Categories
Uncategorized

৬ মাসের গর্ভবতী তামিমা, অনাগত সন্তানের বৈধতা নিয়ে যে প্রশ্ন

আলোচিত ক্রিকেটার নাসির ও তার স্ত্রী তামিমার বিয়ের ইস্যুতে মামলায় ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি চেয়ে সোমবার (২০ ডিসেম্বর) আবেদনের শুনানি চলাকালীন মৌখিকভাবে

তামিমা আদালতেকে জানিয়েছেন, তিনি গর্ভবতী। তবে বিচারাধীন মামলাটির রায় হওয়ার পর নাসির যদি তামিমার স্বামী হিসেবে বৈধতা না পান তাহলে তামিমার সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়েই প্রশ্ন উঠবে বলে জানিয়েছেন রাকিবের আইনজীবী ইসরাত হাসান। ইসরাত হাসান জানান,

আদালতে তামিমা বলেছেন, তিনি ছয় মাসের গর্ভবতী। কিন্তু যেখানে স্বামীর বৈধতার বিষয়টিই এখনও মীমাংসা হয়নি সেখানে তামিমার গর্ভের সন্তান নিয়ে আইনি জটিলতা তৈরি হবে। যদি রাকিব এই মামলায় জেতেন তাহলে এই সন্তানের ভরণ-পোষনের বিষয় রয়েছে। অন্যদিকে, নাসির স্বামী হিসেবে বৈধতা না পেলে তামিমার সন্তানের পিতৃপরিচয়

নিয়েও উঠবে প্রশ্ন। আগের স্বামীকে ডিভোর্স না দিয়েই ক্রিকেটার নাসির-তামিমার বিয়ের ইস্যুতে মামলায় ব্যক্তিগত হাজিরার আবেদনটি আদালতে নাকচ হলেও তারা তিনজনই আগের শর্তে জামিন পেয়েছেন। শর্ত অনুযায়ী তাদের নিয়মিত হাজিরা দিতে হবে। প্রসঙ্গত, দুই মাস আগে মুচলেকা দিয়ে জামিন পেয়েছিলেন তারা। আজ (২০ ডিসেম্বর) সকালে ঢাকা মহানগর

হাকিম মোহাম্মদ জসিমের আদালত এই আদেশ দেন। একই সাথে অন্যের স্ত্রীকে প্রলুব্ধ করে নিয়ে যাওয়া, ব্যভিচার ও মানহানির মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি পিছিয়ে ২৪ জানুয়ারি ধার্য করেছেন আদালত। এর আগে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি তাম্মির স্বামী রাকিব হাসান বাদী হয়ে আদালতে এ মামলা করেন। এরপর গত ৩০ সেপ্টেম্বর আদালতে

পিবিআই’র পুলিশ পরিদর্শক (নি.) শেখ মো. মিজানুর রহমান তিনজনকে দোষী উল্লেখ করে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেন। তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, রাকিবকে তালাক দেননি তামিমা। আইনগতভাবে রাকিব তালাকের কোনো নোটিশও পাননি। তামিমা উল্টো জালিয়াতি করে তালাকের নোটিশ তৈরি করে তা বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন। যথাযথ প্রক্রিয়ায় তালাক না

দেওয়ার ফলে তামিমা তাম্মি এখনো রাকিবের স্ত্রী হিসেবে বহাল রয়েছেন। দেশের ধর্মীয় বিধিবিধান ও আইন অনুযায়ী এক স্বামীকে তালাক না দিয়ে অন্য কাউকে বিয়ে করা অবৈধ ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এমন পরিস্থিতিতে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তামিমা তাম্মির বিয়ে অবৈধ। নাসির-তামিমা ও তার শাশুড়ির বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়, তামিমা বাদীর

সাথে বিয়ের সম্পর্ক চলমান থাকা অবস্থায় তথ্য গোপন করে ক্রিকেটার নাসিরকে বিয়ে করেছেন। তামিমা বিদেশি একটি এয়ারলাইনসে কেবিন ক্রু হিসেবে কাজ করেন। এর আগে, ২০১১ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বাদী রাকিবের সাথে তামিমার বিয়ে হয়। তোবা হাসান নামে ৮ বছর বয়সী তাদের একটি মেয়েও আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *