Categories
Uncategorized

ভিসা-পাসপোর্ট ছাড়াই ৫ থেকে ৭ দিনের ভ্রমণকার্ড নিয়ে ভারত যেতে পারবেন বাংলাদেশীরা

বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ সাফিনুল ইসলাম বলেছেন,

‘বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী এলাকায় এমন অনেক মানুষ আছেন যাদের ভারতে আত্মীয়-স্বজন রয়েছেন। সীমান্তবর্তীরা যাতে বিভিন্ন উৎসবে ভারতে থাকা তাদের আত্মীয়-স্বজনের বাড়ি বেড়াতে যেতে পারেন তাই তাদের জন্য ৫ থেকে ৭ দিনের ভ্রমণকার্ড চালুর পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে।’

সোমবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার খাজুর ইউনিয়নে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এবং বিজিবি’র শীতকালীন যৌথ মহড়া পরিদর্শনে এসে তিনি এ কথা বলেন। ভ্রমণকার্ড চালুর বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিএসএফের প্রধানের সাথে তারা আলোচনা করছেন বলেও জানালেন বিজিবি মহাপরিচালক। সীমান্ত হ;;ত্যা বিষয়ে তিনি বলেন,

‘রাতের অন্ধকারে অসৎ উদ্দেশ্যে যারা সীমান্তের ওপারে যায় সাধারণত তারাই হ;;ত্যার শিকার হন।’ তাই এরূপ করতে নিষেধ করেছেন তিনি।
যৌথ মহড়ার বিষয়ে তিনি বলেন, “এর ফলে যেকোনো যু;;দ্ধ পরিস্থিতিতে বিজিবি দেশরক্ষার দায়িত্ব পালনে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারবে। পাশাপাশি বাড়বে বিজিবি সদস্যদের মনোবল ও দক্ষতা।

‘সীমান্তরক্ষী বাহিনী যু;;দ্ধের সময় সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে দেশ রক্ষার ল;ড়াই করবে’- আইনে বলা এ নির্দেশনা কিভাবে বাস্তবায়িত হবে তা হাতেকলমে শিখছেন বিজিবি সদস্যরা।” যৌথ প্রশিক্ষণ পরিদর্শনের আওতায় রণ প্রস্তুতির নানা কৌশল তৈরির পাশাপাশি প্রশিক্ষণার্থীদের সুখ-দুঃখের খোঁজ-খবরও নেন মেজর জেনারেল মোহাম্মদ সাফিনুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘সেনাবাহিনীর সাথে বিজিবির সমন্বয়ের প্রয়োজন। সেটাই এ প্রশিক্ষণের মূল উদ্দেশ্য। সব প্রশিক্ষণের ব্যাপারেই আমরা জোর দিচ্ছি।’ এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কবির, রংপুর অঞ্চলের সেক্টর কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নওরোজ, রাজশাহীর সেক্টর কমান্ডার আনোয়ার লতিফ প্রমুখ।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার খাজুর ইউনিয়নে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *