Categories
Uncategorized

আল্লাহু আকবর বলা তরুণীকে ৫ কোটি পুরষ্কার দিচ্ছেন সালমান-আমির, বিষয়টি কি সত্য

শিক্ষাঙ্গনে হিজাব নি’ষে’ধ করার সিদ্ধান্তে কর্ণাটকে বি’ক্ষো’ভের আ’গু’ন জ্ব’ল’ছে। সে আ’গু’ন

ক্র’ম’শ ছড়িয়ে পড়’ছে গোটা দেশে। বলিউডের একাধিক তারকা ইতিমধ‍্যেই বিষয়টা নিয়ে মুখ

খুলেছেন। এবার শোনা গেল, ‘আল্লাহু আকবর’ ধ্বনি দিয়ে নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হওয়া তরুণীকে

৫ কোটি টাকা পুরস্কার দিতে চলেছেন সলমন খান , আমির খান ও তুরস্কের সরকার। হিন্দুত্ববাদীদের বি’রু’দ্ধে সুর চ’ড়া’নোর জন‍্য নাকি
এই উপহার পাচ্ছেন তিনি। উদুপির একটি কলেজ থেকে প্রথমে শুরু হয়েছিল হিজাব বি’ত’র্ক। কলেজে কয়েকজন মুসলিম পড়ু’য়াকে বলা

হয়, হিজাব খুলে আসতে নয়তো ক্লাসরুম ছে’ড়ে বেরিয়ে যেতে। পড়ুয়ারা হিজাব খুলতে অস্বীকার করলে তাদের ক্লাস ছেড়ে বেরিয়ে যেতে বাধ‍্য করা হয়। এরপরেই শুরু হয় বি’ক্ষো’ভ। এর মাঝে সোশ‍্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওর জেরে বি’ক্ষো’ভের আ’গু’ন চ’ড়চড়ি’য়ে বে’ড়েছে। ভিডিওটি কর্ণাট’কের এক কলেজের। সেখানে দেখা যাচ্ছে,

একদল হি”ন্দুত্ববাদী যুব’ক জোর গ’লায় ‘জয় শ্রীরা’ম’ স্লোগা’ন দিচ্ছে। পালটা ‘আ’ল্লাহু আক’বর’ স্লো’গান দেন বোরখা পরা এক ত’রুণী। ভিডিওটি বিভিন্ন মহলে শো’রগো’ল ফেলে দিয়েছে। ভিডিওর মেয়েটির নাম মুসকান খান। রাতারাতি ভাইরাল হয়ে পড়েন তিনি। সম্প্রতি সোশ‍্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্টে দাবি করা হয়, সলমন, আমির এবং তুরস্ক

সরকার ওই ত’রুণীকে একটি বড় অ’ঙ্কের টাকা পুরস্কার দিতে চলেছেন হিন্দু’ত্ব’বাদীদের বিরু”দ্ধে রু’খে দাঁড়ানোর জন‍্য। পোস্টে আরো দাবি করা হয়, তুরস্ক সরকারের তরফে ৫ কোটি এবং সলমন ও আমিরের তরফে ৩ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে। তবে সংবাদ মাধ‍্যম সূত্রে খবর, এই খবর সম্পূর্ণ ভু’য়ো। তুরস্ক সরকারের তরফে এখনো কোনো আনুষ্ঠা’নিক

ঘোষনা করা হয়নি যে মুস’কানকে ওই ‘টাকাটা দেওয়া হবে। পাশাপাশি আমির ও সলমনের তরফেও এমন কোনো বিবৃতি দেওয়া হয়’নি যে তারা মুসকানকে ৩ কোটি টাকা’ দেবেন। এমনকি হিজাব বি’ত’র্কে এখনো মুখ পর্য’ন্ত খো’লেননি সলমন বা আমির। সবদি’ক দেখেই মনে করা হচ্ছে’, সম্ভবত এটি একটি গু”জব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *