজের লেখাপড়ার ব্যাপারে বেশ সাবধান ছিলেন বাবা ব্যবসায়ী আবুল কাশেম। তিনি চাইতেন ছেলে ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার হবে। কিন্তু সেই বাবা আজ আবেগ জড়িত কণ্ঠে জানালেন, ‘আমার ছেলে এখন আর আমার নাই, ও এখন ১৬ কোটি মানুষের সন্তান।

ওর ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার হওয়া লাগবে না, ও ক্রিকেটই খেলুক।’ সাতক্ষীরা থেকে ৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণে কালীগঞ্জ উপজেলার তারালি ইউনিয়নের তেঁতুলিয়া গ্রামে মুস্তাফিজের বাড়ি। মুস্তাফিজের জন্ম ১৯৯৫ সালে সেপ্টেম্বরে। চার ভাই ও দুই বোনের মধ্যে সবার ছোট তিনি। পরিবারের সব প্রতিকূলতার মধ্যে মুস্তাফিজের পাশে

এসে দাঁড়ান তাঁর সেজো ভাই মোখলেছুর রহমান। তিনিই নিজ হাতে গড়ে তুলেছেন আজকের মুস্তাফিজকে। স্কুল পালানো মুস্তাফিজ এখন বাংলাদেশের গর্ব এই প্রতিবেদককে মোখলেছুর রহমান জানান মুস্তাফিজের ক্রিকেটার হয়ে ওঠার গল্প। তিনি ও মেজো ভাই জাকির হোসেন গ্রামে টেনিস বলে ক্রিকেট খেলতেন।

১০-১২ বছর বয়স থেকে মুস্তাফিজও তাঁদের সঙ্গী হন। গ্রামের তেঁতুলিয়া মাঠের এক খেলায় তাঁরা তিন ভাই-ই খেলছিলেন। তখন মুস্তাফিজ ব্যাটিং করতে ভালো বাসতেন। প্রতিপক্ষের একজন ব্যাটসম্যানকে কিছুতেই আউট করা যাচ্ছে না। মুস্তাফিজের হাতে তিনি তুলে দিলেন বল। প্রথম বলেই মুস্তাফিজ প্রতিপক্ষের সেই অপ্রতিরোধ্য ব্যাটসম্যানকে আউট করেন।

তারপর বোলার হওয়ার দিকে ঝুঁকে পড়েন। মোখলেছুর রহমান: মুস্তাফিজের সেজভাইমোখলেছুর রহমান প্রতিদিন ভোর রাতে তেঁতুলিয়া থেকে ৪৫ কিলোমিটার দুরে মোটরসাইকেলে করে সাতক্ষীরা নিয়ে আসতেন প্রশিক্ষণের জন্য। অনূর্ধ্ব-১৪ হয়ে অনূর্ধ্ব-১৭ দলে খেলে ধারাবাহিকভাবে সফল হয়েছেন মুস্তাফিজ। এরপর এলেন ঢাকার শেরেবাংলা

স্টেডিয়ামে ফাস্ট বোলিং ক্যাম্পে ট্রায়াল দিতে। সেখানে এসে কোচদের নজর কাড়েন। এরপর অনূর্ধ্ব-১৯ খেলেছেন নিয়মিত। মোখলেছুর বলেন, ‘আমার বন্ধু মিলনের পরামর্শে সাতক্ষীরা গণমুখী ক্লাবের ক্রিকেট কোচ আলতাফ ভাইয়ের কাছে নিয়ে যাওয়া হলো। আলতাফ ভাইয়ের পরামর্শে মুস্তাফিজ সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে অনূর্ধ্ব-১৪ প্রাথমিক বাছাই উত্তীর্ণ হয়।

তারপর সাতক্ষীরায় ক্রিকেট একাডেমির মুফসসিনুল ইসলামের কাছে প্রশিক্ষণ নেওয়া শুরু হয়।’ মোখলেছুর রহমান প্রতিদিন ভোর রাতে তেঁতুলিয়া থেকে ৪৫ কিলোমিটার দুরে মোটরসাইকেলে করে সাতক্ষীরা নিয়ে আসতেন প্রশিক্ষণের জন্য। অনূর্ধ্ব-১৪ হয়ে অনূর্ধ্ব-১৭ দলে খেলে ধারাবাহিকভাবে সফল হয়েছেন মুস্তাফিজ।

এরপর এলেন ঢাকার শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ফাস্ট বোলিং ক্যাম্পে ট্রায়াল দিতে। সেখানে এসে কোচদের নজর কাড়েন। এরপর অনূর্ধ্ব-১৯ খেলেছেন নিয়মিত। বাংলাদেশ দলে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে সবাই চেনে ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ নামে। অভিষেকেই আলো ছড়ানো ক্রিকেটের নতুন বিস্ময় মুস্তাফিজকে কি তবে

ডাকা যায় ‘সাতক্ষীরা এক্সপ্রেস’! স্টেডিয়ামে ফাস্ট বোলিং ক্যাম্পে ট্রায়াল দিতে। সেখানে এসে কোচদের

Categories
Uncategorized

সড়কপথে থাইল্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত হবে সিলেট: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ডের মধ্যে বাণিজ্য সম্পর্ক প্রতি বছর পার হওয়ার সাথে সাথে বিশেষত পণ্য সম্পর্কের ক্ষেত্রে আরও ভাল হয়। বাংলাদেশের

সঙ্গে সড়কপথে থাইল্যান্ডকে যুক্ত করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) তিনি বলেন, ‘সিলেটের তামাবিল থেকে ভারত-মিয়ানমার হয়ে থাইল্যান্ডে যাবে সড়ক যোগাযোগ। এতে ভারত সম্মত হয়েছে। অন্য দেশের সঙ্গেও বিষয়টি

নিয়ে আলোচনা চলছে।’ উদ্যোগটি বাস্তবায়ন হলে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এটি হাব হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন মন্ত্রী। সিলেট নগরের রেজিস্ট্রারি মাঠে সিলেট সিটি করপোরেশনের আয়োজনে তাকে দেয়া নাগরিক সংবর্ধনায় বিকেলে তিনি এ কথা বলেন।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

সিলেটের প্রতি খুব সদয়। উন্নয়নে বরাদ্দ দিতে তিনি দ্বিধা করেন না। না চাইতেও প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে অনেক কিছু পাচ্ছে সিলেটবাসী। নগরীর উন্নয়নে ১ হাজার ২২৮ কোটি টাকা দিয়েছে সরকার। ‘যোগাযোগব্যবস্থা-রাস্তাঘাট উন্নত হচ্ছে, অত্যাধুনিক হচ্ছে বিমানবন্দর। বৃহত্তর সিলেটের প্রতিটি কলেজে বিশেষ অনুদান দেয়া হয়েছে।

সব মিলিয়ে মডেল জেলা গড়ে তোলা হচ্ছে।’ সঙ্গে সড়কপথে থাইল্যান্ডকে যুক্ত করার চেষ্টা চলছে বলে

Categories
Uncategorized

৩০ দিনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশের রিজার্ভ সরিয়ে নিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে আইনি নোটিশ

এবার বাংলাদেশের বৈদেশিক রিজার্ভ যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে নিরাপদ কোনো দেশে সরিয়ে নিতে অর্থ, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও

বাংলাদেশ ব্যাংকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। গতকাল সোমবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. মাহমুদুল হাসান অর্থ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে এ নোটিশ পাঠান। সেই নোটিশে বলা হয়, বর্তমানে বাংলাদেশ ভূ-রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত

গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। যার দরুন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ভাবে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। বর্তমানে র‍্যাবের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশবিশেষ। বিভিন্ন দেশকে চাপে রাখার জন্য তাদের অর্থ বাজেয়াপ্ত করা যুক্তরাষ্ট্রের নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ। এতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের

উল্লেখযোগ্য অংশ যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে সংরক্ষণ করা হয়। ভবিষ্যতে সংরক্ষিত রিজার্ভ বাজেয়াপ্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এরূপ হলে বাংলাদেশের অর্থনীতি ধ্বংস হয়ে যাবে এবং জনগণকে অবর্ণনীয় কষ্টের সম্মুখীন হতে হবে। তাই বাংলাদেশ ফরেন রিজার্ভ রক্ষার জন্য ন্যূনতম কিছু রিজার্ভ যুক্তরাষ্ট্রে রেখে বাকি অর্থ

বিভিন্ন নিরাপদ দেশে সংরক্ষণ করতে হবে এবং স্বর্ণ আকারে রাখতে হবে। এ ছাড়া যেসব দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য বেশি সেসব দেশের স্থানীয় মুদ্রায় লেনদেন করতে হবে। তাছাড়া নোটিশে ৩০ দিনের মধ্যে বাংলাদেশের বৈদেশিক রিজার্ভ রক্ষায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় হাইকোর্টে রিট

করা হবে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। যার দরুন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক

Categories
Uncategorized

ইলিয়াস আমাকে ভোগ করতেই বিয়ে করেছিল, আল্লাহ তোমাকে ছাড়বে না : সুবাহ

আলোচিত মডেল ও অভিনেত্রী সুবাহ শাহ হুমায়রা বলেছেন, গায়ক ইলিয়াস তাকে ভোগ করার জন্যই বিয়ে করেছিলেন ইলিয়াস আমাকে ভোগ

করতেই বিয়ে করেছিল: সুবাহ বিনোদন ডেস্ক বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক পোস্টে এ কথা বলেন তিনি।
পোস্টে তিনি বলেন, আমি সরল মনে ওকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলাম সংসার করার জন্য। বাচ্চা নেওয়ার জন্য। আর ও আমাকে বিয়ে

করেছিল আমার শরীরকে ভোগ করার জন্য এবং টাকার জন্য। ওই পোস্টে সুবাহ আরও লেখেন, ও যখন আমাকে বিয়ে করেছে বিয়ের মধ্যে আমাকে শাড়ি, গয়না কোনো কিছু ইভেন্ট বিয়ের কোনো খরচও করেনি। সে বিয়ের পর আমার কাছে অনেক কিছুই চেয়েছিল তিনি আরও লেখেন, আমার মা ওকে ২৫ হাজার টাকা দামের

একটা ঘড়ি গিফট করেছে। ডায়মন্ডের সোনার দুইটা আংটি, হোয়াইট গোল্ডের চেইন আমি দিয়েছি। জুতা-স্যান্ডেল বিয়ের শেরওয়ানি পাঞ্জাবি এভরিথিং আমরা দিয়েছি সামর্থ্য অনুযায়ী। আমার ভাই ওকে রোলেক্স এর প্রায় ১২ থেকে ১৩ লাখ টাকা দামের একটা ঘড়ি পর্যন্ত কিনে দিয়েছে। এছাড়াও আমার আম্মু ইলিয়াসকে বলেছিল তোমার আর যা

ডিমান্ড আছে আমরা দেবো। সুবার বাবা বেঁচে নেই তাই গাড়ি ফ্ল্যাট কিনে দিতে লেট হবে বাবা। এই অভিনেত্রী লেখেন, ‘আল্লাহর কাছে এবং আপনাদের সবার কাছে আমি ওই বেইমান, চরিত্রহীন, মিথ্যাবাদীর নামে বিচার দিয়ে রাখলাম।’ এদিকে এদিন (বুধবার) আরও বেশ কয়েকটি পোস্ট দেন সুবাহ। একটি পোস্টে তিনি লেখেন, ‘ইয়িলাস হোসেন আমার

নামে গতকাল (মঙ্গলবার) থানায় জিডি করেছেন আমি নাকি তাকে ফাঁসিয়ে বিয়ে করেছি। আল্লাহ ছাড়বে না তোমাকে ইলিয়াস।’ আরেক পোস্টে সুবাহ লেখেন, ‘যদি বলো ফাঁসিয়ে ছিলাম তবে বলবো হ্যাঁ, ফাঁসিয়ে ছিলাম শুধু তোমাকে পাওয়ার জন্য, তোমার ভালোবাসা পাওয়ার জন্য, তোমার সাথে সংসার করার জন্য। তোমার তো টাকা

নাই যে টাকা দেখে ফাঁসাবো। বিচার করবেন আল্লাহ।’ আরেক পোস্টে সুবাহ দাবি করেন, ‘বিয়ের মাত্র এক মাসও হয় নাই অথচ দেখেন আমার হাতের অবস্থা কি করে দিসে সিঙ্গার ইলিয়াস। আর সবাইকে বলে আমি নাকি তাকে মারছি। আল্লাহ তো দেখছে। আমার চাচাতো ভাইয়ের সামনে ও আমাকে ধরে মারছে। এইজন্য সেদিন লাইভে আসছিলাম।

ও শুধু বিয়েটা করেছিল আমার শরীর ভোগ করার জন্য আর আমাকে অত্যাচার করে হয়তোবা টাকা-পয়সার জন্য হয়তো সে নিজেই এখন হাত-পা কেটে আমাকে ফাঁসানোর জন্য অনেক নাটক সাজাতেও বাকি রাখবে না। কারণ আমি তাকে খুব ভালো করেই চিনি। এটা তার কাছে একটা ব্যবসা।’ সম্প্রতি আলোচিত মডেল ও অভিনেত্রী

সুবাহ শাহ হুমায়রাকে বিয়ে করেছেন গায়ক ইলিয়াস হোসেন। কিন্তু বিয়ের পরপরই ইলিয়াসের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে ডিভোর্স না দিয়েই সুবাহকে বিয়ে করেছেন তিনি। এ বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও জানিয়েছেন ইলিয়াসের দ্বিতীয় স্ত্রী। জানা গেছে, কারিন নাজ সুইডেনের স্টোকহোমে থাকেন। বাংলাদেশে বেশ কয়েকটি

মিউজিক ভিডিওতে মডেল হয়েছেন তিনি। কারিনকে বিয়ের আগে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী এক বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে বিয়ে করেছিলেন ইলিয়াস। সেই সংসার বেশিদিন দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। এখন পর্যন্ত সুবাহ অভিনয় করেছেন ৬টি সিনেমায়। তবে মুক্তি পায়নি একটিও। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে শিগগিরই মুক্তি পাবে ‘বসন্ত বিকেল’ সিনেমাটি। ২০১৯ সালে এ সিনেমার মাধ্যমে নায়িকার খাতায় নাম লেখান সুবাহ।

ক্রিকেটার নাসিরের সাবেক প্রেমিকা মডেল ও অভিনেত্রী সুবাহ শাহ হুমায়রার সঙ্গে ইলিয়াসের প্রেমের গুঞ্জন শোনা যায়। কিন্তু সেটা নিশ্চিত না করে ইলিয়াস বলেছিলেন, আমরা ভালো বন্ধু।

সুবাহ বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) নিজেদের গায়েহলুদের ছবি প্রকাশ করেছেন। সংবাদমাধ্যমকে সুবাহ গায়েহলুদের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমাদের গায়েহলুদ হয়েছে।’ তবে কবে হয়েছে জানাননি। বিয়ে কবে হয়েছে- এ প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে যান তিনি।

তবে সুবাহ ও ইলিয়াস কিছুদিন আগে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন বলে জানা গেছে। এ সময় কাছের কয়েকজন মানুষ ছিলেন।

Categories
Uncategorized

শামীম ওসমান আমার বড় ভাই: আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বিএনপি চেয়ারপারসনের

উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকারকে কারণ দর্শানোর চিঠি (শোকজ) দিয়েছে ইসি। আনুষ্ঠানিকভাবে নৌকা প্রতীক পাওয়ার পর সরকারদলীয় মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াত আইভী বলেছেন, আমরা বরাবরের মতো এবারো জয়যুক্ত হব আশা করছি। সর্বশেষ ২০১৬ সালেও

আমি নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়ী হয়েছিলাম। বিগত দিনে আমি মানুষের কল্যাণে কাজ করেছি। আমি আশা করি এবারো জনগণ আমার সঙ্গে থাকবেন। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার পর এ নির্বাচনে শামীম ওসমানের অবস্থান প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উনি আমার বড়ভাই,

উনি একজন এমপি। এমপি হওয়ার কারণে উনি প্রচারণায় আসতে পারবেন না। যেহেতু উনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মী, শেখ হাসিনার কর্মী সেহেতু উনি নৌকার বাইরে যাবেন না। উনিও কিন্তু নৌকা প্রতীক নিয়েই নির্বাচন করেন। মান-অভিমান, দলের মধ্যে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকতেই পারে কিন্তু সবাইকে

আহ্বান জানাব- একসঙ্গে নৌকার জন্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করি।

Categories
Uncategorized

আমেরিকার নিষেধাজ্ঞা নিয়ে অবশেষে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বিশ্বের বুকে সর্ব ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আজ বিস্ময়। আর বিস্ময়ের সূচনা জাতির পিতার হাত ধরে এগিয়ে যাওয়া শেখ হাসিনার মাধ্যমে। বঙ্গবন্ধুর

‘সোনার বাংলা’ নির্মাণে বাংলাদেশকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ মঙ্গলবার বিকেলে সুপ্রিম কোর্ট প্রকাশিত ‘বঙ্গবন্ধু ও বিচার বিভাগ ও ‘বঙ্গবন্ধু অ্যান্ড জুডিসিয়ারি’ শীর্ষক বাংলা ও ইংরেজিতে মুজিব স্মারক গ্রস্থ এবং ‘ন্যায়কণ্ঠ’ শীর্ষক মুজিববর্ষের

স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকলের প্রতি সুবিচার নিশ্চিত করতে বিচারকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ন্যায় বিচার মানুষের প্রাপ্য। সেটা যেন সব সময় পায় সেটা আমরা চাই। কারণ আমরা ভুক্তভোগী। তাই আমরা জানি বিচার না পাওয়ার কষ্টটা কি। সরকার এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সকল সুবিধা নিশ্চিত করবে।

তিনি বলেন, আমরা যারা ১৫ই অগাস্টে সব হারিয়েছিলাম, আমার মতো বাবা মা হারিয়ে যেন কাউকে বিচারের জন্য চোখের পানি ফেলতে না হয়। সেটাই আমরা চাই। সেটা আপনারা নিশ্চিত করে দেবেন। আর আমি যতক্ষণ সরকারে আছি এর জন্য যা যা দরকার আমরা করব। শোষিত বঞ্চিত মানুষের অধিকার আদায়ে জাতির আজীবন সংগ্রামের কথা তুলে

ধরার পাশপাশি ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্টের বিয়োগান্তক অধ্যায় তুলে ধরে দীর্ঘদিন বিচার না পাবার জন্য আক্ষেপ প্রকাশ করেন জাতির পিতার কন্যা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আসলে বহু বছর বিচার না পেয়ে মনে অনেক দুঃখ ছিল। যা হোক, এই হ;;ত্যার বিচার পেয়েছি। এটাই হচ্ছে সব থেকে বড় কথা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু

শেখ মুজিবুর রহমানের হ;;ত্যার রায় কার্যকর হওয়ায় বিচার বিভাগ, দল ও দেশবাসীর প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি। শেখ হাসিনা বলেন, সবচেয়ে বড় কথা যুক্তরাষ্ট্রের মতো জায়গা, তারা সবসময় ন্যায় বিচারের কথা বলে, গণতন্ত্রের কথা বলে, ভোটাধিকারের কথা বলে, তারা মানবাধিকারের কথা বলে, কিন্তু

আমাদের যে মানবাধিকার লঙ্ঘন হয়েছিল, আমরা যে ন্যায়বিচার পাইনি, তারপর যখন বঙ্গবন্ধু হ;;ত্যার বিচার হলো, তখন খুনিদের আশ্রয় দিয়ে বসে আছে। তিনি বলেন, নূরকে আশ্রয় দিয়ে রেখেছে কানাডা, আর খু;;নি রাশেদ এখনও আমেরিকায়। তাদের কাছ থেকে আমাদের আইনের শাসনের সবকও

শুনতে হয়, গণতন্ত্রের কথাও শুনতে হয়, ন্যায়বিচারের কথাও শুনতে হয়, সেটিই আমার কাছে অবাক লাগে।

Categories
Uncategorized

‘আবারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনা দায়িত্ব গ্রহণ করলেন’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান বলেছেন, আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলার মানুষের ম্যান্ডেট নিয়ে শেখ

হাসিনা আবারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর কাকরাইলস্থ ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইডিইবি) মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের

আয়োজিত ‘মুজিববর্ষে বিজয়ের ৫০ বছর ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী’ উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদান করা হয়। আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান বলেন, রাষ্ট্রপতি নির্বাচন কমিশনের জন্য ‘সার্চ কমিটি’ গঠনের জন্য দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ করেছেন এবং তাদের মতামত নিয়েছেন।

কিন্তু এ কমিশন গঠন প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে বিএনপি ষড়যন্ত্র করছে। তিনি বলেন, আমি পরিষ্কারভাবে বলে দিতে চাই, মহামান্য রাষ্ট্রপতি কমিশন গঠনের যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা আওয়ামী পূর্ণ সমর্থন করে। আমরা আশা করি, এই কমিশনের অধীনেই আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তিনি আরও বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য

নির্বাচনের মধ্য দিয়ে দেশের মানুষের ম্যান্ডেট নিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা আবারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ ও সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক এ কে এম আফজালুর রহমান বাবু। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক।

এছাড়াও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

Categories
Uncategorized

আমি বাংলাদেশকে খুব ভালোবাসিঃ বেলারুশের কন্যা নাতালিয়া নাতাশা

সাংসারিক জীবনের খুঁটিনাটির মজার সব ভিডিও করে ইতোমধ্যে নেট দুনিয়ায় আলোচিত হাবিব-নাতালিয়া দম্পতি। তারা নিয়মিত ভ্রমণ, শপিং,

রান্না-বান্না, খেলাধুলার ভিডিও আপলোড করেন ফেসবুক ও ইউটিউবে। সম্প্রতি বাংলাদেশে এসেছেন নাতালিয়া-হাবিব দম্পতি। সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) প্রথমবারের মতো নাতালিয়া স্বামী হাবিবুর রহমানের সঙ্গে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসেছেন। গ্রামের মেঠোপথ

ধরে হাঁটছেন আর ভাঙা বাংলায় সবার সঙ্গে কথা বলছেন নাতালিয়া। গ্রাম সম্পর্কে অসাধারণ অনুভূতি প্রকাশ করে নাতালিয়া বলেন, ঢাকা শহরে অনেক গাড়ি, অনেক বাড়ি। গাড়ির শব্দে ঠিকমতো ঘুমানো যায় না। গ্রামটা অনেক সুন্দর। এখানে একটা ভালো ঘুম হবে। বাংলাদেশকে ও গ্রামকে ভালোবাসি। তিনি আরও বলেন, আমাকে পরিবারের সবাই

প্রিন্সেসের মতো ট্রিট করছে। সবাই খুব দ্রুত আমাকে আপন করে নিয়েছে। আমাদের বেলারুশের গ্রামগুলো অনেক ছোট। তাই এভাবে উপভোগ করতে পারি নাই। এখানে সবার ব্যবহারে আমি মুগ্ধ। নাতালিয়া কাজ করতে চান এদেশের শিক্ষা থেকে বঞ্চিত শিশুদের জন্য। তিনি বলেন, বাংলাদেশে অনেক পথশিশু ও সুবিধাবঞ্চিত শিশু রয়েছে

যাদের শিক্ষার সুযোগ করে দিলে অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবে। আমরা তাদের জন্য সহজ শিক্ষামূলক ভিডিও বানাব। নাতাশা রহমানকে দেখতে এসেছেন মো. সেলিম হোসেন নামে এক প্রতিবেশী তিনি বলেন, হাবিবের বাড়ি আমাদের বাড়ির পাশে। শুনেছি তাদের বাড়িতে বিদেশিনী আসছে। তাই বিদেশি বউকে দেখতে এসেছি।

দেখে মনে হয়নি তাদের বাড়ি বিদেশ। আমাদের দেশের মানুষের মতো বাংলায় কথা বলে এবং সবার সঙ্গে মিশছে।

Categories
Uncategorized

বিদ্রোহী প্রার্থীর ৭ হাজারের বিপরীতে নৌকা পেল মাত্র ৯২ ভোট!

নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ৩, নৌকা ১ ও জাকের পার্টির ১ জন

নির্বাচিত হয়েছেন। পাঁচ ইউনিয়নের খাতামধুপুরে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মাসুদ রানা পাইলট বাবু। তিনি মোটরসাইকেল প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ৭ হাজার ৪০৫। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী জুয়েল চৌধুরী পেয়েছেন ৬ হাজার ৯৭৩

ভোট (আনারস)। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হাসিনা বেগম পেয়েছেন মাত্র ৯২ ভোট (নৌকা)। কামারপুকুর ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইউনিয়ন আনোয়ার হোসেন সরকার পেয়েছেন ৫ হাজার ১৯৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীক নিয়ে জিকো আহমেদ পেয়েছেন ৪ হাজার ৯০২ ভোট।

বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ইউনিয়ন ডা: শাহাজাদা সরকার নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৬ হাজার ৫৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী সাইদুল হক পেয়েছেন ৩ হাজার ৮০০ ভোট (মোটরসাইকেল)। কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হয়েছেন বাংলাদেশ জাকের পার্টি মনোনীত প্রার্থী লানছু

হাসান চৌধুরী ৬ হাজার ৩৫৭ ভোট (গোলাপ ফুল)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রভাষক কাজী মনিরুজ্জামান বাদশা ৫ হাজার ৮১১ (মোটরসাইকেল)। বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের নির্বাচিত চেয়ারম্যান হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইউনিয়ন মনিরুজ্জামান সরকার জুন। তিনি ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৭ হাজার

৫২৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী রওশন হাবিব চৌধুরী পেয়েছেন ৫ হাজার ৩৬৩ ভোট (অটোরিকশা)।

Categories
Uncategorized

যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশের রিজার্ভ সরিয়ে নিতে আইনি নোটিশ

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে বাংলাদেশের বৈদেশিক রিজার্ভ নিরাপদ কোনো দেশে সরিয়ে নিতে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. মাহমুদুল হাসান আজ সোমবার অর্থ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে এ নোটিশ পাঠান। ডিবিসি টিভি নোটিশে ৩০ দিনের মধ্যে বাংলাদেশের বৈদেশিক রিজার্ভ রক্ষায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। অন্যথায়

হাইকোর্টে রিট করা হবে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে। আজকের পত্রিকা নোটিশে বলা হয়েছে, বর্তমানে বাংলাদেশ ভূ-রাজনৈতিক ভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। যার দরুন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ভাবে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। বর্তমানে র‍্যাবের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশবিশেষ। বিভিন্ন দেশকে

চাপে রাখার জন্য তাদের অর্থ বাজেয়াপ্ত করা যুক্তরাষ্ট্রের নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ। বিডিনিউজ ২৪ নোটিশে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের উল্লেখযোগ্য অংশ যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে সংরক্ষণ করা হয়। ভবিষ্যতে সংরক্ষিত রিজার্ভ বাজেয়াপ্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এরূপ হলে বাংলাদেশের অর্থনীতি ধ্বংস

হয়ে যাবে এবং জনগণকে অবর্ণনীয় কষ্টের সম্মুখীন হতে হবে। তাই বাংলাদেশ ফরেন রিজার্ভ রক্ষার জন্য ন্যূনতম কিছু রিজার্ভ যুক্তরাষ্ট্রে রেখে বাকি অর্থ বিভিন্ন নিরাপদ দেশে সংরক্ষণ করতে হবে এবং স্বর্ণ আকারে রাখতে হবে। এ ছাড়া যেসব দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য বেশি সেসব দেশের স্থানীয় মুদ্রায় লেনদেন করতে হবে।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. মাহমুদুল হাসান আজ সোমবার অর্থ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং
জাগোনিউজ ২৪